গাজীপুরে স্ত্রীকে শ্বাসরোধে হত্যার পর পালিয়েছে স্বামী
jugantor
গাজীপুরে স্ত্রীকে শ্বাসরোধে হত্যার পর পালিয়েছে স্বামী

  গাজীপুর প্রতিনিধি  

২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৮:২৫:১২  |  অনলাইন সংস্করণ

শ্বাষরোধ

গাজীপুরে স্ত্রীকে শ্বাসরোধে হত্যার পর স্বামী পালিয়ে গেছে। খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে।
রোববার সকালে গাজীপুর মহানগরীর ভোগড়া বাইপাস পেয়ারাবাগান এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহতের নাম মুনশেফা আক্তার (৩০)। তিনি রংপুরের পীরগঞ্জ থানার শিবপুর এলাকার দুদু মিয়ার স্ত্রী।

নিহতের ভগ্নিপতি আশিক মিয়া জানান, স্বামী-স্ত্রী দুইজনেই ভোগড়া বাইপাস কাঁচামালের আড়তে দিনমজুরের কাজ করত। কয়েক দিন যাবৎ দুইজনের মধ্যে ঝগড়ার সৃষ্টি হয়। এরই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার সন্ধ্যায় মাগরিবের নামাজ পড়ার জন্য ওজু করতে যায় মুনশেফা। ওজু করতে দেরি হওয়ায় স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ফের ঝগড়া শুরু হয়।

বিষয়টি রাতেই পারিবারিকভাবে মীমাংসা করা হয়। রাতে তারা ঘরে ঘুমিয়ে পড়ে। পরে রাতের কোনো এক সময় স্ত্রী মুনশেফাকে হত্যার পর স্বামী দুদু মিয়া পালিয়ে যায়। রোববার সকালে ঘর থেকে দুর্গন্ধ বের হলে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেন। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়।

বাসন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রফিকুল ইসলাম চৌধুরী জানান, নিহতের গলায় কাটা দাগ রয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে স্ত্রীকে শ্বাসরোধে হত্যার পর স্বামী পালিয়ে গেছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

গাজীপুরে স্ত্রীকে শ্বাসরোধে হত্যার পর পালিয়েছে স্বামী

 গাজীপুর প্রতিনিধি 
২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৬:২৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
শ্বাষরোধ
শ্বাষরোধ

গাজীপুরে স্ত্রীকে শ্বাসরোধে হত্যার পর স্বামী পালিয়ে গেছে। খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে।
রোববার সকালে গাজীপুর মহানগরীর ভোগড়া বাইপাস পেয়ারাবাগান এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহতের নাম মুনশেফা আক্তার (৩০)। তিনি রংপুরের পীরগঞ্জ থানার শিবপুর এলাকার দুদু মিয়ার স্ত্রী।

নিহতের ভগ্নিপতি আশিক মিয়া জানান, স্বামী-স্ত্রী দুইজনেই ভোগড়া বাইপাস কাঁচামালের আড়তে দিনমজুরের কাজ করত। কয়েক দিন যাবৎ দুইজনের মধ্যে ঝগড়ার সৃষ্টি হয়। এরই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার সন্ধ্যায় মাগরিবের নামাজ পড়ার জন্য ওজু করতে যায় মুনশেফা। ওজু করতে দেরি হওয়ায় স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ফের ঝগড়া শুরু হয়।

বিষয়টি রাতেই পারিবারিকভাবে মীমাংসা করা হয়। রাতে তারা ঘরে ঘুমিয়ে পড়ে। পরে রাতের কোনো এক সময় স্ত্রী মুনশেফাকে হত্যার পর স্বামী দুদু মিয়া পালিয়ে যায়। রোববার সকালে ঘর থেকে দুর্গন্ধ বের হলে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেন। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়।

বাসন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রফিকুল ইসলাম চৌধুরী জানান, নিহতের গলায় কাটা দাগ রয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে স্ত্রীকে শ্বাসরোধে হত্যার পর স্বামী পালিয়ে গেছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।
 

 
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন