করোনায় মারা যাওয়া মুক্তিযোদ্ধা ডা. গোলাম মোস্তফাকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন
jugantor
করোনায় মারা যাওয়া মুক্তিযোদ্ধা ডা. গোলাম মোস্তফাকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন

  গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি  

০৯ আগস্ট ২০২০, ১৮:২৬:০৮  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনা
করোনায় আক্রান্ত হয়ে শনিবার রাতে মারা যাওয়া গোয়ালন্দের কৃতীসন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধা, বিশিষ্ট চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডা. মো. গোলাম মোস্তফাকে (৭৫) রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন করা হয়েছে। যুগান্তর

করোনায় আক্রান্ত হয়ে শনিবার রাতে মারা যাওয়া গোয়ালন্দের কৃতীসন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধা, বিশিষ্ট চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডা. মো. গোলাম মোস্তফাকে (৭৫) রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন করা হয়েছে।

রোববার সকাল ১০টায় রাজবাড়ীর ১নং বেড়া ডাংগা জামে মসজিদের মাঠে রাজবাড়ী সদর উপজেলার এসি ল্যান্ড আরিফুর রহমানের নেতৃত্বে পুলিশের একটি চৌকস দল তাকে রাষ্ট্রের পক্ষ হতে গার্ড অব অনার প্রদান করে। এরপর জানাজা শেষে তাকে শহরের ভবানীপুর কবরস্থানে দাফন করা হয়।

জানাজায় জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফকির আ. জব্বার, রাজবাড়ীর পৌর মেয়র মোহম্মদ আলী চৌধুরী, সিভিল সার্জন ডা. মো. নুরুল ইসলাম, বিএমএর রাজবাড়ীর মহাসচিব ডা. এ এসএম শফিকুল ইসলাম পাতাসহ সহস্রাধিক মানুষ অংশ নেন।

তিনি স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন ও বঙ্গবন্ধু পরিষদের রাজবাড়ী জেলা শাখার সভাপতি ছিলেন।

তার মৃত্যুতে রাজবাড়ী-১ আসনের সংসদ সদস্য কাজী কেরামত আলী ও রাজবাড়ী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ফকির আ. জব্বার গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

মরহুম ডা. গোলাম মোস্তফা গোয়ালন্দ পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের বিপেন রায়েরপাড়ার বাসিন্দা মৃত হাজী মো. গিয়াসউদ্দিন প্রামাণিকের জ্যেষ্ঠসন্তান। তিনি দীর্ঘকাল ধরে রাজবাড়ী জেলা শহরের ১নং বেড়া ডাংগা এলাকার নিজ বাড়িতে বসবাস করতেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, তিনি গত ১০-১২ দিন ধরে জ্বরে আক্রান্ত ছিলেন। এর মধ্যে করোনার পরীক্ষা করা হলে পজিটিভ রিপোর্ট আসে। এরপর হতে তিনি হোম আইসোলেশনে ছিলেন। শনিবার তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে রাত সোয়া ৮টার দিকে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী ও চার মেয়ে, আত্মীয়স্বজন, শুভাকাঙ্ক্ষীসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে যান।
 

করোনায় মারা যাওয়া মুক্তিযোদ্ধা ডা. গোলাম মোস্তফাকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন

 গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি 
০৯ আগস্ট ২০২০, ০৬:২৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
করোনা
করোনায় আক্রান্ত হয়ে শনিবার রাতে মারা যাওয়া গোয়ালন্দের কৃতীসন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধা, বিশিষ্ট চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডা. মো. গোলাম মোস্তফাকে (৭৫) রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন করা হয়েছে। যুগান্তর

করোনায় আক্রান্ত হয়ে শনিবার রাতে মারা যাওয়া গোয়ালন্দের কৃতীসন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধা, বিশিষ্ট চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডা. মো. গোলাম মোস্তফাকে (৭৫) রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন করা হয়েছে।

রোববার সকাল ১০টায় রাজবাড়ীর ১নং বেড়া ডাংগা জামে মসজিদের মাঠে রাজবাড়ী সদর উপজেলার এসি ল্যান্ড আরিফুর রহমানের নেতৃত্বে পুলিশের একটি চৌকস দল তাকে রাষ্ট্রের পক্ষ হতে গার্ড অব অনার প্রদান করে। এরপর জানাজা শেষে তাকে শহরের ভবানীপুর কবরস্থানে দাফন করা হয়।

জানাজায় জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফকির আ. জব্বার, রাজবাড়ীর পৌর মেয়র মোহম্মদ আলী চৌধুরী, সিভিল সার্জন ডা. মো. নুরুল ইসলাম, বিএমএর রাজবাড়ীর মহাসচিব ডা. এ এসএম শফিকুল ইসলাম পাতাসহ সহস্রাধিক মানুষ অংশ নেন।

তিনি স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ, বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন ও বঙ্গবন্ধু পরিষদের রাজবাড়ী জেলা শাখার সভাপতি ছিলেন।

তার মৃত্যুতে রাজবাড়ী-১ আসনের সংসদ সদস্য কাজী কেরামত আলী ও রাজবাড়ী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ফকির আ. জব্বার গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

মরহুম ডা. গোলাম মোস্তফা গোয়ালন্দ পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের বিপেন রায়েরপাড়ার বাসিন্দা মৃত হাজী মো. গিয়াসউদ্দিন প্রামাণিকের জ্যেষ্ঠসন্তান। তিনি দীর্ঘকাল ধরে রাজবাড়ী জেলা শহরের ১নং বেড়া ডাংগা এলাকার নিজ বাড়িতে বসবাস করতেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, তিনি গত ১০-১২ দিন ধরে জ্বরে আক্রান্ত ছিলেন। এর মধ্যে করোনার পরীক্ষা করা হলে পজিটিভ রিপোর্ট আসে। এরপর হতে তিনি হোম আইসোলেশনে ছিলেন। শনিবার তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে রাত সোয়া ৮টার দিকে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী ও চার মেয়ে, আত্মীয়স্বজন, শুভাকাঙ্ক্ষীসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে যান।