পচে গেছে পেঁয়াজ, সোনামসজিদ থেকে ফেরত গেছে সব ট্রাক
jugantor
পচে গেছে পেঁয়াজ, সোনামসজিদ থেকে ফেরত গেছে সব ট্রাক

  শিবগঞ্জ (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি  

২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২২:৪৫:৩৬  |  অনলাইন সংস্করণ

রফতানি নিষেধাজ্ঞার পর সোনামসজিদ স্থলবন্দরের ওপারে ভারতের মহদিপুর স্থলবন্দরে আটকে ছিল প্রায় ৪০০ পেঁয়াজভর্তি ট্রাক। পেঁয়াজ পচে যাওয়ায় ভারতের নাসিকে ফেরত গেছে ট্রাকগুলো।

মহদিপুর সিএন্ডএফ এজেন্টস ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক শ্রী ভূপতি মণ্ডল জানান, মহদিপুর বন্দর থেকে সোনামসজিদ বন্দরে প্রবেশের অনুমতি না পাওয়ায় ও পচে পেঁয়াজ নষ্ট হওয়ার কারণে রোববার প্রায় ৩০০ ট্রাক নিজ গন্তব্যে ফেরত গেছে।

তিনি আরও জানান, সোমবার সকাল থেকে বাকি প্রায় ১০০ পেঁয়াজভর্তি ট্রাকও ফিরে গেছে নাসিকের উদ্দেশে।

সোমবার বিকালে শ্রী ভূপতি মণ্ডল আরও জানান, তাদের স্থলবন্দরে ট্রাক পার্কিং কেন্দ্রে পেঁয়াজভর্তি ট্রাক নেই বাংলাদেশে প্রবেশের অপেক্ষায়।

সোনামসজিদ স্থলবন্দর আমদানি-রফতানিকারক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক তৌফিকুর রহমান বাবু জানান, গত ১৪ সেপ্টেম্বরের আগে খোলা এলসির বিপরীতে আটকেপড়া মহদিপুর স্থলবন্দর দিয়ে পেঁয়াজ রফতানির অনুমতি দেয় ভারতীয় কর্তৃপক্ষ। ওই অনুমতি প্রাপ্তির পর আটকেপড়া ৮টি ট্রাকে প্রায় ২৪০ টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে।

ব্যবসায়ীরা জানান, আমদানিকৃত পেঁয়াজের অধিকাংশ পেঁয়াজই পচে নষ্ট হয়ে গেছে। এতে তারা আর্থিকভাবে ব্যাপক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন।

তৌফিকুর রহমান বাবু আরও জানান, বাংলাদেশের আমদানিকারকরা ভারতের পচা পেঁয়াজ আমদানি করতে নারাজ।

পচে গেছে পেঁয়াজ, সোনামসজিদ থেকে ফেরত গেছে সব ট্রাক

 শিবগঞ্জ (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি 
২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:৪৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

রফতানি নিষেধাজ্ঞার পর সোনামসজিদ স্থলবন্দরের ওপারে ভারতের মহদিপুর স্থলবন্দরে আটকে ছিল প্রায় ৪০০ পেঁয়াজভর্তি ট্রাক। পেঁয়াজ পচে যাওয়ায় ভারতের নাসিকে ফেরত গেছে ট্রাকগুলো।

মহদিপুর সিএন্ডএফ এজেন্টস ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক শ্রী ভূপতি মণ্ডল জানান, মহদিপুর বন্দর থেকে সোনামসজিদ বন্দরে প্রবেশের অনুমতি না পাওয়ায় ও পচে পেঁয়াজ নষ্ট হওয়ার কারণে রোববার প্রায় ৩০০ ট্রাক নিজ গন্তব্যে ফেরত গেছে।

তিনি আরও জানান, সোমবার সকাল থেকে বাকি প্রায় ১০০ পেঁয়াজভর্তি ট্রাকও ফিরে গেছে নাসিকের উদ্দেশে।

সোমবার বিকালে শ্রী ভূপতি মণ্ডল আরও জানান, তাদের স্থলবন্দরে ট্রাক পার্কিং কেন্দ্রে পেঁয়াজভর্তি ট্রাক নেই বাংলাদেশে প্রবেশের অপেক্ষায়।

সোনামসজিদ স্থলবন্দর আমদানি-রফতানিকারক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক তৌফিকুর রহমান বাবু জানান, গত ১৪ সেপ্টেম্বরের আগে খোলা এলসির বিপরীতে আটকেপড়া মহদিপুর স্থলবন্দর দিয়ে পেঁয়াজ রফতানির অনুমতি দেয় ভারতীয় কর্তৃপক্ষ। ওই অনুমতি প্রাপ্তির পর আটকেপড়া ৮টি ট্রাকে প্রায় ২৪০ টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে।

ব্যবসায়ীরা জানান, আমদানিকৃত পেঁয়াজের অধিকাংশ পেঁয়াজই পচে নষ্ট হয়ে গেছে। এতে তারা আর্থিকভাবে ব্যাপক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন।

তৌফিকুর রহমান বাবু আরও জানান, বাংলাদেশের আমদানিকারকরা ভারতের পচা পেঁয়াজ আমদানি করতে নারাজ।

 

ঘটনাপ্রবাহ : পেঁয়াজের বাজার আবারও অস্থির

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন