হাতিয়ায় আ’লীগের মিছিলে হামলা, ওসিসহ আহত ১০

প্রকাশ : ২৮ ডিসেম্বর ২০১৭, ২০:৪২ | অনলাইন সংস্করণ

  নোয়াখালী প্রতিনিধি

ফাইল ছবি

নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলায় আওয়ামী লীগের মিছিলে হামলা, মাইক্রোবাস ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করেছে অস্ত্রধারী দুর্বৃত্তরা। 

এ সময় পুলিশ ও ছাত্রলীগের পাঁচ সদস্য গুলিবিদ্ধসহ ১০ জন আহত হয়েছেন। বুধবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। 

আহতদের মধ্যে যাদের নাম জানা গেছে, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামান শিকদার, এসআই হুমায়ুন, এএসআই শফিক, আসিকুল ইসলাম, পৌরসভা ছাত্রলীগের কর্মী শরিফ উদ্দিন (২২) ও ৬ নম্বর ওয়ার্ডের আবদুল করিমের ছেলে।
 
শীর্ষ বনদস্যু ১৫ মামলার গ্রেফতার আসামি রবীন্দ্র বাহিনীর প্রধান রবীন্দ্রসহ তিনজনের ফাঁসি দাবিতে বুধবার রাত ৮টায় হাতিয়া পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি অ্যাডভোকেট ছাইফুদ্দিন আহম্মদের নেতৃত্বে একটি মিছিল আফাজিয়া বাজার থেকে উপজেলা শহরে যাচ্ছিল। মিছিলটি এমপি আয়েশা ফেরদাউসের স্বামী মো. আলীর বাসা কাছাকাছি পৌঁছলে মিছিলে হামলার ঘটনা ঘটে।
 
অ্যাডভোকেট ছাইফুদ্দিন আহম্মদ ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম যুগান্তরকে বলেন, এমপি আয়েশা ফেরদাউসের স্বামী মোহাম্মদ আলীর অনুগত চরঈশ্বর ইউনিয়নের শীর্ষ অস্ত্রধারী রবীন্দ্র বাহিনীর প্রধান রবীন্দ্র, ছানু ডাকাত ও আরিফ ডাকাতকে গত ২৫ ডিসেম্বর গ্রেফতার করে থানা পুলিশ। আসামিদের বিরুদ্ধে গত বছরের ৩০ মার্চ কেন্দ্রীয় যুবলীগ সদস্য প্রফেসর আশ্রাফ উদ্দিন আহম্মেদকে চরঈশ্বর আফাজিয়া বাজারে গুলি করে হত্যার অভিযোগ রয়েছে।

এ ছাড়া তাদের বিরুদ্ধে ধর্ষণসহ ১৫টি মামলায় ‘ওয়ারেন্ট’ রয়েছে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ তিনজনকে আটক করে জেলা কারাগারে প্রেরণ করেছে। এই আসামিদের মুক্তি দাবিতে তাদের পক্ষের লোকজন বৃহস্পতিবার ভোরে আফাজিয়া বাজার ঘাট থেকে উপজেলা শহর পর্যন্ত সড়কের দুই পাশে গাছ কেটে সড়কটি অবরোধ করে। এতে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পুলিশ সকাল ৮টার দিকে ঘটনাস্থলে এসে লাঠিচার্জ করে সড়কের ওপর থেকে গাছের গুঁড়ি সরিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।  
 
হাতিয়া থানার ওসি কামরুজ্জামান শিকদার পিপিএম জানান, দুর্বৃত্তদের হামলায় তিনিসহ পুলিশের কয়েক সদস্য আহত হয়েছেন। মামলা হলে আসামিদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।