তেঁতুলিয়া নদীতে ১৫ সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়ে নৌকাডুবি
jugantor
তেঁতুলিয়া নদীতে ১৫ সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়ে নৌকাডুবি

  লালমোহন (ভোলা) প্রতিনিধি  

০৫ আগস্ট ২০২০, ২২:০০:২২  |  অনলাইন সংস্করণ

ভোলা
ভোলা

ভোলার লালমোহনে তেঁতুলিয়া নদীতে ১৫ সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়ে একটি যাত্রীবাহী নৌকা ডুবে গেছে। 

ডুবে যাওয়া যাত্রীদের অন্য নৌকা গিয়ে উদ্ধার করে। কেউ কেউ সাঁতরে তীরে উঠতে সক্ষম হয়। বুধবার দুপুরে উপজেলার পশ্চিম চর উমেদ সংলগ্ন তেঁতুলিয়া নদীতে এ ঘটনা ঘটে। 

নৌকা ডুবে পিআইও, তহসিলদার, সার্ভেয়ারসহ ১৫ জন আহত হয়। তাদের মধ্যে দুজনকে ভোলা হাসপাতালে ও বাকিদের লালমোহন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তারা বিচ্ছিন্ন চর কচুয়াখালীতে ভূমিহীনদের মাঝে সরকারি ঘর হস্তান্তরের জন্য রওনা হয়েছিল। আহতরা হলেন পিআইও অপূর্ব দাস, ভূমি অফিসের তহসিলদার আসাদুজ্জামান রনি, আশরাফ, আজহার উদ্দিন, অনিমেষ বেপারি, সিরাজ উদ্দিন, মমিন, হুমায়ুন, গৌরাঙ্গ চন্দ্র, সুনিল, জসিম উদ্দিন, সাঈদ আহমেদ, শফিকুর রহমান ও মোস্তফা। 

স্থানীয় চৌকিদার (গ্রামপুলিশ) মিজান জানান, দুপুরের দিকে পশ্চিম চরউমেদ ইউনিয়নের গজারিয়া খালগোড়া ঘাট থেকে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) অপূর্ব দাস, তহসিলদার আসাদুল ইসলাম রনির নেতৃত্বে পিআই অফিস ও ভূমি অফিসের ১৫ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী একটি নৌকা নিয়ে চর কচুয়াখালীর উদ্দেশে রওনা দেয়।

নৌকাটি তেঁতুলিয়া নদীতে গেলে প্রবল স্রোতের মধ্যে পড়ে উল্টে যায়। এতে নৌকায় থাকা সবাই নদীতে ভেসে থাকলে খবর পেয়ে ঘাট থেকে অন্য নৌকা গিয়ে তাদের উদ্ধার করে।

এদিকে নৌকা ডোবার খবর পেয়ে ঘাটে ছুটে যান উপজেলা নির্বাহী অফিসার হাবিবুল হাসান রুমি। তিনি জানান, আল্লাহর রহমতে সবাই সুস্থ আছেন। আহতদের লালমোহন হাসপাতালে আনা হলে দুজনকে ভোলা নেয়া হয়েছে। বাকিরা লালমোহন হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।
 

তেঁতুলিয়া নদীতে ১৫ সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়ে নৌকাডুবি

 লালমোহন (ভোলা) প্রতিনিধি 
০৫ আগস্ট ২০২০, ১০:০০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ভোলা
ভোলা

ভোলার লালমোহনে তেঁতুলিয়া নদীতে ১৫ সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়ে একটি যাত্রীবাহী নৌকা ডুবে গেছে।

ডুবে যাওয়া যাত্রীদের অন্য নৌকা গিয়ে উদ্ধার করে। কেউ কেউ সাঁতরে তীরে উঠতে সক্ষম হয়। বুধবার দুপুরে উপজেলার পশ্চিম চর উমেদ সংলগ্ন তেঁতুলিয়া নদীতে এ ঘটনা ঘটে।

নৌকা ডুবে পিআইও, তহসিলদার, সার্ভেয়ারসহ ১৫ জন আহত হয়। তাদের মধ্যে দুজনকে ভোলা হাসপাতালে ও বাকিদের লালমোহন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তারা বিচ্ছিন্ন চর কচুয়াখালীতে ভূমিহীনদের মাঝে সরকারি ঘর হস্তান্তরের জন্য রওনা হয়েছিল। আহতরা হলেন পিআইও অপূর্ব দাস, ভূমি অফিসের তহসিলদার আসাদুজ্জামান রনি, আশরাফ, আজহার উদ্দিন, অনিমেষ বেপারি, সিরাজ উদ্দিন, মমিন, হুমায়ুন, গৌরাঙ্গ চন্দ্র, সুনিল, জসিম উদ্দিন, সাঈদ আহমেদ, শফিকুর রহমান ও মোস্তফা।

স্থানীয় চৌকিদার (গ্রামপুলিশ) মিজান জানান, দুপুরের দিকে পশ্চিম চরউমেদ ইউনিয়নের গজারিয়া খালগোড়া ঘাট থেকে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) অপূর্ব দাস, তহসিলদার আসাদুল ইসলাম রনির নেতৃত্বে পিআই অফিস ও ভূমি অফিসের ১৫ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী একটি নৌকা নিয়ে চর কচুয়াখালীর উদ্দেশে রওনা দেয়।

নৌকাটি তেঁতুলিয়া নদীতে গেলে প্রবল স্রোতের মধ্যে পড়ে উল্টে যায়। এতে নৌকায় থাকা সবাই নদীতে ভেসে থাকলে খবর পেয়ে ঘাট থেকে অন্য নৌকা গিয়ে তাদের উদ্ধার করে।

এদিকে নৌকা ডোবার খবর পেয়ে ঘাটে ছুটে যান উপজেলা নির্বাহী অফিসার হাবিবুল হাসান রুমি। তিনি জানান, আল্লাহর রহমতে সবাই সুস্থ আছেন। আহতদের লালমোহন হাসপাতালে আনা হলে দুজনকে ভোলা নেয়া হয়েছে। বাকিরা লালমোহন হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন