ইন্টারনেটে অশ্লীল ছবি দেয়ায় কিশোরীর আত্মহত্যা
jugantor
ইন্টারনেটে অশ্লীল ছবি দেয়ায় কিশোরীর আত্মহত্যা

  ফরিদগঞ্জ (চাঁদপুর) প্রতিনিধি  

১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৯:৫৪:০৮  |  অনলাইন সংস্করণ

অশ্লীল ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ায় আঁখি আক্তার (১৭) নামে এক কিশোরী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

বুধবার দুপুরে চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার পাইকপাড়া উত্তর ইউনিয়নের নোয়াপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আঁখির ফুফাতো ভাই শাহাদাত জানান, নোয়াপাড়া গ্রামের আ. মুন্নাফের মেয়ে আঁখি আক্তারের সঙ্গে একই উপজেলার বদিউজ্জামানপুর গ্রামের সৌদি প্রবাসী লাবুর সঙ্গে মোবাইলে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে।

কয়েক বছর ধরে চলে এ সর্ম্পক। সম্প্রতি প্রেমিক লাবু প্রেমিকা আঁখির সঙ্গে সম্পর্ক রাখবে না বলে জানিয়ে দেয়। একই সঙ্গে আঁখির অশ্লীল ছবি তার পরিবারসহ আশপাশের লোকজনের কাছে এবং ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয় সে। এতে লোকলজ্জার ভয়ে বুধবার দুপুরে নিজের ঘরের আড়ায় গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে সে।

এ ব্যাপারে ফরিদগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) মোহাম্মদ শহিদ হোসেন জানান, সংবাদ পেয়ে সন্ধ্যায় লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য চাঁদপুর পাঠানো হবে। পরবর্তীতে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ইন্টারনেটে অশ্লীল ছবি দেয়ায় কিশোরীর আত্মহত্যা

 ফরিদগঞ্জ (চাঁদপুর) প্রতিনিধি 
১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৭:৫৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

অশ্লীল ছবি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ায় আঁখি আক্তার (১৭) নামে এক কিশোরী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। 

বুধবার দুপুরে চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার পাইকপাড়া উত্তর ইউনিয়নের নোয়াপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আঁখির ফুফাতো ভাই শাহাদাত জানান, নোয়াপাড়া গ্রামের আ. মুন্নাফের মেয়ে আঁখি আক্তারের সঙ্গে একই উপজেলার বদিউজ্জামানপুর গ্রামের সৌদি প্রবাসী লাবুর সঙ্গে মোবাইলে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে।

কয়েক বছর ধরে চলে এ সর্ম্পক। সম্প্রতি প্রেমিক লাবু  প্রেমিকা আঁখির সঙ্গে সম্পর্ক রাখবে না বলে জানিয়ে দেয়। একই সঙ্গে আঁখির অশ্লীল ছবি তার পরিবারসহ আশপাশের লোকজনের কাছে এবং ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয় সে। এতে লোকলজ্জার ভয়ে বুধবার দুপুরে নিজের ঘরের আড়ায় গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে সে। 

এ ব্যাপারে ফরিদগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) মোহাম্মদ শহিদ হোসেন জানান, সংবাদ পেয়ে সন্ধ্যায় লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য চাঁদপুর পাঠানো হবে। পরবর্তীতে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন