যুবকের বাড়িতে ৫ দিন ধরে কলেজছাত্রী, আসবাবপত্র ভাংচুর
jugantor
যুবকের বাড়িতে ৫ দিন ধরে কলেজছাত্রী, আসবাবপত্র ভাংচুর

  দেওয়ানগঞ্জ (জামালপুর) প্রতিনিধি   

১৩ আগস্ট ২০২০, ১৯:০৯:৩০  |  অনলাইন সংস্করণ

জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ উপজেলায় বিয়ের দাবিতে ৫ দিন ধরে প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান করছেন এক কলেজ শিক্ষার্থী। এদিকে প্রেমিক কার্তিক সূত্রধরের বাড়ি ভাংচুর করেছে ওই ছাত্রীর স্বজনরা। এতে বাধা দিতে গেলে বৃদ্ধ-শিশুসহ ৭ জনকে পিটিয়ে আহত করা হয়েছে। 

ওই ছাত্রী জানান, তিনি ময়মনসিংহ সরকারি আনন্দ মোহন কলেজের দর্শন বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। ২০১৭ সালে কার্তিকের সঙ্গে তার পরিচয় ও প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বিয়ের কথা বলে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তুলে। এরপর বিয়ের কথা বললে টালবাহানা শুরু করে। কয়েক দিন ধরে অন্যত্র কার্তিকের বিয়ের আলোচনা হওয়ায় রোববার থেকে কার্তিকের বাসায় বিয়ের দাবিতে অবস্থান করছেন তিনি।

এদিকে বিষয়টি মীমাংসার জন্য বসতে চাইলে কার্তিকের পরিবার থেকে সাড়া পাওয়া যায়নি।

বৃহস্পতিবার সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, ওই ছাত্রী কার্তিকের ঘরে অবস্থান করছেন। বাড়িতে কার্তিকের বাবা, ভাই-বোন কাউকে পাওয়া যায়নি।

বাড়িতে থাকা কার্তিকের দাদি রেনু সূত্রধর জানান, বাড়িতে কার্তিকের বাবা, ভাই-বোন কেউ নেই।

কার্তিকের নানি বৃদ্ধা কমলা জানান, প্রতিবেশী প্রভাবশালী লোকজন বাড়িতে জোরপূর্বক ঢুকে রড, লাঠি দিয়ে পিটিয়ে ড্রেসিং টেবিল, ট্রাংক, শোকেসসহ আসবাবপত্র ভাংচুর করেছে। ভাংচুরের সময় ওই ছাত্রী ঘরেই ছিলেন। এ সময় তিনি ছাড়াও রিতা, শুভ্র, আনন্দ, বাঁধন, পূর্ণিমা, সুব্রত, কনক, রিনুসহ বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।

দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানার ওসি এমএম ময়নুল ইসলাম জানান, এ বিষয়ে ওই ছাত্রী বাদী হয়ে একটি এজাহার দায়ের করেছেন।

যুবকের বাড়িতে ৫ দিন ধরে কলেজছাত্রী, আসবাবপত্র ভাংচুর

 দেওয়ানগঞ্জ (জামালপুর) প্রতিনিধি  
১৩ আগস্ট ২০২০, ০৭:০৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ উপজেলায় বিয়ের দাবিতে ৫ দিন ধরে প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান করছেন এক কলেজ শিক্ষার্থী। এদিকে প্রেমিক কার্তিক সূত্রধরের বাড়ি ভাংচুর করেছে ওই ছাত্রীর স্বজনরা। এতে বাধা দিতে গেলে বৃদ্ধ-শিশুসহ ৭ জনকে পিটিয়ে আহত করা হয়েছে।

ওই ছাত্রী জানান, তিনি ময়মনসিংহ সরকারি আনন্দ মোহন কলেজের দর্শন বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। ২০১৭ সালে কার্তিকের সঙ্গে তার পরিচয় ও প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বিয়ের কথা বলে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তুলে। এরপর বিয়ের কথা বললে টালবাহানা শুরু করে। কয়েক দিন ধরে অন্যত্র কার্তিকের বিয়ের আলোচনা হওয়ায় রোববার থেকে কার্তিকের বাসায় বিয়ের দাবিতে অবস্থান করছেন তিনি।

এদিকে বিষয়টি মীমাংসার জন্য বসতে চাইলে কার্তিকের পরিবার থেকে সাড়া পাওয়া যায়নি।

বৃহস্পতিবার সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, ওই ছাত্রী কার্তিকের ঘরে অবস্থান করছেন। বাড়িতে কার্তিকের বাবা, ভাই-বোন কাউকে পাওয়া যায়নি।

বাড়িতে থাকা কার্তিকের দাদি রেনু সূত্রধর জানান, বাড়িতে কার্তিকের বাবা, ভাই-বোন কেউ নেই।

কার্তিকের নানি বৃদ্ধা কমলা জানান, প্রতিবেশী প্রভাবশালী লোকজন বাড়িতে জোরপূর্বক ঢুকে রড, লাঠি দিয়ে পিটিয়ে ড্রেসিং টেবিল, ট্রাংক, শোকেসসহ আসবাবপত্র ভাংচুর করেছে। ভাংচুরের সময় ওই ছাত্রী ঘরেই ছিলেন। এ সময় তিনি ছাড়াও রিতা, শুভ্র, আনন্দ, বাঁধন, পূর্ণিমা, সুব্রত, কনক, রিনুসহ বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।

দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানার ওসি এমএম ময়নুল ইসলাম জানান, এ বিষয়ে ওই ছাত্রী বাদী হয়ে একটি এজাহার দায়ের করেছেন।

 
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন