নোয়াখালীতে চিকিৎসকের অবহেলায় প্রসূতির মৃত্যু
jugantor
নোয়াখালীতে চিকিৎসকের অবহেলায় প্রসূতির মৃত্যু

  চাটখিল (নোয়াখালী) প্রতিনিধি   

১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২২:৪৭:৩১  |  অনলাইন সংস্করণ

নোয়াখালীর চাটখিল পৌরসভার বেসরকারি স্কয়ার হাসপাতালে সিজারিয়ান অপারেশনে চিকিৎসকের অবহেলায় এক প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বৃহস্পতিবার রাতে তাকে ঢাকা নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। মৃত আমেনা বেগম রামগঞ্জ উপজেলার আলীপুর গ্রামের আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকালে প্রসব বেদনা নিয়ে আমেনা বেগম স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি হন। দুপুর ২টার দিকে চাটখিল সরকারী হাসপাতালের গাইনী বিভাগের কনসালটেন্ট ডা. তিথি আজিজ আমেনা বেগম তার অপারেশন করেন। অপারেশনের পর প্রসূতির রক্তক্ষরণ বন্ধ না হওয়ায় তাকে তড়িঘড়ি করে নোয়াখালী জেলা সদরে রেফার করা হয়।

জেলা সদরের আমেরিকান স্পেশালিষ্ট হাসপাতালে আমেনাকে ভর্তি করা হয়। রাত ১০টার দিকে তার অবস্থার আরও অবনতি ঘটায় তাকে ঢাকার উদ্দেশে নেয়া হয়। ঢাকা নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

আমেনার স্বামী আনোয়ার হোসেন জানান, তার স্ত্রী আমেনাকে ডা. তিথি আজিজ সব পরীক্ষা নিরীক্ষা করে সিজারিয়ান অপারেশন করান। অপারেশনের আগে আমেনার শরীরে কোনো রকম অসুবিধা ছিল না বলে ডা. তিথি আজিজ জানিয়েছিলেন।

আনোয়ার হোসেন অভিযোগ করে বলেন, ডা. তিথি আজিজ তার স্ত্রীকে সিজারিয়ান অপারেশনের সময় তড়িঘড়ি করে চরম অবহেলা করেন। তার অভিযোগ ডাক্তারের অবহেলার কারণে তার স্ত্রীর ভুল অপারেশন করা হয়। এতে রক্তক্ষরণ বন্ধ না হওয়ায় তার স্ত্রীর মৃত্যু হয়। তিনি এ ঘটনার বিচার দাবি করেন। সিজারিয়ান অপারেশনে জন্ম নেয়া কন্যা শিশুটি বর্তমানে সুস্থ রয়েছে।

এ বিষয়ে জানতে ডা. তিথি আজিজের মোবাইল নাম্বারের বারবার ফোন দিলেও তিনি তা রিসিভ করেননি।

স্কয়ার হাসপাতালের পরিচালক মাসুদ আলম যুগান্তরকে বলেন, ওই নারীর জরায়ুতে সমস্যা ছিল। যে কারণে তার রক্তক্ষরণ বন্ধ করা সম্ভব হয়নি। পরে তাকে নোয়াখালী জেলা সদরে রেফার করা হয়।

নোয়াখালীতে চিকিৎসকের অবহেলায় প্রসূতির মৃত্যু

 চাটখিল (নোয়াখালী) প্রতিনিধি  
১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:৪৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নোয়াখালীর চাটখিল পৌরসভার বেসরকারি স্কয়ার হাসপাতালে সিজারিয়ান অপারেশনে চিকিৎসকের অবহেলায় এক প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে। 

বৃহস্পতিবার রাতে তাকে ঢাকা নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। মৃত আমেনা বেগম রামগঞ্জ উপজেলার আলীপুর গ্রামের আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকালে প্রসব বেদনা নিয়ে আমেনা বেগম স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি হন। দুপুর ২টার দিকে চাটখিল সরকারী হাসপাতালের গাইনী বিভাগের কনসালটেন্ট ডা. তিথি আজিজ আমেনা বেগম তার অপারেশন করেন। অপারেশনের পর প্রসূতির রক্তক্ষরণ বন্ধ না হওয়ায় তাকে তড়িঘড়ি করে নোয়াখালী জেলা সদরে রেফার করা হয়। 

জেলা সদরের আমেরিকান স্পেশালিষ্ট হাসপাতালে আমেনাকে ভর্তি করা হয়। রাত ১০টার দিকে তার অবস্থার আরও অবনতি ঘটায় তাকে ঢাকার উদ্দেশে নেয়া হয়। ঢাকা নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। 

আমেনার স্বামী আনোয়ার হোসেন জানান, তার স্ত্রী আমেনাকে ডা. তিথি আজিজ সব পরীক্ষা নিরীক্ষা করে সিজারিয়ান অপারেশন করান। অপারেশনের আগে আমেনার শরীরে কোনো রকম অসুবিধা ছিল না বলে ডা. তিথি আজিজ জানিয়েছিলেন। 

আনোয়ার হোসেন অভিযোগ করে বলেন, ডা. তিথি আজিজ তার স্ত্রীকে সিজারিয়ান অপারেশনের সময় তড়িঘড়ি করে চরম অবহেলা করেন। তার অভিযোগ ডাক্তারের অবহেলার কারণে তার স্ত্রীর ভুল অপারেশন করা হয়। এতে রক্তক্ষরণ বন্ধ না হওয়ায় তার স্ত্রীর মৃত্যু হয়। তিনি এ ঘটনার বিচার দাবি করেন। সিজারিয়ান অপারেশনে জন্ম নেয়া কন্যা শিশুটি বর্তমানে সুস্থ রয়েছে। 

এ বিষয়ে জানতে ডা. তিথি আজিজের মোবাইল নাম্বারের বারবার ফোন দিলেও তিনি তা রিসিভ করেননি। 

স্কয়ার হাসপাতালের পরিচালক মাসুদ আলম যুগান্তরকে বলেন, ওই নারীর জরায়ুতে সমস্যা ছিল। যে কারণে তার রক্তক্ষরণ বন্ধ করা সম্ভব হয়নি। পরে তাকে নোয়াখালী জেলা সদরে রেফার করা হয়।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন