আড়াইহাজারে নকল গুড়ের কারখানায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান
jugantor
আড়াইহাজারে নকল গুড়ের কারখানায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান

  নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি  

১০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৫:৫৪:৫৫  |  অনলাইন সংস্করণ

আড়াইহাজারে নকল গুড়ের কারখানায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার গোপালদী পৌরসভার মুরাদপুর গ্রামে একটি নকল গুড় তৈরির কারখানায় অভিযান চালিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বুধবার রাতে এবং বৃহস্পতিবার সকালে সহকারী কমিশার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উজ্জ্বল হোসেনের নেতৃত্বে মেসার্স নূর এন্টারপ্রাইজ নামে কারখানাটিতে চলে এ অভিযান।

এ সময় প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার খোকনকে এক বছরের কারাদণ্ড ও কারখানায় মজুদ সব গুড় ধ্বংস করা হয়।

স্থানীয়রা জানান, প্রায় ৫ একর জায়গা নিয়ে কারখানাটি গড়ে তোলেন উজানপুরের বাঞ্ছারামপুর এলাকার শফিকুল ইসলাম। এলাকাবাসী ভেজাল গুড় তৈরির বিষয়টি জানলেও শফিকুল স্থানীয় রাজনৈতিক প্রভাবশালীদের ম্যানেজ করে এই অবৈধ কারখানাটি দীর্ঘ দিন ধরে পরিচালনা করে আসছিল। তবে রহস্যজনক কারণে অভিযানের আগে থেকেই তিনি পলাতক রয়েছেন।

উজ্জ্বল হোসেন জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার সন্ধ্যার পর অভিযান পরিচালনা করতে গেলে দেখা যায়, চিনি, ক্যামিকেল, আটা ও ময়দা দিয়ে এখানে গুড় প্রস্তুত করে বাজারজাত করা হয়।

যেসব গুড় মানুষকে খাওয়ানো হয় তা একেবারেই স্বাস্থ্যসম্মত নয়। এতে কারখানার ম্যানেজারকে আটক করা হয়।

পরে বৃহস্পতিবার সকালে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে কারখানার ম্যানেজার উজানচর গ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে খোকনকে (৩২) এ বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন।

অভিযানের সময় প্রায় ২ হাজার মণ ভেজাল গুড় বিনষ্ট করা হয়।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সোহাগ হোসেন জানান, মানুষের স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর ক্যামিকেল দিয়ে এ গুড় প্রস্তুত করা হচ্ছিল। সেখানে কারখানা সিলগালা করে দেয়া হয়েছে এবং কারখানাটি ধ্বংস করে দিতে বলা হয়েছে।

এদিকে ভেজাল গুড়ের কারখানায় অভিযানের ফলে এলাকার হাজার হাজার মানুষ উল্লাস প্রকাশ করছেন।

আড়াইহাজারে নকল গুড়ের কারখানায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান

 নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি 
১০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩:৫৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আড়াইহাজারে নকল গুড়ের কারখানায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান
ছবি: যুগান্তর

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার গোপালদী পৌরসভার মুরাদপুর গ্রামে একটি নকল গুড় তৈরির কারখানায় অভিযান চালিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। 

বুধবার রাতে এবং বৃহস্পতিবার সকালে সহকারী কমিশার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উজ্জ্বল হোসেনের নেতৃত্বে মেসার্স নূর এন্টারপ্রাইজ নামে কারখানাটিতে চলে এ অভিযান। 

এ সময় প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার খোকনকে এক বছরের কারাদণ্ড ও কারখানায় মজুদ সব গুড় ধ্বংস করা হয়। 

স্থানীয়রা জানান, প্রায় ৫ একর জায়গা নিয়ে কারখানাটি গড়ে তোলেন উজানপুরের বাঞ্ছারামপুর এলাকার শফিকুল ইসলাম। এলাকাবাসী ভেজাল গুড় তৈরির বিষয়টি জানলেও শফিকুল স্থানীয় রাজনৈতিক প্রভাবশালীদের ম্যানেজ করে এই অবৈধ কারখানাটি দীর্ঘ দিন ধরে পরিচালনা করে আসছিল। তবে রহস্যজনক কারণে অভিযানের আগে থেকেই তিনি পলাতক রয়েছেন।

উজ্জ্বল হোসেন জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার সন্ধ্যার পর অভিযান পরিচালনা করতে গেলে দেখা যায়, চিনি, ক্যামিকেল, আটা ও ময়দা দিয়ে এখানে গুড় প্রস্তুত করে বাজারজাত করা হয়। 

যেসব গুড় মানুষকে খাওয়ানো হয় তা একেবারেই স্বাস্থ্যসম্মত নয়। এতে কারখানার ম্যানেজারকে আটক করা হয়।

পরে বৃহস্পতিবার সকালে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে কারখানার ম্যানেজার উজানচর গ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে খোকনকে (৩২) এ বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন।  

অভিযানের সময় প্রায় ২ হাজার মণ ভেজাল গুড় বিনষ্ট করা হয়। 

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সোহাগ হোসেন জানান, মানুষের স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর ক্যামিকেল দিয়ে এ গুড় প্রস্তুত করা হচ্ছিল। সেখানে কারখানা সিলগালা করে দেয়া হয়েছে এবং কারখানাটি ধ্বংস করে দিতে বলা হয়েছে। 

এদিকে ভেজাল গুড়ের কারখানায় অভিযানের ফলে এলাকার হাজার হাজার মানুষ উল্লাস প্রকাশ করছেন। 

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন