কারাফটকে ওসি প্রদীপকে ৭ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ
jugantor
কারাফটকে ওসি প্রদীপকে ৭ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ

  কক্সবাজার প্রতিনিধি  

০২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২০:০৯:৫৯  |  অনলাইন সংস্করণ

অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যা মামলায় গ্রেফতার টেকনাফ থানার বরখাস্ত ওসি প্রদীপ কুমার দাশকে টানা ৭ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গঠিত তদন্ত কমিটি।

বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে শুরু হয় জিজ্ঞাসাবাদ। চলে টানা বিকাল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত। দুপুরের খাবারের সময়টা ছাড়া জিজ্ঞাসাবাদ চালিয়ে ওসি প্রদীপের জবানবন্দি গ্রহণ করেছেন বলে যুগান্তরকে জানান কক্সবাজার কারাগারের তত্ত্বাবধায়ক মো. মোকাম্মেল হোসেন।

মো. মোকাম্মেল হোসেন বলেন, চার দফায় ১৫ দিনের রিমান্ড শেষে বরখাস্ত ওসি প্রদীপ মঙ্গলবার বিকাল ৫টার দিকে কক্সবাজার কারাগারে আসে। ওই দিনেই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তদন্ত কমিটি অবগত করেন বুধবার সকালে তার জবানবন্দি রেকর্ড করা হবে।

সেই অনুসারে বুধবার সকালে তাকে কমিটির কাছে জবানবন্দি প্রদানের জন্য প্রস্তুত রাখা হয়। একপর্যায়ে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তাকে তদন্ত কমিটির মুখোমুখি করা হয়।

টানা ৭ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করে জবানবন্দি রেকর্ডের পর বুধবার বিকাল সাড়ে ৫টায় কারাফটক থেকে বের হন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উচ্চপর্যায়ের তদন্ত কমিটির চার কর্মকর্তা।

কারাফটকের সামনে সাংবাদিকদের সংক্ষিপ্ত ব্রিফিংয়ে তদন্ত কমিটির প্রধান চট্টগ্রামের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন, অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা হত্যাকাণ্ড নিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তদন্ত কমিটি গঠনের পর থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত ৬৭ জনের জবানবন্দি গ্রহণ করা হয়েছে। শুধু প্রতিবেদন আটকে ছিল টেকনাফ থানার সাবেক ওসি বরখাস্ত প্রদীপ কুমার দাশের জন্য। আজ ৬৮ নম্বরে তার জবানবন্দিও গ্রহণ করা হয়েছে।

তদন্ত কমিটির প্রধান বলেন, ৬৭ জনের জবানবন্দির সঙ্গে ওসি প্রদীপের জবানবন্দির ক্রসচেক ও পর্যালোচনা করা হয়েছে। যে কারণে দীর্ঘ সময় লেগেছে। তদন্ত এখন শেষ পর্যায়ে। পাশাপাশি তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়ার শেষ সময় আগামী ৭ সেপ্টেম্বর। নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই প্রতিবেদন জমা দেয়া হবে।

প্রসঙ্গত, গত ৩১ জুলাই টেকনাফ শামলাপুর এপিবিএনের তল্লাশি চৌকিতে পুলিশের গুলিতে নিহত হন অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান। এ হত্যার পর এই পর্যন্ত বরখাস্ত ওসি প্রদীপ ও তার অনৈতিক কর্মকাণ্ডে সহযোগী পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে সিনহা হত্যাসহ মোট ৯টি মামলা জমা পড়েছে আদালতে।

কারাফটকে ওসি প্রদীপকে ৭ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ

 কক্সবাজার প্রতিনিধি 
০২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:০৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যা মামলায় গ্রেফতার টেকনাফ থানার বরখাস্ত ওসি প্রদীপ কুমার দাশকে টানা ৭ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গঠিত তদন্ত কমিটি। 

বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে শুরু হয় জিজ্ঞাসাবাদ। চলে টানা বিকাল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত। দুপুরের খাবারের সময়টা ছাড়া জিজ্ঞাসাবাদ চালিয়ে ওসি প্রদীপের জবানবন্দি গ্রহণ করেছেন বলে যুগান্তরকে জানান কক্সবাজার কারাগারের তত্ত্বাবধায়ক মো. মোকাম্মেল হোসেন।

মো. মোকাম্মেল হোসেন বলেন, চার দফায় ১৫ দিনের রিমান্ড শেষে বরখাস্ত ওসি প্রদীপ মঙ্গলবার বিকাল ৫টার দিকে কক্সবাজার কারাগারে আসে। ওই দিনেই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তদন্ত কমিটি অবগত করেন বুধবার সকালে তার জবানবন্দি রেকর্ড করা হবে। 

সেই অনুসারে বুধবার সকালে তাকে কমিটির কাছে জবানবন্দি প্রদানের জন্য প্রস্তুত রাখা হয়। একপর্যায়ে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তাকে তদন্ত কমিটির মুখোমুখি করা হয়। 

টানা ৭ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করে জবানবন্দি রেকর্ডের পর বুধবার বিকাল সাড়ে ৫টায় কারাফটক থেকে বের হন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উচ্চপর্যায়ের তদন্ত কমিটির চার কর্মকর্তা।

কারাফটকের সামনে সাংবাদিকদের সংক্ষিপ্ত ব্রিফিংয়ে তদন্ত কমিটির প্রধান চট্টগ্রামের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন, অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা হত্যাকাণ্ড নিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তদন্ত কমিটি গঠনের পর থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত ৬৭ জনের জবানবন্দি গ্রহণ করা হয়েছে। শুধু প্রতিবেদন আটকে ছিল টেকনাফ থানার সাবেক ওসি বরখাস্ত প্রদীপ কুমার দাশের জন্য। আজ  ৬৮ নম্বরে তার জবানবন্দিও গ্রহণ করা হয়েছে। 

তদন্ত কমিটির প্রধান বলেন, ৬৭ জনের জবানবন্দির সঙ্গে ওসি প্রদীপের জবানবন্দির ক্রসচেক ও পর্যালোচনা করা হয়েছে। যে কারণে দীর্ঘ সময় লেগেছে। তদন্ত এখন শেষ পর্যায়ে। পাশাপাশি তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়ার শেষ সময় আগামী ৭ সেপ্টেম্বর। নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই প্রতিবেদন জমা দেয়া হবে।

প্রসঙ্গত, গত ৩১ জুলাই টেকনাফ শামলাপুর এপিবিএনের তল্লাশি চৌকিতে পুলিশের গুলিতে নিহত হন অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান। এ হত্যার পর এই পর্যন্ত বরখাস্ত ওসি প্রদীপ ও তার অনৈতিক কর্মকাণ্ডে সহযোগী পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে সিনহা হত্যাসহ মোট ৯টি মামলা জমা পড়েছে আদালতে। 
 

 

ঘটনাপ্রবাহ : মেজর সিনহার মৃত্যু

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন