অবশেষে র‌্যাবের জালে আটক তিনি
jugantor
অবশেষে র‌্যাবের জালে আটক তিনি

  কুমিল্লা ব্যুরো  

২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২০:৫৬:১৬  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লায় র‌্যাবের জালে ধরাশায়ী হয়েছে ইমামুল ফেরদৌস সোহাগ নামে এক ভুয়া মেজর। রোববার দুপুরে র‌্যাব-১১, সিপিসি-২ এর একটি আভিযানিক দল জেলার সদর দক্ষিণ উপজেলার কোটবাড়ি বিশ্বরোড এলাকায় বিশেষ অভিযান চালিয়ে ভুয়া মেজর পরিচয় প্রদানকারী ওই প্রতারককে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

গ্রেফতারকৃত ইমামুল ফেরদৌস সোহাগ (৩০) চাঁদপুর জেলার হাজীগঞ্জ উপজেলার নওহাটা গ্রামের জামাল হোসেনের ছেলে।

কুমিল্লার র‌্যাব-১১ সিপিসি-২ এর অধিনায়ক মেজর তালুকদার নাজমুছ সাকিব জানান, গ্রেফতারকৃত ইমামুল নিজেকে কখনও মেজর, কখনও লে. কর্নেল, কখনও কর্নেল পরিচয় দিয়ে সেনাবাহিনী, বিজিবিসহ সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্ন লোকজনের কাছ থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে আসছিলেন। এমনকি প্রতারণাকালে তিনি বিভিন্ন স্থানে ভিন্ন ভিন্ন নামে পরিচয় দিতেন। কখনও নিজেকে তাসফিক, কখনও সোহাগ নামে পরিচয় দিতেন।

তিনি জানান, ইমামুল ফেরদৌস সোহাগের কাছ থেকে একটি সেনাবাহিনীর কর্মকর্তার ভুয়া আইডি কার্ড উদ্ধার করা হয়েছে। যেখানে সেনা ইউনিফর্মে তার ছবি এবং মেজর বিজয় চৌধুরী নাম উল্লেখ রয়েছে। এ সময় চাকরি দেয়ার নাম করে বিভিন্ন লোকের কাছ থেকে নেয়া তাদের বিভিন্ন সার্টিফিকেট, প্রশংসাপত্র, জন্ম নিবন্ধন সনদ, চারিত্রিক সনদপত্র ও জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি উদ্ধার করা হয়। এছাড়া বিভিন্ন সময় মোবাইল ফোনে মিথ্যা পরিচয় দিয়ে টাকা নেয়ার অডিও রেকর্ডিংও উদ্ধার করা হয়।

অবশেষে র‌্যাবের জালে আটক তিনি

 কুমিল্লা ব্যুরো 
২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:৫৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লায় র‌্যাবের জালে ধরাশায়ী হয়েছে ইমামুল ফেরদৌস সোহাগ নামে এক ভুয়া মেজর। রোববার দুপুরে র‌্যাব-১১, সিপিসি-২ এর একটি আভিযানিক দল জেলার সদর দক্ষিণ উপজেলার কোটবাড়ি বিশ্বরোড এলাকায় বিশেষ অভিযান চালিয়ে ভুয়া মেজর পরিচয় প্রদানকারী ওই প্রতারককে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

গ্রেফতারকৃত ইমামুল ফেরদৌস সোহাগ (৩০) চাঁদপুর জেলার হাজীগঞ্জ উপজেলার নওহাটা গ্রামের জামাল হোসেনের ছেলে।

কুমিল্লার র‌্যাব-১১ সিপিসি-২ এর অধিনায়ক মেজর তালুকদার নাজমুছ সাকিব জানান, গ্রেফতারকৃত ইমামুল নিজেকে কখনও মেজর, কখনও লে. কর্নেল, কখনও কর্নেল পরিচয় দিয়ে সেনাবাহিনী, বিজিবিসহ সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্ন লোকজনের কাছ থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে আসছিলেন। এমনকি প্রতারণাকালে তিনি বিভিন্ন স্থানে ভিন্ন ভিন্ন নামে পরিচয় দিতেন। কখনও নিজেকে তাসফিক, কখনও সোহাগ নামে পরিচয় দিতেন।

তিনি জানান, ইমামুল ফেরদৌস সোহাগের কাছ থেকে একটি সেনাবাহিনীর কর্মকর্তার ভুয়া আইডি কার্ড উদ্ধার করা হয়েছে। যেখানে সেনা ইউনিফর্মে তার ছবি এবং মেজর বিজয় চৌধুরী নাম উল্লেখ রয়েছে। এ সময় চাকরি দেয়ার নাম করে বিভিন্ন লোকের কাছ থেকে নেয়া তাদের বিভিন্ন সার্টিফিকেট, প্রশংসাপত্র, জন্ম নিবন্ধন সনদ, চারিত্রিক সনদপত্র ও জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি উদ্ধার করা হয়। এছাড়া বিভিন্ন সময় মোবাইল ফোনে মিথ্যা পরিচয় দিয়ে টাকা নেয়ার অডিও রেকর্ডিংও উদ্ধার করা হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন