মেঘনায় গোসলে নেমে ছাত্র নিখোঁজ
jugantor
মেঘনায় গোসলে নেমে ছাত্র নিখোঁজ

  ভৈরব (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি  

০৫ আগস্ট ২০২০, ১৮:২৮:০২  |  অনলাইন সংস্করণ

ভৈরব
সাঁতার কাটতে গিয়ে মাকমুদুল পানির স্রোতে ভেসে যায়।

ভৈরবে ঘুরতে এসে মেঘনা নদীতে গোসলে নেমে মাকমুদুল (১৬) নামের এক ছাত্র নিখোঁজ হয়েছে। নরসিংদীর মনোহরদি উপজেলার চক মাধবদি গ্রামের আবদুল কাদিরের ছেলে মাকমুদুল। সে ছিল কলেজছাত্র।
মঙ্গলবার বিকেল ৬টায় ভৈরবের ত্রিসেতু এলাকার মেঘনা নদীতে এ ঘটনাটি ঘটে। ঘটনার খবর পেয়ে নৌপুলিশ, ফায়ারকর্মী ও তার পরিবারের সদস্যরা ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। ঘটনার পরপরই ভৈরব ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরিরা কয়েক ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়েও নদীতে তার খোঁজ পাননি। ডুবুরিরা ধারণা করছেন, নদীর স্রোতে ভৈরবের দক্ষিণে লাশটি কয়েক মাইল দূরে চলে গেছে। পুলিশ জানিয়েছে, আজ বুধবার দুপুর পর্যন্ত তার লাশের সন্ধান পাওয়া যায়নি।
মঙ্গলবার বিকেলে নরসিংদীর মনোহরদি এলাকা থেকে ৬ বন্ধু মিলে ভৈরবের মেঘনাপাড়ে ঘুরতে এসে এ ঘটনাটি ঘটে।
তার সাথের বন্ধুরা জানায়, মঙ্গলবার সন্ধ্যার আগে আমরা সবাই আনন্দ করতে মেঘনা নদীতে গোসল করতে পানিতে নামি। এ সময় সাঁতার কাটতে গিয়ে মাকমুদুল পানির স্রোতে ভেসে যায়। তখন সে চিৎকার শুরু করলেও তাকে তারা বাঁচাতে পারিনি। কারণ এ সময় অন্য বন্ধুদের একই অবস্থা হয়েছিল। নদীর জেলেরা অন্য বন্ধুদের পানি থেকে উদ্ধার করেন।
ভৈরব ফায়ার স্টেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জহিরুল ইসলাম জানান, ঘটনার খবর পেয়ে ডুবুরিরা পানিতে নেমে অনেক চেষ্টা করেও তার সন্ধান পায়নি। মঙ্গলবার রাত ১০টা পর্যন্ত চেষ্টা করা হয়। তিনি বলেন, আমরা ধারণা করছি মেঘনা নদীর তীব্র স্রোতে দক্ষিণ দিকে অনেক দূরে চলে গেছে তার লাশ।
মনোহরদি এলাকার কাউন্সিলর জাকির হোসেন জানান, ঘটনার খবর পেয়ে তার পরিবারের সদস্যরা ঘটনাস্থলে এসে ভৈরব থেকে ১৫ কিলোমিটার দূরে নৌকা নিয়েও তার খোঁজ পাননি। আজ বুধবার আবারও নদীতে তার লাশ খোঁজা হচ্ছে।
ভৈরব নৌ-থানার ওসি তরিকুল ইসলাম জানান, ঈদের আনন্দ করতে মেঘনাপাড়ে প্রতিদিন হাজারও দর্শনার্থী উপস্থিত হচ্ছেন। তারা ৬ বন্ধু আনন্দ করতে নদীতে গোসলে নেমে এই দুর্ঘটনাটি ঘটে। পুলিশ নদীতে এখনও তাকে খুঁজছে, কিন্তু লাশ এখনও পায়নি।
 

মেঘনায় গোসলে নেমে ছাত্র নিখোঁজ

 ভৈরব (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি 
০৫ আগস্ট ২০২০, ০৬:২৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ভৈরব
সাঁতার কাটতে গিয়ে মাকমুদুল পানির স্রোতে ভেসে যায়।

ভৈরবে ঘুরতে এসে মেঘনা নদীতে গোসলে নেমে মাকমুদুল (১৬) নামের এক ছাত্র নিখোঁজ হয়েছে। নরসিংদীর মনোহরদি উপজেলার চক মাধবদি গ্রামের আবদুল কাদিরের ছেলে মাকমুদুল। সে ছিল কলেজছাত্র।
মঙ্গলবার বিকেল ৬টায় ভৈরবের ত্রিসেতু এলাকার মেঘনা নদীতে এ ঘটনাটি ঘটে। ঘটনার খবর পেয়ে নৌপুলিশ, ফায়ারকর্মী ও তার পরিবারের সদস্যরা ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। ঘটনার পরপরই ভৈরব ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরিরা কয়েক ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়েও নদীতে তার খোঁজ পাননি। ডুবুরিরা ধারণা করছেন, নদীর স্রোতে ভৈরবের দক্ষিণে লাশটি কয়েক মাইল দূরে চলে গেছে। পুলিশ জানিয়েছে, আজ বুধবার দুপুর পর্যন্ত তার লাশের সন্ধান পাওয়া যায়নি।
মঙ্গলবার বিকেলে নরসিংদীর মনোহরদি এলাকা থেকে ৬ বন্ধু মিলে ভৈরবের মেঘনাপাড়ে ঘুরতে এসে এ ঘটনাটি ঘটে।
তার সাথের বন্ধুরা জানায়, মঙ্গলবার সন্ধ্যার আগে আমরা সবাই আনন্দ করতে মেঘনা নদীতে গোসল করতে পানিতে নামি। এ সময় সাঁতার কাটতে গিয়ে মাকমুদুল পানির স্রোতে ভেসে যায়। তখন সে চিৎকার শুরু করলেও তাকে তারা বাঁচাতে পারিনি। কারণ এ সময় অন্য বন্ধুদের একই অবস্থা হয়েছিল। নদীর জেলেরা অন্য বন্ধুদের পানি থেকে উদ্ধার করেন।
ভৈরব ফায়ার স্টেশনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জহিরুল ইসলাম জানান, ঘটনার খবর পেয়ে ডুবুরিরা পানিতে নেমে অনেক চেষ্টা করেও তার সন্ধান পায়নি। মঙ্গলবার রাত ১০টা পর্যন্ত চেষ্টা করা হয়। তিনি বলেন, আমরা ধারণা করছি মেঘনা নদীর তীব্র স্রোতে দক্ষিণ দিকে অনেক দূরে চলে গেছে তার লাশ।
মনোহরদি এলাকার কাউন্সিলর জাকির হোসেন জানান, ঘটনার খবর পেয়ে তার পরিবারের সদস্যরা ঘটনাস্থলে এসে ভৈরব থেকে ১৫ কিলোমিটার দূরে নৌকা নিয়েও তার খোঁজ পাননি। আজ বুধবার আবারও নদীতে তার লাশ খোঁজা হচ্ছে।
ভৈরব নৌ-থানার ওসি তরিকুল ইসলাম জানান, ঈদের আনন্দ করতে মেঘনাপাড়ে প্রতিদিন হাজারও দর্শনার্থী উপস্থিত হচ্ছেন। তারা ৬ বন্ধু আনন্দ করতে নদীতে গোসলে নেমে এই দুর্ঘটনাটি ঘটে। পুলিশ নদীতে এখনও তাকে খুঁজছে, কিন্তু লাশ এখনও পায়নি।