খুলনায় করোনায় আক্রান্ত ৫ হাজার ছাড়াল
jugantor
খুলনায় করোনায় আক্রান্ত ৫ হাজার ছাড়াল

  খুলনা ব্যুরো  

১৫ আগস্ট ২০২০, ২০:১৪:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

খুলনা
খুলনা

খুলনা মহানগরীসহ জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৫ হাজার ছাড়িয়েছে। শনিবার পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় ৪৭ জন শনাক্ত হওয়ার পর মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৩৯ জনে। এছাড়া সুস্থ হয়েছেন ৩ হাজার ৭৭৪। আর মৃত্যু হয়েছে ৭৫ জনের।

 

খুলনা সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার পর্যন্ত খুলনায় আক্রান্ত হয়েছে ৫ হাজার ৩৯ জন। এর মধ্যে পুরুষ ৩ হাজার ৪৯২ এবং মহিলা ১৫শ’জন। যার মধ্যে দাকোপ উপজেলায় ১৩৪, বটিয়াঘাটায় ৪৫, রূপসায় ২১০, তেরখাদায় ৫৩, দিঘলিয়ায় ১০৬, ফুলতলায় ২০০, ডুমুরিয়ায় ১৫৬, পাইকগাছায় ১১৬, কয়রায় ৬৪ জন করোনায় আক্রান্ত। এছাড়া খুলনা সিটি কর্পোরেশন এলাকায় আক্রান্ত হয়েছে ৩ হাজার ৯০৭ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৩ হাজার ৭৭৪ জন। আর মৃত্যু হয়েছে ৭৫ জনের।

 

এদিকে, খুলনা মেডিকেল কলেজের (খুমেক) আরটি-পিসিআর ল্যাবে গত ২৪ ঘন্টায় ৯৫ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। যার মধ্যে মহানগরীসহ খুলনা জেলাতেই ৪৭ জন। শুক্রবার খুমেকের পিসিআর ল্যাব থেকে এ তথ্য জানানো হয়।

 

কলেজের উপাধ্যক্ষ ডা. মেহেদী নেওয়াজ জানান, খুমেকের আরটি-পিসিআর মেশিনে শুক্রবার মোট ২৮২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। যার মধ্যে খুলনার নমুনা ছিল ১৬০টি। এদের মধ্যে মোট ৯৫ জনের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজেটিভ এসেছে। যার ৪৭ জন খুলনার। এছাড়াও খুমেক ল্যাবে বাগেরহাটের ৪ জন, সাতক্ষীরার ৩৬, নড়াইলের ২, যশোরের ৪, পিরোজপুর ও ঝিনাইদহের ১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

 

অপরদিকে, খুলনার করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনজন করোনা রোগী মারা গেছেন। শুক্রবার (১৪ আগস্ট) দিবাগত রাতের বিভিন্ন সময় তারা মারা যান। করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালের ফোকাল পার্সন ডা. শেখ ফরিদ উদ্দীন আহমেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

 

করোনা হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, যশোরের তাইজুল ইসলামের স্ত্রী আনোয়ারা বেগম (৬০) করোনা পজেটিভ নিয়ে ১২ আগস্ট হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। শুক্রবার দিবাগত রাত ১২টা ১০ মিনিটের দিকে তার মৃত্যু হয়। খুলনা মহানগরীর বয়রার তকদির আহাম্মেদের ছেলে হাবিবুর রহমান (৫৫) করোনা পজেটিভ নিয়ে ১৩ আগস্ট হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। শুক্রবার রাত ১২টা ৪৫ মিনিটের দিকে তার মৃত্যু হয়। এছাড়া যশোরের শার্শার মৃত আব্দুল মাজেদের ছেলে আতিয়ার রহমান (৮০) করোনা পজেটিভ নিয়ে ১৩ আগস্ট হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। শুক্রবার রাত ১টা ৪৫ মিনিটের দিকে তার মৃত্যু হয়।

 

খুলনায় করোনায় আক্রান্ত ৫ হাজার ছাড়াল

 খুলনা ব্যুরো 
১৫ আগস্ট ২০২০, ০৮:১৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
খুলনা
খুলনা

খুলনা মহানগরীসহ জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৫ হাজার ছাড়িয়েছে। শনিবার পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় ৪৭ জন শনাক্ত হওয়ার পর মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৩৯ জনে। এছাড়া সুস্থ হয়েছেন ৩ হাজার ৭৭৪। আর মৃত্যু হয়েছে ৭৫ জনের।

খুলনা সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার পর্যন্ত খুলনায় আক্রান্ত হয়েছে ৫ হাজার ৩৯ জন। এর মধ্যে পুরুষ ৩ হাজার ৪৯২ এবং মহিলা ১৫শ’জন। যার মধ্যে দাকোপ উপজেলায় ১৩৪, বটিয়াঘাটায় ৪৫, রূপসায় ২১০, তেরখাদায় ৫৩, দিঘলিয়ায় ১০৬, ফুলতলায় ২০০, ডুমুরিয়ায় ১৫৬, পাইকগাছায় ১১৬, কয়রায় ৬৪ জন করোনায় আক্রান্ত। এছাড়া খুলনা সিটি কর্পোরেশন এলাকায় আক্রান্ত হয়েছে ৩ হাজার ৯০৭ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৩ হাজার ৭৭৪ জন। আর মৃত্যু হয়েছে ৭৫ জনের।

এদিকে, খুলনা মেডিকেল কলেজের (খুমেক) আরটি-পিসিআর ল্যাবে গত ২৪ ঘন্টায় ৯৫ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। যার মধ্যে মহানগরীসহ খুলনা জেলাতেই ৪৭ জন। শুক্রবার খুমেকের পিসিআর ল্যাব থেকে এ তথ্য জানানো হয়।

কলেজের উপাধ্যক্ষ ডা. মেহেদী নেওয়াজ জানান, খুমেকের আরটি-পিসিআর মেশিনে শুক্রবার মোট ২৮২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। যার মধ্যে খুলনার নমুনা ছিল ১৬০টি। এদের মধ্যে মোট ৯৫ জনের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজেটিভ এসেছে। যার ৪৭ জন খুলনার। এছাড়াও খুমেক ল্যাবে বাগেরহাটের ৪ জন, সাতক্ষীরার ৩৬, নড়াইলের ২, যশোরের ৪, পিরোজপুর ও ঝিনাইদহের ১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

অপরদিকে, খুলনার করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনজন করোনা রোগী মারা গেছেন। শুক্রবার (১৪ আগস্ট) দিবাগত রাতের বিভিন্ন সময় তারা মারা যান। করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালের ফোকাল পার্সন ডা. শেখ ফরিদ উদ্দীন আহমেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

করোনা হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, যশোরের তাইজুল ইসলামের স্ত্রী আনোয়ারা বেগম (৬০) করোনা পজেটিভ নিয়ে ১২ আগস্ট হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। শুক্রবার দিবাগত রাত ১২টা ১০ মিনিটের দিকে তার মৃত্যু হয়। খুলনা মহানগরীর বয়রার তকদির আহাম্মেদের ছেলে হাবিবুর রহমান (৫৫) করোনা পজেটিভ নিয়ে ১৩ আগস্ট হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। শুক্রবার রাত ১২টা ৪৫ মিনিটের দিকে তার মৃত্যু হয়। এছাড়া যশোরের শার্শার মৃত আব্দুল মাজেদের ছেলে আতিয়ার রহমান (৮০) করোনা পজেটিভ নিয়ে ১৩ আগস্ট হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। শুক্রবার রাত ১টা ৪৫ মিনিটের দিকে তার মৃত্যু হয়।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন