আল্লামা শফীকে নিয়ে কটূক্তি করা সেই চেয়ারম্যানের ক্ষমা প্রার্থনা
jugantor
আল্লামা শফীকে নিয়ে কটূক্তি করা সেই চেয়ারম্যানের ক্ষমা প্রার্থনা

  ফরিদপুর ব্যুরো  

২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২০:৩৮:৫৬  |  অনলাইন সংস্করণ

হেফাজতে ইসলামের আমীর আল্লামা শাহ আহমদ শফীকে নিয়ে ফেসবুকের ফেইক আইডি দিয়ে কটূক্তি করায় বিপাকে পড়েছেন ফরিদপুরের সালথা উপজেলার বল্লভদি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. নুরুল ইসলাম।

পরে তিনি বিশ্বের সব মুসলমানসহ গোটা জাতির কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন। মঙ্গলবার বেলা ১১টায় বল্লভদি ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে তিনি প্রকাশ্যে সাংবাদিকদের মাধ্যমে জাতির কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেন।

বল্লভদি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম বলেন, কে বা কারা আমার নাম ও ছবি ব্যবহার করে ফেইক ফেসবুক আইডি দিয়ে দেশের স্বনামধন্য একজন আলেম প্রয়াত হেফাজতে ইসলামের আমীর মাওলানা আহম্মদ শফী সাহেবকে নিয়ে কটূক্তি করেছে। আমি এর কিছুই জানি না। তারপরও যেহেতু আমার নাম ও ছবি ব্যবহার হয়েছে সেজন্য দায়ভার আমার ওপরই পড়ে।

তাই আমি দেশের ওলামায়ে কেরাম ও সব মুসলমান ভাইদের কাছে ক্ষমা চাচ্ছি। আমি ভবিষ্যতে কোনো দিন এ ধরনের পোস্ট করব না। আর আমি খুঁজে বের করার চেষ্টা করছি কে বা কারা আমার নাম ও ছবি ব্যবহার করে আমাকে সমাজের কাছে হেয়প্রতিপন্ন করছে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- হাকিম মাতুব্বর, শাহজাহান ফকির, ইউপি সদস্য মোশারফ হোসেন, লিটন মোল্যা, সাংবাদিক আবু নাছের হুসাইন, সাংবাদিক মনির মোল্যা, এফএম আজিজুর রহমান (আজিজ), আরিফুল ইসলাম প্রমুখ।

আল্লামা শফীকে নিয়ে কটূক্তি করা সেই চেয়ারম্যানের ক্ষমা প্রার্থনা

 ফরিদপুর ব্যুরো 
২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:৩৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

হেফাজতে ইসলামের আমীর আল্লামা শাহ আহমদ শফীকে নিয়ে ফেসবুকের ফেইক আইডি দিয়ে কটূক্তি করায় বিপাকে পড়েছেন ফরিদপুরের সালথা উপজেলার বল্লভদি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. নুরুল ইসলাম।

পরে তিনি বিশ্বের সব মুসলমানসহ গোটা জাতির কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন। মঙ্গলবার বেলা ১১টায় বল্লভদি ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে তিনি প্রকাশ্যে সাংবাদিকদের মাধ্যমে জাতির কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেন।

বল্লভদি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম বলেন, কে বা কারা আমার নাম ও ছবি ব্যবহার করে ফেইক ফেসবুক আইডি দিয়ে দেশের স্বনামধন্য একজন আলেম প্রয়াত হেফাজতে ইসলামের আমীর মাওলানা আহম্মদ শফী সাহেবকে নিয়ে কটূক্তি করেছে। আমি এর কিছুই জানি না। তারপরও যেহেতু আমার নাম ও ছবি ব্যবহার হয়েছে সেজন্য দায়ভার আমার ওপরই পড়ে।

তাই আমি দেশের ওলামায়ে কেরাম ও সব মুসলমান ভাইদের কাছে ক্ষমা চাচ্ছি। আমি ভবিষ্যতে কোনো দিন এ ধরনের পোস্ট করব না। আর আমি খুঁজে বের করার চেষ্টা করছি কে বা কারা আমার নাম ও ছবি ব্যবহার করে আমাকে সমাজের কাছে হেয়প্রতিপন্ন করছে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- হাকিম মাতুব্বর, শাহজাহান ফকির, ইউপি সদস্য মোশারফ হোসেন, লিটন মোল্যা, সাংবাদিক আবু নাছের হুসাইন, সাংবাদিক মনির মোল্যা, এফএম আজিজুর রহমান (আজিজ), আরিফুল ইসলাম প্রমুখ।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন