বঙ্গোপসাগর উত্তাল, সেন্টমার্টিনে আটকা পড়েছেন শতাধিক পর্যটক
jugantor
বঙ্গোপসাগর উত্তাল, সেন্টমার্টিনে আটকা পড়েছেন শতাধিক পর্যটক

  কক্সবাজার প্রতিনিধি  

২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:১২:২০  |  অনলাইন সংস্করণ

পর্যটক

বৈরী আবহাওয়া ও বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপের প্রভাবে সাগর উত্তাল রয়েছে। সোমবার থেকে কক্সবাজার উপকূলে ৩ নম্বর সতর্কসংকেত অব্যাহত রয়েছে।

দুর্ঘটনা এড়াতে সোমবার থেকে টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌপথে সব ধরনের নৌ যোগাযোগ বন্ধ রাখা হয়েছে। এতে প্রবালদ্বীপ সেন্টমার্টিনে আটকা পড়েছেন শতাধিক পর্যটক। তবে সেন্টমার্টিন দ্বীপে আটকেপড়া পর্যটকদের খোঁজখবর রাখছে স্থানীয় প্রশাসন।

টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম জানান, লঘুচাপের প্রভাবে সাগর উত্তাল থাকায় দুর্ঘটনা এড়াতে সোমবার থেকে টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌপথে যোগাযোগ বন্ধ রাখা হয়েছে। এতে সেন্টমার্টিনে আটকা পড়েছেন শতাধিক পর্যটক। পর্যটকদের খোঁজখবর রাখতে স্থানীয় পুলিশ, বিজিবি, কোস্টগার্ড ও ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যদের বলা হয়েছে। সাগর শান্ত হলে জাহাজ গিয়ে সেন্টমার্টিনে আটকেপড়া পর্যটকদের ফিরিয়ে আনবে।

সেন্টমার্টিনের ইউপি চেয়ারম্যান নুর আহমদ জানান, রোববার সকালে কক্সবাজার থেকে পর্যটকবাহী জাহাজ কর্ণফুলী এক্সপ্রেস এবং টেকনাফ থেকে কয়েকটি ট্রলারে করে দুই শতাধিক পর্যটক সেন্টমার্টিন ভ্রমণে যান। ওই দিন বিকালে জাহাজ ও ট্রলারে করে শতাধিক পর্যটক টেকনাফ ও কক্সবাজার ফিরে যান। রাতযাপনের জন্য সেন্টমার্টিনে থেকে যান শতাধিক পর্যটক। বৈরী আবহাওয়ার কারণে সোমবার সকাল থেকে নৌযান চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় তারা দ্বীপে আটকা পড়েন। তবে সবাই নিরাপদে আছেন।

বঙ্গোপসাগর উত্তাল, সেন্টমার্টিনে আটকা পড়েছেন শতাধিক পর্যটক

 কক্সবাজার প্রতিনিধি 
২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:১২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
পর্যটক
ফাইল ছবি

বৈরী আবহাওয়া ও বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপের প্রভাবে সাগর উত্তাল রয়েছে। সোমবার থেকে কক্সবাজার উপকূলে ৩ নম্বর সতর্কসংকেত অব্যাহত রয়েছে। 

দুর্ঘটনা এড়াতে সোমবার থেকে টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌপথে সব ধরনের নৌ যোগাযোগ বন্ধ রাখা হয়েছে। এতে প্রবালদ্বীপ সেন্টমার্টিনে আটকা পড়েছেন শতাধিক পর্যটক। তবে সেন্টমার্টিন দ্বীপে আটকেপড়া পর্যটকদের খোঁজখবর রাখছে স্থানীয় প্রশাসন।

টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম জানান, লঘুচাপের প্রভাবে সাগর উত্তাল থাকায় দুর্ঘটনা এড়াতে সোমবার থেকে টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌপথে যোগাযোগ বন্ধ রাখা হয়েছে। এতে সেন্টমার্টিনে আটকা পড়েছেন শতাধিক পর্যটক। পর্যটকদের খোঁজখবর রাখতে স্থানীয় পুলিশ, বিজিবি, কোস্টগার্ড ও ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যদের বলা হয়েছে। সাগর শান্ত হলে জাহাজ গিয়ে সেন্টমার্টিনে আটকেপড়া পর্যটকদের ফিরিয়ে আনবে।

সেন্টমার্টিনের ইউপি চেয়ারম্যান নুর আহমদ জানান, রোববার সকালে কক্সবাজার থেকে পর্যটকবাহী জাহাজ কর্ণফুলী এক্সপ্রেস এবং টেকনাফ থেকে কয়েকটি ট্রলারে করে দুই শতাধিক পর্যটক সেন্টমার্টিন ভ্রমণে যান। ওই দিন বিকালে জাহাজ ও ট্রলারে করে শতাধিক পর্যটক টেকনাফ ও কক্সবাজার ফিরে যান। রাতযাপনের জন্য সেন্টমার্টিনে থেকে যান শতাধিক পর্যটক। বৈরী আবহাওয়ার কারণে সোমবার সকাল থেকে নৌযান চলাচল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় তারা দ্বীপে আটকা পড়েন। তবে সবাই নিরাপদে আছেন।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন