গুরুদাসপুরে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ৮
jugantor
গুরুদাসপুরে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ৮

  গুরুদাসপুর (নাটোর) প্রতিনিধি  

১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৯:০৬:৫৪  |  অনলাইন সংস্করণ

নাটোর

নাটোরের গুরুদাসপুরে ইউপি নির্বাচনে ভিন্ন প্রার্থীর সমর্থনে কাজ করাকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সৃষ্ট সংঘর্ষে অন্তত আটজন আহত হয়েছেন। এ সময় একটি মোটরসাইকেল ভাংচুর করা হয়েছে। বুধবার রাত ৯টার দিকে উপজেলার চাপিলা বাজার এলাকায় এ সংঘর্ষ ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, আসন্ন চাপিলা ইউপি নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পেতে আওয়ামী লীগ নেতা ইয়াকুব আলী লবি প্রচারণা চালাচ্ছেন। উপজেলার বাকিবেগপুর গ্রামের আওয়ামী লীগ কর্মী সাদেকুর রহমান সম্ভাব্য প্রার্থী ইয়াকুব আলীর পক্ষে কাজ করছেন। এতে বর্তমান চেয়ারম্যান আলাল উদ্দিন ভুট্টুর সমর্থকরা তার ওপর ক্ষিপ্ত হন। বুধবার রাতে ভুট্টু চেয়ারম্যানের ছোট ভাই আয়নাল হকের নেতৃত্বে ১০-১২ জন চাপিলা বাজারে সাদেকুর রহমানের ওপর হামলা করে। এ সময় তারা একটি মোটরসাইকেলও ভাংচুর করে। খবর পেয়ে সাদেকুরের স্বজনরা এগিয়ে এলে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। সংঘর্ষে কমপক্ষে আটজন আহত হন। আহতদের মধ্যে রাশিদুল ইসলাম ও আতিকু রহমান বড়াইগ্রাম হাসপাতালে এবং শাহজাহান, রাসেল, এনামুল, ফিরোজ ও আয়নাল গুরুদাসপুর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তবে বড়াইগ্রাম হাসপাতালে সাদেকুর রহমানের অবস্থা আশঙ্কাজনক হলে দ্রুত রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত উভয় পক্ষে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।
এ ব্যাপারে গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মোজাহারুল ইসলাম জানান, চেয়ারম্যানের পক্ষের অভিযোগ পাওয়া গেছে। তবে অপরপক্ষের কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

গুরুদাসপুরে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ৮

 গুরুদাসপুর (নাটোর) প্রতিনিধি 
১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৭:০৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
নাটোর
নাটোর

নাটোরের গুরুদাসপুরে ইউপি নির্বাচনে ভিন্ন প্রার্থীর সমর্থনে কাজ করাকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সৃষ্ট সংঘর্ষে অন্তত আটজন আহত হয়েছেন। এ সময় একটি মোটরসাইকেল ভাংচুর করা হয়েছে। বুধবার রাত ৯টার দিকে উপজেলার চাপিলা বাজার এলাকায় এ সংঘর্ষ ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, আসন্ন চাপিলা ইউপি নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পেতে আওয়ামী লীগ নেতা ইয়াকুব আলী লবি প্রচারণা চালাচ্ছেন। উপজেলার বাকিবেগপুর গ্রামের আওয়ামী লীগ কর্মী সাদেকুর রহমান সম্ভাব্য প্রার্থী ইয়াকুব আলীর পক্ষে কাজ করছেন। এতে বর্তমান চেয়ারম্যান আলাল উদ্দিন ভুট্টুর সমর্থকরা তার ওপর ক্ষিপ্ত হন। বুধবার রাতে ভুট্টু চেয়ারম্যানের ছোট ভাই আয়নাল হকের নেতৃত্বে ১০-১২ জন চাপিলা বাজারে সাদেকুর রহমানের ওপর হামলা করে। এ সময় তারা একটি মোটরসাইকেলও ভাংচুর করে। খবর পেয়ে সাদেকুরের স্বজনরা এগিয়ে এলে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। সংঘর্ষে কমপক্ষে আটজন আহত হন। আহতদের মধ্যে রাশিদুল ইসলাম ও আতিকু রহমান বড়াইগ্রাম হাসপাতালে এবং শাহজাহান, রাসেল, এনামুল, ফিরোজ ও আয়নাল গুরুদাসপুর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তবে বড়াইগ্রাম হাসপাতালে সাদেকুর রহমানের অবস্থা আশঙ্কাজনক হলে দ্রুত রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়।
 
এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত উভয় পক্ষে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।
এ ব্যাপারে গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মোজাহারুল ইসলাম জানান, চেয়ারম্যানের পক্ষের অভিযোগ পাওয়া গেছে। তবে অপরপক্ষের কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন