ফুটবল খেলা নিয়ে দ্বন্দ্ব, ছেলেকে না পেয়ে বাবাকে কুপিয়ে হত্যা
jugantor
ফুটবল খেলা নিয়ে দ্বন্দ্ব, ছেলেকে না পেয়ে বাবাকে কুপিয়ে হত্যা

  নরসিংদী প্রতিনিধি  

২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:৩২:৪৮  |  অনলাইন সংস্করণ

ফুটবল খেলা নিয়ে দ্বন্দ্ব, ছেলেকে না পেয়ে বাবাকে কুপিয়ে হত্যা

নরসিংদী শহরে ফুটবল খেলা নিয়ে কথা কাটাকাটির দ্বন্দ্বে বাড়িতে ঢুকে এক পাটকল শ্রমিককে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। নিহতের নাম মো. রবিউল্লাহ (৪৫)।

রোববার রাতে শহরের কামারগাঁও এলাকায় এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

নিহত রবিউল্লাহ কামারগাঁও এলাকার আবদুল জব্বারের ছেলে ও ইউএমসি জুট মিলের স্থায়ী শ্রমিক ছিলেন। তবে বর্তমানে পাটকলটি বন্ধ থাকায় তিনি বাড়িতে অবস্থান করছিলেন।

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, মো. রবিউল্লাহর ছেলে মিল শ্রমিক সজীব (২০) বিকালে স্থানীয় একটি মাঠে বন্ধুদের সঙ্গে ফুটবল খেলতে যান। সেখানে খেলার সময় রোহান নামে এক যুবকের সঙ্গে তার কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতি হয়।

উপস্থিত লোকজন বিষয়টি মীমাংসা করে দুজনকে মিলিয়ে দেন। পরে সজীব বাড়ি ফিরে কাজে চলে যায়।

এ ঘটনার পর রাতে রোহান একটি চাপাতি নিয়ে উত্তেজিত অবস্থায় সজীবদের বাড়িতে ঢোকে। সজীবকে না পেয়ে তার বাবা রবিউল্লাহর ঘাড়ে ও কপালে চাপাতি দিয়ে কোপ দেয়। এতে রবিউল্লাহ মাটিতে লুটিয়ে পড়েন।

পরে পরিবারের সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে নরসিংদী সদর হাসপাতালে নেয়ার পথে রবিউল্লাহ মারা যান।

নরসিংদী মডেল থানার ওসি বিপ্লব কুমার দত্ত চৌধুরী জানান, ফুটবল খেলায় কথা কাটাকাটির জের ধরেই এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত যুবককে আটকের চেষ্টা চলছে।

ফুটবল খেলা নিয়ে দ্বন্দ্ব, ছেলেকে না পেয়ে বাবাকে কুপিয়ে হত্যা

 নরসিংদী প্রতিনিধি 
২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:৩২ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ফুটবল খেলা নিয়ে দ্বন্দ্ব, ছেলেকে না পেয়ে বাবাকে কুপিয়ে হত্যা
ফাইল ছবি

নরসিংদী শহরে ফুটবল খেলা নিয়ে কথা কাটাকাটির দ্বন্দ্বে বাড়িতে ঢুকে এক পাটকল শ্রমিককে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। নিহতের নাম মো. রবিউল্লাহ (৪৫)।

রোববার রাতে শহরের কামারগাঁও এলাকায় এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।
 
নিহত রবিউল্লাহ কামারগাঁও এলাকার আবদুল জব্বারের ছেলে ও ইউএমসি জুট মিলের স্থায়ী শ্রমিক ছিলেন। তবে বর্তমানে পাটকলটি বন্ধ থাকায় তিনি বাড়িতে অবস্থান করছিলেন।

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, মো. রবিউল্লাহর ছেলে মিল শ্রমিক সজীব (২০) বিকালে স্থানীয় একটি মাঠে বন্ধুদের সঙ্গে ফুটবল খেলতে যান। সেখানে খেলার সময় রোহান নামে এক যুবকের সঙ্গে তার কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতি হয়।  

উপস্থিত লোকজন বিষয়টি মীমাংসা করে দুজনকে মিলিয়ে দেন। পরে সজীব বাড়ি ফিরে কাজে চলে যায়।

এ ঘটনার পর রাতে রোহান একটি চাপাতি নিয়ে উত্তেজিত অবস্থায় সজীবদের বাড়িতে ঢোকে। সজীবকে না পেয়ে তার বাবা রবিউল্লাহর ঘাড়ে ও কপালে চাপাতি দিয়ে কোপ দেয়। এতে রবিউল্লাহ মাটিতে লুটিয়ে পড়েন।

পরে পরিবারের সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে নরসিংদী সদর হাসপাতালে নেয়ার পথে রবিউল্লাহ মারা যান।  

নরসিংদী মডেল থানার ওসি বিপ্লব কুমার দত্ত চৌধুরী জানান, ফুটবল খেলায় কথা কাটাকাটির জের ধরেই এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত যুবককে আটকের চেষ্টা চলছে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন