বিয়ের আসর থেকে আ’লীগ নেতার মেয়ে নিয়ে পালানোর চেষ্টা ছাত্রলীগ নেতার 
jugantor
বিয়ের আসর থেকে আ’লীগ নেতার মেয়ে নিয়ে পালানোর চেষ্টা ছাত্রলীগ নেতার 

  পিরোজপুর প্রতিনিধি  

১২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৯:৩৩:০৩  |  অনলাইন সংস্করণ

পিরোজপুর শহরে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতির বাড়ীতে বিয়ের আসর থেকে কনেকে অপহরণের চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে।

শনিবার এ অভিযোগে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকসহ তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে সদর থানায় লিখিত একটি অভিযোগ দিয়েছেন কনের বাবা পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি দেলোয়ার হোসেন।

শুক্রবার বিকালে পিরোজপুর শহরের শিক্ষা অফিস সড়কে এ ঘটনা ঘটে এবং এর পরপরই বিয়ে ভণ্ডুল হয়ে যায়। এ খবরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

আওয়ামী লীগের পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড সভাপতি ও কনের বাবা দেলোয়ার হোসেন জানান, শুক্রবার আছর নামাজের পর দেলোয়ারের নিজ বাসভবনে বিয়ের আক্দ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বিকালে জেলার ইন্দুরকানী উপজেলার বাসিন্দা বরপক্ষ স্কুল শিক্ষক দেলোয়ারের বাড়িতে আত্মীয়-স্বজন নিয়ে বরসহ আসেন।

আক্দ অনুষ্ঠান শুরুর আগেই জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক অনিরুজ্জামান অনিক কিছু সন্ত্রাসী নিয়ে তাদের বাড়িতে ঢুকে অনুষ্ঠান থেকে তার মেয়েকে জোরপূর্বক অপহরণ করে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে।

এ সময় উপস্থিত আত্মীয়-স্বজন ও প্রতিবেশীদের বাধা দিলে মেয়েকে অপহরণ করতে না পেরে বরপক্ষকে নানা হুমকি দেয়। এ ঘটনার পর গ্রাম থেকে আসা বরপক্ষের লোকজন ভয়ে বিয়ে বন্ধ করে তাদের বাড়িতে চলে যান।

এ সময় অনিরুজ্জামান অনিক তার সঙ্গে থাকা বন্ধুরা কনের পিতাকে হুমকি দিয়ে বলে, তার মেয়েকে জনৈক আবুল কালামের ছেলে আব্দুল আলীম ছাড়া অন্য কারও সঙ্গে বিয়ে দেয়া যাবে না।

যদি বিয়ে দেয়া হয় বাসর ঘরে মেয়ের স্বামীকে হত্যা করে লাশ গুম করা হবে এবং আমার মেয়েকে অপহরণ করে নিয়ে যাওয়া হবে। দেলোয়ার হোসেন এই ঘটনাটি পিরোজপুর পৌর মেয়রসহ আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দকে জানান।

পরে খবর পেয়ে সদর থানার একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মেয়ে পক্ষকে অভয় দেয়ার চেষ্টা করেন। তারপরও দেলোয়ারের পরিবারকে ভয়-ভীতি দেখানো হচ্ছে।

আওয়ামী লীগের ওয়ার্ড সভাপতি দেলোয়ার হোসেনে আরও জানানা, এ ঘটনায় ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক অনিক, আব্দুল আলীম ও শাওনসহ অজ্ঞাত ২০/২৫ জনকে আসামী করে আরেকটি লিখিত অভিযোগ তিনি সদর থানায় দিয়ে এসেছেন।

অভিযোগের বিষয়ে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক অনিরুজ্জামান অনিক মেয়ে অপহরণের চেষ্টার অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, তিনি তার এক বন্ধুর জন্য পারিবারিকভাবে বিয়ের বিষয়ে কথা বলতে গিয়েছিলেন। কিন্তু তার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ বিষয়টি নিয়ে তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে।

পিরোজপুর সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুস সোবাহান জানান, এ ঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ আওয়ামী লীগের পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড সভাপতি ও কনের পিতা দেলোয়ার হোসেন থানায় দিয়ে গেছেন। তবে এ বিষয়ে সদর থানার অফিসার ইনচার্জ থানায় আসলে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানানো হয়।

বিয়ের আসর থেকে আ’লীগ নেতার মেয়ে নিয়ে পালানোর চেষ্টা ছাত্রলীগ নেতার 

 পিরোজপুর প্রতিনিধি 
১২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৭:৩৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

পিরোজপুর শহরে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতির বাড়ীতে বিয়ের আসর থেকে কনেকে অপহরণের চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে। 

শনিবার এ অভিযোগে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকসহ তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে সদর থানায় লিখিত একটি অভিযোগ দিয়েছেন কনের বাবা পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি দেলোয়ার হোসেন। 

শুক্রবার বিকালে পিরোজপুর শহরের শিক্ষা অফিস সড়কে এ ঘটনা ঘটে এবং এর পরপরই বিয়ে ভণ্ডুল হয়ে যায়। এ খবরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।   

আওয়ামী লীগের পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড সভাপতি ও কনের বাবা দেলোয়ার হোসেন জানান, শুক্রবার আছর নামাজের পর দেলোয়ারের নিজ বাসভবনে বিয়ের আক্দ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বিকালে জেলার ইন্দুরকানী উপজেলার বাসিন্দা বরপক্ষ স্কুল শিক্ষক দেলোয়ারের বাড়িতে আত্মীয়-স্বজন নিয়ে বরসহ আসেন। 

আক্দ অনুষ্ঠান শুরুর আগেই জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক অনিরুজ্জামান অনিক কিছু সন্ত্রাসী নিয়ে তাদের বাড়িতে ঢুকে অনুষ্ঠান থেকে তার মেয়েকে জোরপূর্বক অপহরণ করে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। 

এ সময় উপস্থিত আত্মীয়-স্বজন ও প্রতিবেশীদের বাধা দিলে মেয়েকে অপহরণ করতে না পেরে বরপক্ষকে নানা হুমকি দেয়। এ ঘটনার পর গ্রাম থেকে আসা বরপক্ষের লোকজন ভয়ে বিয়ে বন্ধ করে তাদের বাড়িতে চলে যান। 

এ সময় অনিরুজ্জামান অনিক তার সঙ্গে থাকা বন্ধুরা কনের পিতাকে হুমকি দিয়ে বলে, তার মেয়েকে জনৈক আবুল কালামের ছেলে আব্দুল আলীম ছাড়া অন্য কারও সঙ্গে বিয়ে দেয়া যাবে না। 

যদি বিয়ে দেয়া হয় বাসর ঘরে মেয়ের স্বামীকে হত্যা করে লাশ গুম করা হবে এবং আমার মেয়েকে অপহরণ করে নিয়ে যাওয়া হবে। দেলোয়ার হোসেন এই ঘটনাটি পিরোজপুর পৌর মেয়রসহ আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দকে জানান। 

পরে খবর পেয়ে সদর থানার একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মেয়ে পক্ষকে অভয় দেয়ার চেষ্টা করেন। তারপরও দেলোয়ারের পরিবারকে ভয়-ভীতি দেখানো হচ্ছে।

আওয়ামী লীগের ওয়ার্ড সভাপতি দেলোয়ার হোসেনে আরও জানানা, এ ঘটনায় ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক অনিক, আব্দুল আলীম ও শাওনসহ অজ্ঞাত ২০/২৫ জনকে আসামী করে আরেকটি লিখিত অভিযোগ তিনি সদর থানায় দিয়ে এসেছেন।

অভিযোগের বিষয়ে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক অনিরুজ্জামান অনিক মেয়ে অপহরণের চেষ্টার অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, তিনি তার এক বন্ধুর জন্য পারিবারিকভাবে বিয়ের বিষয়ে কথা বলতে গিয়েছিলেন। কিন্তু তার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ বিষয়টি নিয়ে তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। 

পিরোজপুর সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুস সোবাহান জানান, এ ঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ আওয়ামী লীগের পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড সভাপতি ও কনের পিতা দেলোয়ার হোসেন থানায় দিয়ে গেছেন। তবে এ বিষয়ে সদর থানার অফিসার ইনচার্জ থানায় আসলে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানানো হয়। 

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন