ধানক্ষেতে যেতে ৩৩ লাখ টাকার ব্রিজ নির্মাণ করেন নিজামীর এপিএস
jugantor
ধানক্ষেতে যেতে ৩৩ লাখ টাকার ব্রিজ নির্মাণ করেন নিজামীর এপিএস

  বাকেরগঞ্জ (বরিশাল) প্রতিনিধি  

১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২১:৪১:২৯  |  অনলাইন সংস্করণ

বরিশালের বাকেরগঞ্জে ধানক্ষেতে যেতে খালের ওপর প্রায় ৩৩ লাখ টাকা ব্যয়ে একটি ব্রিজ নির্মাণ করা হয়েছে। অথচ এই খালে ব্রিজের কোনো প্রয়োজন ছিল না। কারণ ব্রিজের ওপারে শুধু ধানক্ষেত।

অভিযোগ উঠেছে, পটুয়াখালী কৃষি কলেজের ইসলামী ছাত্রশিবিরের সাবেক সভাপতি ও যুদ্ধাপরাধের দায়ে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত সাবেক মন্ত্রী মতিউর রহমান নিজামীর এপিএস মো. রফিকুল ইসলাম ২০০৬-০৭ অর্থবছরে ক্ষমতার অপব্যবহার করে তাদের কৃষিজমিতে যেতে ব্রিজটি নির্মাণ করেন।

পিআইও অফিস ও স্থানীয়রা জানান, বরিশাল জেলার বাকেরগঞ্জ উপজেলার কলসকাঠি ইউনিয়নের গুড়িয়া গ্রামে রফিকুল ইসলামের বাড়ির পার্শ্ববর্তী খালের ওপরে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদফতরের অর্থায়নে ২০০৬-০৭ অর্থবছরে এ ব্রিজটি নির্মাণ করা হয়। ব্রিজের একপাশে কোনো রাস্তাঘাট বা জনবসতি নেই। যতদূর চোখ যায় শুধু বিস্তীর্ণ ধানক্ষেত। শুধু তাদের ধান ও গরু-বাছুর আনা-নেয়ার জন্যই ব্রিজটি নির্মাণ করা হয়েছে। ব্রিজটি এলাকার মানুষের কোনো কাজে আসেনি।

গুড়িয়া গ্রামের একাধিক বাসিন্দা বলেন, এই খালে ব্রিজের কোনো প্রয়োজন ছিল না। ব্রিজের ওপারে শুধু ধানক্ষেত। তাছাড়া খালেও বছরের অধিকাংশ সময় কোনো পানি থাকে না। এটি সরকারি অর্থের অপচয়।

ব্রিজটি নির্মাণের সময় দায়িত্বে না থাকায় এ বিষয়ে কিছু বলতে রাজি হননি বাকেরগঞ্জ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) মো. আসাদুজ্জামান। তবে তিনি জানান, গ্রামীণ সড়ক এবং কাবিখা প্রকল্পের রাস্তার সংযোগ স্থানে ব্রিজগুলো নির্মাণ করার কথা। এক্ষেত্রে অনিয়ম হলে বিষয়টি খতিয়ে দেখা উচিত।

ধানক্ষেতে যেতে ৩৩ লাখ টাকার ব্রিজ নির্মাণ করেন নিজামীর এপিএস

 বাকেরগঞ্জ (বরিশাল) প্রতিনিধি 
১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯:৪১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বরিশালের বাকেরগঞ্জে ধানক্ষেতে যেতে খালের ওপর প্রায় ৩৩ লাখ টাকা ব্যয়ে একটি ব্রিজ নির্মাণ করা হয়েছে। অথচ এই খালে ব্রিজের কোনো প্রয়োজন ছিল না। কারণ ব্রিজের ওপারে শুধু ধানক্ষেত।

অভিযোগ উঠেছে, পটুয়াখালী কৃষি কলেজের ইসলামী ছাত্রশিবিরের সাবেক সভাপতি ও যুদ্ধাপরাধের দায়ে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত সাবেক মন্ত্রী মতিউর রহমান নিজামীর এপিএস মো. রফিকুল ইসলাম ২০০৬-০৭ অর্থবছরে ক্ষমতার অপব্যবহার করে তাদের কৃষিজমিতে যেতে ব্রিজটি নির্মাণ করেন।

পিআইও অফিস ও স্থানীয়রা জানান, বরিশাল জেলার বাকেরগঞ্জ উপজেলার কলসকাঠি ইউনিয়নের গুড়িয়া গ্রামে রফিকুল ইসলামের বাড়ির পার্শ্ববর্তী খালের ওপরে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদফতরের অর্থায়নে ২০০৬-০৭ অর্থবছরে এ ব্রিজটি নির্মাণ করা হয়। ব্রিজের একপাশে কোনো রাস্তাঘাট বা জনবসতি নেই। যতদূর চোখ যায় শুধু বিস্তীর্ণ ধানক্ষেত। শুধু তাদের ধান ও গরু-বাছুর আনা-নেয়ার জন্যই ব্রিজটি নির্মাণ করা হয়েছে। ব্রিজটি এলাকার মানুষের কোনো কাজে আসেনি।

গুড়িয়া গ্রামের একাধিক বাসিন্দা বলেন, এই খালে ব্রিজের কোনো প্রয়োজন ছিল না। ব্রিজের ওপারে শুধু ধানক্ষেত। তাছাড়া খালেও বছরের অধিকাংশ সময় কোনো পানি থাকে না। এটি সরকারি অর্থের অপচয়।

ব্রিজটি নির্মাণের সময় দায়িত্বে না থাকায় এ বিষয়ে কিছু বলতে রাজি হননি বাকেরগঞ্জ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) মো. আসাদুজ্জামান। তবে তিনি জানান, গ্রামীণ সড়ক এবং কাবিখা প্রকল্পের রাস্তার সংযোগ স্থানে ব্রিজগুলো নির্মাণ করার কথা। এক্ষেত্রে অনিয়ম হলে বিষয়টি খতিয়ে দেখা উচিত।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন