পেঁয়াজের চড়া দামে খুশি কৃষকরা
jugantor
পেঁয়াজের চড়া দামে খুশি কৃষকরা

  হেলাল মাহমুদ, রাজবাড়ী  

১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৭:৩২:০৪  |  অনলাইন সংস্করণ

সারা দেশের মধ্যে পেঁয়াজ চাষে রাজবাড়ী জেলা তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে। ভারতে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ থাকায় পেঁয়াজের দাম বেড়ে গেছে। পেঁয়াজের চড়া দাম হওয়ায় বেজায় খুশি রাজবাড়ীর কৃষকরা।

রাজবাড়ী জেলার সবচেয়ে বড় পেঁয়াজের বাজার বালিয়াকান্দির বহরপুর বাজার। ওই বাজারে প্রতি কেজি পেঁয়াজের দাম ৪০ থেকে ৫০ টাকা ছিল। এখন সেই পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি পেয়ে বিক্রি হচ্ছে ৮০ থেকে ৯০ টাকা দরে।

কৃষকদের দাবি, ভারত থেকে আর কখনই পেঁয়াজ আমদানি যেন না করে সরকার।

বহরপুরের কৃষক তোফাজ্জল হোসেন বলেন, এ বছর যে পেঁয়াজ পেয়েছিলাম, তার বেশির ভাগই বিক্রি করে দিয়েছি। এখন বাড়ির মাচায় অল্প পরিমাণ পেঁয়াজ আছে। আমরা চাই পেঁয়াজের দাম সব সময় এমনই থাকে।

একাধিক আড়তদার জানান, গত দুই দিন আগেও আমরা ২০০০ টাকা থেকে ২২০০ টাকা মণ দরে কিনেছি। কিন্তু আজকে থেকে হঠাৎ করে পেঁয়াজের দাম বেড়ে দ্বিগুণ হয়ে গেছে। বর্তমানে ৩২০০ থেকে ৩৬০০ টাকা দরে পেঁয়াজের মণ কিনেছি।

পেঁয়াজের চড়া দামে খুশি কৃষকরা

 হেলাল মাহমুদ, রাজবাড়ী 
১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৫:৩২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সারা দেশের মধ্যে পেঁয়াজ চাষে রাজবাড়ী জেলা তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে। ভারতে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ থাকায় পেঁয়াজের দাম বেড়ে গেছে। পেঁয়াজের চড়া দাম হওয়ায় বেজায় খুশি রাজবাড়ীর কৃষকরা।

রাজবাড়ী জেলার সবচেয়ে বড় পেঁয়াজের বাজার বালিয়াকান্দির  বহরপুর বাজার। ওই বাজারে প্রতি কেজি পেঁয়াজের দাম ৪০ থেকে ৫০ টাকা ছিল। এখন সেই পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি পেয়ে বিক্রি হচ্ছে ৮০ থেকে ৯০ টাকা দরে।

কৃষকদের দাবি, ভারত থেকে আর কখনই পেঁয়াজ আমদানি যেন না করে সরকার।

বহরপুরের কৃষক তোফাজ্জল হোসেন বলেন, এ বছর যে পেঁয়াজ পেয়েছিলাম, তার বেশির ভাগই বিক্রি করে দিয়েছি। এখন বাড়ির মাচায় অল্প পরিমাণ পেঁয়াজ আছে। আমরা চাই পেঁয়াজের দাম সব সময় এমনই থাকে।

একাধিক আড়তদার জানান, গত দুই দিন আগেও  আমরা ২০০০ টাকা থেকে ২২০০ টাকা মণ দরে কিনেছি। কিন্তু আজকে থেকে হঠাৎ করে পেঁয়াজের দাম বেড়ে দ্বিগুণ হয়ে গেছে। বর্তমানে ৩২০০ থেকে ৩৬০০ টাকা দরে পেঁয়াজের মণ কিনেছি।

 

ঘটনাপ্রবাহ : পেঁয়াজের বাজার আবারও অস্থির

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন