সিনহা হত্যা: পুলিশের সেই ৩ সাক্ষীকে আরেক দফা রিমান্ডে পেল র‌্যাব
jugantor
সিনহা হত্যা: পুলিশের সেই ৩ সাক্ষীকে আরেক দফা রিমান্ডে পেল র‌্যাব

  কক্সবাজার প্রতিনিধি  

০১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৩:২০:০১  |  অনলাইন সংস্করণ

সিনহা হত্যা: পুলিশের সেই ৩ সাক্ষীকে আরেক দফা রিমান্ডে পেল র‌্যাব

অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যার ঘটনায় পুলিশের করা মামলার তিন সাক্ষীকে ফের তিন দিনের রিমান্ডে নিয়েছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম (কক্সবাজার-৪) তামান্না ফারাহের আদালত শুনানি শেষে তাদের তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

তারা হলেন- টেকনাফের মারিশবুনিয়া গ্রামের নুরুল আমিন, নিজামউদ্দিন ও মোহাম্মদ আয়াছ।

এর আগে গত শনিবার তাদের চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়েছিল।

গত ২৫ আগস্ট দুপুর ১২টায় জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম তামান্না ফারাহের আদালতে দ্বিতীয় দফায় চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়।

ওই আদালতের আদেশমতে, রিমান্ডে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে জানান, মামলার তদন্ত কর্মকর্তা র‌্যাবের সিনিয়র এএসপি খাইরুল ইসলাম।

তিনি যুগান্তরকে বলেন, সিনহা হত্যা মামলার অধিকতর তদন্তের স্বার্থে আদালতের আদেশমতে তাদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য র‌্যাব হেফাজতে নেয়া হয়েছে।

এর আগে গত ২০ আগস্ট মামলার উল্লিখিত আসামিদের প্রথম দফায় ৭ দিনের রিমান্ড শেষ হয়েছিল বলেও জানান তিনি।

প্রসঙ্গত গত ৩১ জুলাই রাত সাড়ে ১০টার দিকে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভের বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান। ঘটনার পর পুলিশ বাদী হয়ে টেকনাফ থানায় দুটি ও রামু থানায় একটি মামলা করে।

গত ৫ আগস্ট কক্সবাজার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হত্যা মামলা করেন সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খানের বড় বোন শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌস। এতে ৯ জনকে আসামি করা হয়।

সিনহা হত্যা: পুলিশের সেই ৩ সাক্ষীকে আরেক দফা রিমান্ডে পেল র‌্যাব

 কক্সবাজার প্রতিনিধি 
০১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০১:২০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সিনহা হত্যা: পুলিশের সেই ৩ সাক্ষীকে আরেক দফা রিমান্ডে পেল র‌্যাব
ছবি: যুগান্তর

অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যার ঘটনায় পুলিশের করা মামলার তিন সাক্ষীকে ফের তিন দিনের রিমান্ডে নিয়েছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম (কক্সবাজার-৪) তামান্না ফারাহের আদালত শুনানি শেষে তাদের তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

তারা হলেন- টেকনাফের মারিশবুনিয়া গ্রামের নুরুল আমিন, নিজামউদ্দিন ও মোহাম্মদ আয়াছ।

এর আগে গত শনিবার তাদের চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়েছিল।

গত ২৫ আগস্ট দুপুর ১২টায় জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম তামান্না ফারাহের আদালতে দ্বিতীয় দফায় চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়।

ওই আদালতের আদেশমতে, রিমান্ডে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে জানান, মামলার তদন্ত কর্মকর্তা র‌্যাবের সিনিয়র এএসপি খাইরুল ইসলাম।

তিনি যুগান্তরকে বলেন, সিনহা হত্যা মামলার অধিকতর তদন্তের স্বার্থে আদালতের আদেশমতে তাদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য র‌্যাব হেফাজতে নেয়া হয়েছে।

এর আগে গত ২০ আগস্ট মামলার উল্লিখিত আসামিদের প্রথম দফায় ৭ দিনের রিমান্ড শেষ হয়েছিল বলেও জানান তিনি।

প্রসঙ্গত গত ৩১ জুলাই রাত সাড়ে ১০টার দিকে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভের বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান। ঘটনার পর পুলিশ বাদী হয়ে টেকনাফ থানায় দুটি ও রামু থানায় একটি মামলা করে।

গত ৫ আগস্ট কক্সবাজার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হত্যা মামলা করেন সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খানের বড় বোন শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌস। এতে ৯ জনকে আসামি করা হয়।

 

ঘটনাপ্রবাহ : মেজর সিনহার মৃত্যু

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন