ধামরাইয়ে আ’লীগ নেতাসহ ৪ জনকে কুপিয়ে জখম
jugantor
ধামরাইয়ে আ’লীগ নেতাসহ ৪ জনকে কুপিয়ে জখম

  ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি  

১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:১২:৩১  |  অনলাইন সংস্করণ

ধামরাইয়ে আ’লীগ নেতাসহ ৪ জনকে কুপিয়ে জখম

ঢাকার ধামরাই উপজেলায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে রোয়াইলর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি ও ইউপি মেম্বার মো. সারোয়ার মোল্লাসহ চারজনকে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে। এ সময় আহত হয়েছেন একজন।

মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে ধামরাই উপজেলার রোয়াইল ইউনিয়নের ফরিঙ্গা গ্রামের বিমল চন্দ্রের বাড়ির সামনে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে ধামরাই উপজেলার রোয়াইল ইউনিয়নের ফরিঙ্গা গ্রামের বিমল চন্দ্রের বাড়ির সামনে এ হামলার ঘটনাটি ঘটে।

আহতরা হলেন- ইউপি সদস্য ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. সারোয়ার মোল্লা (৪৫), মো. আজিজুল মোল্লা, সিরাজুল মোল্লা ও নীলচান মোল্লা।

আহতদের মধ্যে নীলচান মোল্লাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানা গেছে।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, ফুড ফর দা হাংরি একটি দাতা সংস্থার ত্রাণ বিতরণ শেষে রাত ৮টার দিকে বাড়ি ফিরছিলেন ইউপি সদস্য ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. সারোয়ার মোল্লাসহ তার সঙ্গীরা।

উপজেলার ফরিঙ্গা গ্রামে পৌঁছালে পূর্ব শক্রতার জের ধরে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা ৮-১০ সংঘবদ্ধ সন্ত্রাসী তাদের ওপর অতর্কিত হামলা করে ও অস্ত্র দিয়ে উপর্যুপরি কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা চালায়।

আহতদের চিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে এলে হামলাকারীরা দৌড়ে পালিয়ে যায়। ওই সময় স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে ধামরাই সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে নীলচান মোল্লার অবস্থা খারাপ হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান কর্তব্যরত চিকিৎসক।

এ ব্যাপারে রোয়াইল ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউপি মেম্বার মো. সারোয়ার মোল্লার পরিবারের লোকজন জানায়, হামলাকারীরা বিভিন্ন সময় বিভিন্ন জায়গায় সারোয়ার মোল্লাকে হত্যার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়।

এসব ঘটনায় জানমালের নিরাপত্তা চেয়ে ওই মেম্বার বাদী হয়ে একাধিক সাধারণ ডায়েরি করেছেন। এরই জের ধরে মঙ্গলবার রাতে ওই হামলাকারীরা ইউপি মেম্বারকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা করে এবং ধারালো অস্ত্র দিয়ে উপর্যুপরি কুপিয়ে মারাত্মকভাবে জখম করে। তার সঙ্গীরা রক্ষার চেষ্টা করলে তাদের ওপরও হামলা চালানো হয়।

এ ব্যাপারে ধামরাই থানার এসআই মো. জসিম আহমেদ বলেন, মারামারীর ঘটনায় একটি অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। তদন্তসাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ধামরাইয়ে আ’লীগ নেতাসহ ৪ জনকে কুপিয়ে জখম

 ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি 
১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:১২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ধামরাইয়ে আ’লীগ নেতাসহ ৪ জনকে কুপিয়ে জখম
ফাইল ছবি

ঢাকার ধামরাই উপজেলায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে রোয়াইলর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি ও ইউপি মেম্বার মো. সারোয়ার মোল্লাসহ চারজনকে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে। এ সময় আহত হয়েছেন একজন।

মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে ধামরাই উপজেলার রোয়াইল ইউনিয়নের ফরিঙ্গা গ্রামের বিমল চন্দ্রের বাড়ির সামনে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে ধামরাই উপজেলার রোয়াইল ইউনিয়নের ফরিঙ্গা গ্রামের বিমল চন্দ্রের বাড়ির সামনে এ হামলার ঘটনাটি ঘটে।

আহতরা হলেন- ইউপি সদস্য ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. সারোয়ার মোল্লা (৪৫), মো. আজিজুল মোল্লা, সিরাজুল মোল্লা ও নীলচান মোল্লা।

আহতদের মধ্যে নীলচান মোল্লাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানা গেছে।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, ফুড ফর দা হাংরি একটি দাতা সংস্থার ত্রাণ বিতরণ শেষে রাত ৮টার দিকে বাড়ি ফিরছিলেন ইউপি সদস্য ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. সারোয়ার মোল্লাসহ তার সঙ্গীরা।  

উপজেলার ফরিঙ্গা গ্রামে পৌঁছালে পূর্ব শক্রতার জের ধরে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা ৮-১০ সংঘবদ্ধ সন্ত্রাসী তাদের ওপর অতর্কিত হামলা করে ও অস্ত্র দিয়ে উপর্যুপরি কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা চালায়।

আহতদের চিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে এলে হামলাকারীরা দৌড়ে পালিয়ে যায়। ওই সময় স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে ধামরাই সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে নীলচান মোল্লার অবস্থা খারাপ হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান কর্তব্যরত চিকিৎসক।

এ ব্যাপারে রোয়াইল ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউপি মেম্বার মো. সারোয়ার মোল্লার পরিবারের লোকজন জানায়, হামলাকারীরা বিভিন্ন সময় বিভিন্ন জায়গায় সারোয়ার মোল্লাকে হত্যার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়।

এসব ঘটনায় জানমালের নিরাপত্তা চেয়ে ওই মেম্বার বাদী হয়ে একাধিক সাধারণ ডায়েরি করেছেন। এরই জের ধরে মঙ্গলবার রাতে ওই হামলাকারীরা ইউপি মেম্বারকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা করে এবং ধারালো অস্ত্র দিয়ে উপর্যুপরি কুপিয়ে মারাত্মকভাবে জখম করে। তার সঙ্গীরা রক্ষার চেষ্টা করলে তাদের ওপরও হামলা চালানো হয়।

এ ব্যাপারে ধামরাই থানার এসআই মো. জসিম আহমেদ বলেন, মারামারীর ঘটনায় একটি অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। তদন্তসাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন