কালীগঞ্জে রিসোর্টে সন্ত্রাসী হামলা, অগ্নিসংযোগ, লুটপাট
jugantor
কেটে ফেলা হয়েছে ৮ হাজার চারা
কালীগঞ্জে রিসোর্টে সন্ত্রাসী হামলা, অগ্নিসংযোগ, লুটপাট

  গাজীপুর প্রতিনিধি  

০৩ আগস্ট ২০২০, ২০:৪৬:২৫  |  অনলাইন সংস্করণ

সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা ফুল ও ফল মিলিয়ে বিভিন্ন প্রজাতির ৮ হাজার চারা গাছ কেটে ও পিষে নষ্ট করে।
সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা ফুল ও ফল মিলিয়ে বিভিন্ন প্রজাতির ৮ হাজার চারা গাছ কেটে ও পিষে নষ্ট করে।

গাজীপুরের কালীগঞ্জে একটি রিসোর্টে সন্ত্রাসী হামলা, ভাংচুর, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় সশ্রস্ত্র সন্ত্রাসীরা ফুল ও ফল মিলিয়ে বিভিন্ন প্রজাতির ৮ হাজার চারা গাছ কেটে ও পিষে নষ্ট করে। রোববার সন্ধ্যায় উপজেলার নারগানা ইন্টার্নেশন্যাল রিসোর্ট লিমিটেডে ওই হামলার ঘটনা ঘটে। 

রিসোর্টের ম্যানেজার সোহেল খন্দকার যুগান্তরকে জানান, সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ৪০/৫০ জনের একটি দুর্বৃত্ত দল মোটরসাইকেলে এসে হামলা চালায়। তাদের হাতে দা, হকিস্টিক, রড ও পিস্তল ছিল। তারা রিসোর্টের প্রতিটি কক্ষ, অফিস ও বসার স্থানে হামলা চালিয়ে আসবাবপত্র, এয়ারকন্ডিশনার, টেলিভিশন, ফ্রিজ, দরজা-জানাল ভেঙে ফেলে। হামলা থেকে বাদ যায়নি ওয়াশরুম ও রান্নাঘরও। তারা বাঁশ দিয়ে বিদেশী আদলে তৈরি দুই কামলার একটি ভিআইপি কক্ষ আগুন ধরিয়ে পুড়িয়ে দেয়। 

বাঁশের ওই কক্ষটি ৩০ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হয়েছিল। সন্ত্রাসীরা অফিস কক্ষে থেকে নগদ টাকা, বিভিন্ন কক্ষে থাকা বিদেশী কম্বল, তৈজসপত্র ও দামি মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। যাওয়ার আগে তারা রিসোর্টের নার্সারির ৮ হাজারের বেশি ফল ও ফলের চারা গাছ কেটে ও পিষে নষ্ট করে। প্রায় ঘন্টাব্যাপী তাণ্ডব চলাকালের কালীগঞ্জ থানা পুলিশের সহযোগিতা চেয়েও পাওয়া যায়নি। 

নারগানা ইন্টার্নেশনাল রিসোট লিমিটেডের মালিক জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য আজম খান যুগান্তরকে জানান, তাঁকে হত্যার উদ্দ্যেশে ওই হামলা চালানো হয়। কালীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের একজন ও উপজেলা যুবলীগের দুই শীর্ষনেতার নেতৃত্বে ওই হামলা হয়। কয়েক মিনিট আগে তিনি রিসোর্ট থেকে বের হয়ে চলে আসায় প্রাণে রক্ষা পেয়েছেন। কেন হামলা হয়েছে তা তার জানা নেই। ভাংচুর, লুটপাট, অগ্নিসংযোগ ও চারা কেটে রিসোর্টের কমপক্ষে দেড়-দুই কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে দাবি করেন তিনি। 

কালীগঞ্জ থানার ওসি এ কে এম মিজানুল হক জানান, হামলা ও অগ্নিসংযোগের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে কাউকে পায়নি। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

কেটে ফেলা হয়েছে ৮ হাজার চারা

কালীগঞ্জে রিসোর্টে সন্ত্রাসী হামলা, অগ্নিসংযোগ, লুটপাট

 গাজীপুর প্রতিনিধি 
০৩ আগস্ট ২০২০, ০৮:৪৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা ফুল ও ফল মিলিয়ে বিভিন্ন প্রজাতির ৮ হাজার চারা গাছ কেটে ও পিষে নষ্ট করে।
সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা ফুল ও ফল মিলিয়ে বিভিন্ন প্রজাতির ৮ হাজার চারা গাছ কেটে ও পিষে নষ্ট করে।

গাজীপুরের কালীগঞ্জে একটি রিসোর্টে সন্ত্রাসী হামলা, ভাংচুর, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় সশ্রস্ত্র সন্ত্রাসীরা ফুল ও ফল মিলিয়ে বিভিন্ন প্রজাতির ৮ হাজার চারা গাছ কেটে ও পিষে নষ্ট করে। রোববার সন্ধ্যায় উপজেলার নারগানা ইন্টার্নেশন্যাল রিসোর্ট লিমিটেডে ওই হামলার ঘটনা ঘটে।

রিসোর্টের ম্যানেজার সোহেল খন্দকার যুগান্তরকে জানান, সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ৪০/৫০ জনের একটি দুর্বৃত্ত দল মোটরসাইকেলে এসে হামলা চালায়। তাদের হাতে দা, হকিস্টিক, রড ও পিস্তল ছিল। তারা রিসোর্টের প্রতিটি কক্ষ, অফিস ও বসার স্থানে হামলা চালিয়ে আসবাবপত্র, এয়ারকন্ডিশনার, টেলিভিশন, ফ্রিজ, দরজা-জানাল ভেঙে ফেলে। হামলা থেকে বাদ যায়নি ওয়াশরুম ও রান্নাঘরও। তারা বাঁশ দিয়ে বিদেশী আদলে তৈরি দুই কামলার একটি ভিআইপি কক্ষ আগুন ধরিয়ে পুড়িয়ে দেয়।

বাঁশের ওই কক্ষটি ৩০ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হয়েছিল। সন্ত্রাসীরা অফিস কক্ষে থেকে নগদ টাকা, বিভিন্ন কক্ষে থাকা বিদেশী কম্বল, তৈজসপত্র ও দামি মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। যাওয়ার আগে তারা রিসোর্টের নার্সারির ৮ হাজারের বেশি ফল ও ফলের চারা গাছ কেটে ও পিষে নষ্ট করে। প্রায় ঘন্টাব্যাপী তাণ্ডব চলাকালের কালীগঞ্জ থানা পুলিশের সহযোগিতা চেয়েও পাওয়া যায়নি।

নারগানা ইন্টার্নেশনাল রিসোট লিমিটেডের মালিক জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য আজম খান যুগান্তরকে জানান, তাঁকে হত্যার উদ্দ্যেশে ওই হামলা চালানো হয়। কালীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের একজন ও উপজেলা যুবলীগের দুই শীর্ষনেতার নেতৃত্বে ওই হামলা হয়। কয়েক মিনিট আগে তিনি রিসোর্ট থেকে বের হয়ে চলে আসায় প্রাণে রক্ষা পেয়েছেন। কেন হামলা হয়েছে তা তার জানা নেই। ভাংচুর, লুটপাট, অগ্নিসংযোগ ও চারা কেটে রিসোর্টের কমপক্ষে দেড়-দুই কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে দাবি করেন তিনি।

কালীগঞ্জ থানার ওসি এ কে এম মিজানুল হক জানান, হামলা ও অগ্নিসংযোগের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে কাউকে পায়নি। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন