হজরত খানজাহান (রহ.) মাজারে ভক্তদের ভিড়

  যুগান্তর ডেস্ক    ৩০ মার্চ ২০১৮, ২০:৩৭ | অনলাইন সংস্করণ

বাগেরহাট

বাগেরহাটে ঐতিহাসিক হজরত খানজাহান (রহ.) মাজার শরিফ প্রাঙ্গণে শুক্রবার বিকাল থেকে শুরু হয়েছে তিন দিনব্যাপী বার্ষিক মেলা। প্রতি বছর চৈত্র মাসের পূর্ণিমা তিথিতে এই মেলা শুরু হয়। রোববার এই মেলা শেষ হবে।

শুক্রবার সকাল থেকে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে হাজার হাজার পর্যটকসহ ভক্ত-আশেকান নারী-পুরুষ মাজার এলাকায় জড়ো হতে শুরু করে। পুলিশ এবার মেলায় নিরাপত্তায় বসিয়েছে সিসি ক্যামেরা। এছাড়া বিশৃঙ্খলা এড়াতে পুলিশের পাশাপাশি নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োজিত থাকছে।

প্রতি বছর প্রায় লাখো ভক্ত ও আশেকানসহ দেশি-বিদেশি পর্যটক হজরত খানজাহানের মেলায় জড়ো হন তাদের মনোবাসনা পূরণের আশায়। তাদের বিশ্বাস মেলার সময়ে হজরত খানজাহানের মাজার শরিফ মিলবে তাদের সব সমস্যার সমাধান। অন্যদিকে, মেলা উপলক্ষে মাজার এলাকায় দোকানিরা নানা রকমের বাহারি পসরা সাজিয়ে বসেছেন।

প্রায় সাড়ে ৬০০ বছর ধরে হজরত খানজাহান (রহ.) মাজারে এই মেলা চলে আসছে। মেলায় এসে হজরত খানজাহানের ভক্ত-আশেকান দূর-দূরান্ত থেকে মাজার এলাকার দীঘিরপাড়সহ বিস্তীর্ণ স্থানজুড়ে যে যার মতো করে তাদের আসর বসিয়েছেন। ধর্মবর্ণ-নির্বিশেষে সব ভক্ত-আশেকানদের পদচারণায় মাজার প্রাঙ্গণ মিলনমেলায় পরিণত হয়ে উঠেছে।

ভক্ত-আশেকানরা দেশিয় নানা বাদ্যযন্ত্র নিয়ে খাজাবাবা খানজাহানের গানসহ মুর্শিদি- মারফতি, লালন, ও ভাটিয়ালি গান পরিবেশন করে থাকেন।

হজরত খানজাহানের ভক্ত-আশেকানরা বলেন, প্রতি বছর পূর্ণিমা তিথিতে আমরা এখানে জড়ো হই। এখানে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে হজরত খানজাহানের আশেকানরা দেশীয় বাদ্যযন্ত্র নিয়ে গান আসর বসান। হজরত খানজাহানের কৃপার আশায় মেলা শেষে আবার সবাই যার যার গন্তব্যে ফিরে যাই।

মাজারের প্রধান খাদেম শের আলী ফকির বলেন, প্রতি বছর চৈত্র মাসের পূর্ণিমা তিথিতে এই মেলা বসে। খানজাহানের হাজার হাজার ভক্ত-আশেকানরা তাদের নানা মনোবাসনা নিয়ে হাজির হন। তারা বিশ্বাস করেন খানজাহান এখানে কাউকে খালি হাতে ফেরান না। তাদের সব আশা পূরণ করেন খানজাহান। তাই সব ধর্মের মানুষ এই সময়ে হজরত খানজাহানের মাজারে মিলিত হন।

বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক তপন কুমার বিশ্বাস বলেন, এবার মেলায় সব ধরনের বিশৃঙ্খলা এড়াতে বসানো হয়েছে সিসি ক্যামেরা। এছাড়া পুলিশের পাশাপাশি নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকীকে সেখানে নিয়োগ করা হয়েছে।

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×