‘নুরুল ইসলাম শুধু দোহার-নবাবগঞ্জ নয়, বাংলাদেশের গৌরব’
jugantor
‘নুরুল ইসলাম শুধু দোহার-নবাবগঞ্জ নয়, বাংলাদেশের গৌরব’

  যুগান্তর রিপোর্ট, নবাবগঞ্জ  

০৩ আগস্ট ২০২০, ১৩:১৭:৫৪  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকার নবাবগঞ্জে যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম স্মরণে তার জন্মভূমি কামারখোলা গ্রামে আলোচনা সভা, মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিশিষ্ট শিল্পপতি সোহরাব উদ্দিনের সঞ্চালনায় রোববার বাদআসর উজালা সংঘের আয়োজনে সংগঠনের মাঠ প্রাঙ্গণে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় বক্তাগণ বলেন, যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম দেশ বরেণ্য শিল্পপতি হয়েও, সব শ্রেনি পেশার মানুষকে মূল্যায়ন করতেন। সবার সঙ্গে মিশে এলাকার উন্নয়নে ব্যাপকভাবে অংশগ্রহণ করেছেন। কোনো অহংকার ছিল না তার। তিনি আমাদের সকলের প্রিয় মানুষ ছিলেন। তিনি শুধু দোহার নবাবগঞ্জ নয়, বাংলাদেশের গৌরব।

তারা বলেন, নুরুল ইসলাম এই অঞ্চলের রাস্তাঘাট, মসজিদ, মাদ্রাসাসহ বিদ্যুতায়নে অগ্রভাগে ছিলেন। উন্নয়ন কাজে কখনো পিছিয়ে যাননি তিনি। তার মৃত্যুতে আমরা গভীরভাবে শোকাহত। আল্লাহ যেন তাকে মাফ করে দেন। তাকে জান্নাত দান করেন।

বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলামের আত্মার শান্তি কামনা করে দোয়া পরিচালনা করেন মুফতি মোহাম্মদ আলী।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট শিল্পপতি মো. তাজুল ইসলাম এবং মীর হোসেন কালাম, শামীনুর ইসলাম, মো. সিদ্দিকুর রহমান, আ. সামাদ, আক্কাস পরামানিক, দ্বীন ইসলাম, কামারখোলা উজালা সংঘের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা ও গ্রামবাসী উপস্থিত ছিলেন।

‘নুরুল ইসলাম শুধু দোহার-নবাবগঞ্জ নয়, বাংলাদেশের গৌরব’

 যুগান্তর রিপোর্ট, নবাবগঞ্জ 
০৩ আগস্ট ২০২০, ০১:১৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ঢাকার নবাবগঞ্জে যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম স্মরণে তার জন্মভূমি কামারখোলা গ্রামে আলোচনা সভা, মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিশিষ্ট শিল্পপতি সোহরাব উদ্দিনের সঞ্চালনায় রোববার বাদআসর উজালা সংঘের আয়োজনে সংগঠনের মাঠ প্রাঙ্গণে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়।
 
এ সময় বক্তাগণ বলেন, যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম দেশ বরেণ্য শিল্পপতি হয়েও, সব শ্রেনি পেশার মানুষকে মূল্যায়ন করতেন। সবার সঙ্গে মিশে এলাকার উন্নয়নে ব্যাপকভাবে অংশগ্রহণ করেছেন। কোনো অহংকার ছিল না তার। তিনি আমাদের সকলের প্রিয় মানুষ ছিলেন। তিনি শুধু দোহার নবাবগঞ্জ নয়, বাংলাদেশের গৌরব।

তারা বলেন, নুরুল ইসলাম এই অঞ্চলের রাস্তাঘাট, মসজিদ, মাদ্রাসাসহ বিদ্যুতায়নে অগ্রভাগে ছিলেন। উন্নয়ন কাজে কখনো পিছিয়ে যাননি তিনি। তার মৃত্যুতে আমরা গভীরভাবে শোকাহত। আল্লাহ যেন তাকে মাফ করে দেন। তাকে জান্নাত দান করেন।

বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলামের আত্মার শান্তি কামনা করে দোয়া পরিচালনা করেন মুফতি মোহাম্মদ আলী।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট শিল্পপতি মো. তাজুল ইসলাম এবং মীর হোসেন কালাম, শামীনুর ইসলাম, মো. সিদ্দিকুর রহমান, আ. সামাদ, আক্কাস পরামানিক, দ্বীন ইসলাম, কামারখোলা উজালা সংঘের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা ও গ্রামবাসী উপস্থিত ছিলেন।

 

ঘটনাপ্রবাহ : যমুনা গ্রুপ চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন