হোসেনপুরে ভাতিজাকে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ গেল চাচার
jugantor
হোসেনপুরে ভাতিজাকে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ গেল চাচার

  হোসেনপুর (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি  

১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:১৯:০৮  |  অনলাইন সংস্করণ

হোসেনপুরে ভাতিজাকে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ গেল চাচার

কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর উপজেলায় ভাতিজাকে আটকে রাখার খবর শুনে তাকে বাঁচাতে গিয়ে প্রতিপক্ষের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তাইজুল ইসলাম (৩৫) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় আহত হয়েছেন তিনজন।

মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার জিনারী ইউনিয়নের হাজিপুর বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত তাইজুল ইসলাম উপজেলার সিদলা ইউনিয়নের গড়মাছুয়া গ্রামের মাহতাব উদ্দিনের ছেলে। আহতরা হলেন- নিহত তাইজুলের ভাতিজা শামীম (২৫), দুই ভাই জালাল (৪৫) ও আমিনুল।

স্থানীয়রা জানান, রাজমিস্ত্রি পারভেজ ও তার সহযোগী শামীমের মধ্যে মজুরির টাকা নিয়ে বিরোধের জের ধরেই এ হতাহতের ঘটনা ঘটে। পারভেজ পাশের গ্রাম মেছেড়া আক্কাপাড়া গ্রামের মফিজ উদ্দিনের ছেলে।

জানা যায়, রাজমিস্ত্রি পারভেজের সহযোগী হিসেবে কাজ করতেন শামীম। মজুরির পাওনা টাকা চাইতে গেলে মঙ্গলবার সকালে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়।

পরে বিকালে হাজিপুর বাজারে শামীমকে একা পেয়ে পারভেজ ও তার লোকজন তাকে আটকে রাখে। খবর পেয়ে তাকে বাঁচাতে গিয়ে পারভেজ ও তার লোকজনের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে শামীমসহ তার বাবা ও তিন চাচা গুরুতর আহত হন।

পরে হাসপাতলে নেয়ার পর রাতে তাইজুল মার যান। বাকিদের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে নিহতের স্বজনরা জানান।

হোসেনপুর থানার ওসি শেখ মোস্তাফিজুর রহমান জানান, এ বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

হোসেনপুরে ভাতিজাকে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ গেল চাচার

 হোসেনপুর (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি 
১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:১৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
হোসেনপুরে ভাতিজাকে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ গেল চাচার
ফাইল ছবি

কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর উপজেলায় ভাতিজাকে আটকে রাখার খবর শুনে তাকে বাঁচাতে গিয়ে প্রতিপক্ষের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তাইজুল ইসলাম (৩৫) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় আহত হয়েছেন তিনজন।

মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার জিনারী ইউনিয়নের হাজিপুর বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত তাইজুল ইসলাম উপজেলার সিদলা ইউনিয়নের গড়মাছুয়া গ্রামের মাহতাব উদ্দিনের ছেলে। আহতরা হলেন- নিহত তাইজুলের ভাতিজা শামীম (২৫), দুই ভাই জালাল (৪৫) ও আমিনুল।

স্থানীয়রা জানান, রাজমিস্ত্রি পারভেজ ও তার সহযোগী শামীমের মধ্যে মজুরির টাকা নিয়ে বিরোধের জের ধরেই এ হতাহতের ঘটনা ঘটে। পারভেজ পাশের গ্রাম মেছেড়া আক্কাপাড়া গ্রামের মফিজ উদ্দিনের ছেলে।

জানা যায়, রাজমিস্ত্রি পারভেজের সহযোগী হিসেবে কাজ করতেন শামীম। মজুরির পাওনা টাকা চাইতে গেলে মঙ্গলবার সকালে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়।

পরে বিকালে হাজিপুর বাজারে শামীমকে একা পেয়ে পারভেজ ও তার লোকজন তাকে আটকে রাখে। খবর পেয়ে তাকে বাঁচাতে গিয়ে পারভেজ ও তার লোকজনের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে শামীমসহ তার বাবা ও তিন চাচা গুরুতর আহত হন।

পরে হাসপাতলে নেয়ার পর রাতে তাইজুল মার যান। বাকিদের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে নিহতের স্বজনরা জানান।

হোসেনপুর থানার ওসি শেখ মোস্তাফিজুর রহমান জানান, এ বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন