টিভিতে বিজ্ঞাপন দিয়ে প্রতারণার মূলহোতা হাকিম গ্রেফতার
jugantor
টিভিতে বিজ্ঞাপন দিয়ে প্রতারণার মূলহোতা হাকিম গ্রেফতার

  টেকেরহাট (মাদারীপুর) প্রতিনিধি  

১৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৫:০২:৫৩  |  অনলাইন সংস্করণ

টিভিতে বিজ্ঞাপন দিয়ে প্রতারণার মূলহোতা হাকিম গ্রেফতার

টেলিভিশনে বিজ্ঞাপন দিয়ে সাধারণ মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তার নাম হাকিম চৌধুরী।

রোববার ভোরে চট্টগ্রামের রাউজান থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

মাদারীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ বদরুল আলম মোল্লা যুগান্তরকে জানান, টাকার বিনিময়ে মহাতান্ত্রিক গুরু সব রোগ সারাতে পারে, ভারতীয় জিবাংলা ও দেশের বেশ কয়েকটি টিভি চ্যানেলে দীর্ঘদিন ধরে এমন বিজ্ঞাপন দিয়ে আসছে একটি প্রতারক চক্র।

নানা ধরনের রোগমুক্তির কথা বলে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে প্রতারণা করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন তারা।

গত ৯ আগস্ট এই প্রতারকচক্রের কাছে মাদারীপুরের এক গৃহিণী ৫৮ লাখ টাকা খুইয়ে বিচারের আশায় সদর মডেল থানায় একটি মামলা করেন।

পরে অভিযান চালিয়ে গত ২৬ আগস্ট প্রথম ধাপে চার লাখ টাকা উদ্ধারসহ এ চক্রের সদস্য জসিম উদ্দিন ও আবদুর রহমান আমানকে চট্টগ্রামের রাউজান থেকে গ্রেফতার করা হয়।

তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে চার দিন অভিযান চালিয়ে মূলহোতা হাকিম চৌধুরীকে রোববার ভোরে একই স্থান থেকে গ্রেফতার করে মাদারীপুর জেলা পুলিশ।

হাকিমকে নিয়ে দ্বিতীয় ধাপের অভিযান শেষে স্থানীয় থানায় আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে তাকে মাদারীপুর নিয়ে আসা হবে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আরও জানান, চেহারা পরিবর্তন করে টিভিতে বিজ্ঞাপন দেয়া হাকিমকে সহজেই কেউ চিনতে পারত না। এই চক্রের ১৮-২০ জন সদস্য রয়েছে। যারা সবাই চট্টগ্রাম থেকে সারা দেশে প্রতারণা কাজে লিপ্ত।

বিনাপুঁজিতে এদের প্রত্যেকের মাসে প্রায় আয় ৬ থেকে ১২ লাখ টাকা। বাকি সদস্যদের ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

টিভিতে বিজ্ঞাপন দিয়ে প্রতারণার মূলহোতা হাকিম গ্রেফতার

 টেকেরহাট (মাদারীপুর) প্রতিনিধি 
১৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩:০২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
টিভিতে বিজ্ঞাপন দিয়ে প্রতারণার মূলহোতা হাকিম গ্রেফতার
ফাইল ছবি

টেলিভিশনে বিজ্ঞাপন দিয়ে সাধারণ মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তার নাম হাকিম চৌধুরী।

রোববার ভোরে চট্টগ্রামের রাউজান থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

মাদারীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ বদরুল আলম মোল্লা যুগান্তরকে জানান, টাকার বিনিময়ে মহাতান্ত্রিক গুরু সব রোগ সারাতে পারে, ভারতীয় জিবাংলা ও দেশের বেশ কয়েকটি টিভি চ্যানেলে দীর্ঘদিন ধরে এমন বিজ্ঞাপন দিয়ে আসছে একটি প্রতারক চক্র।

নানা ধরনের রোগমুক্তির কথা বলে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে প্রতারণা করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন তারা।

গত ৯ আগস্ট এই প্রতারকচক্রের কাছে মাদারীপুরের এক গৃহিণী ৫৮ লাখ টাকা খুইয়ে বিচারের আশায় সদর মডেল থানায় একটি মামলা করেন।

পরে অভিযান চালিয়ে গত ২৬ আগস্ট প্রথম ধাপে চার লাখ টাকা উদ্ধারসহ এ চক্রের সদস্য জসিম উদ্দিন ও আবদুর রহমান আমানকে চট্টগ্রামের রাউজান থেকে গ্রেফতার করা হয়।

তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে চার দিন অভিযান চালিয়ে মূলহোতা হাকিম চৌধুরীকে রোববার ভোরে একই স্থান থেকে গ্রেফতার করে মাদারীপুর জেলা পুলিশ।

হাকিমকে নিয়ে দ্বিতীয় ধাপের অভিযান শেষে স্থানীয় থানায় আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে তাকে মাদারীপুর নিয়ে আসা হবে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আরও জানান, চেহারা পরিবর্তন করে টিভিতে বিজ্ঞাপন দেয়া হাকিমকে সহজেই কেউ চিনতে পারত না। এই চক্রের ১৮-২০ জন সদস্য রয়েছে। যারা সবাই চট্টগ্রাম থেকে সারা দেশে প্রতারণা কাজে লিপ্ত।

বিনাপুঁজিতে এদের প্রত্যেকের মাসে প্রায় আয় ৬ থেকে ১২ লাখ টাকা। বাকি সদস্যদের ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন