আমাদের দুই দেশের বন্ধুত্ব ঐতিহাসিক: রীভা গাঙ্গুলি
jugantor
আমাদের দুই দেশের বন্ধুত্ব ঐতিহাসিক: রীভা গাঙ্গুলি

  যুগান্তর রিপোর্টার, নবাবগঞ্জ  

২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২০:৪১:৩৯  |  অনলাইন সংস্করণ

ভারতের হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাস বলেছেন, মহাত্মা গান্ধী এমন একজন ব্যক্তিত্ব যিনি ভারত ও বাংলাদেশ দুই দেশকেই বেঁধে রেখেছেন। আমাদের দুই দেশের বন্ধুত্ব ঐতিহাসিক।

বুধবার দুপুর ২টায় ঢাকার দোহার উপজেলার মালিকান্দা গ্রামে অবস্থিত মহাত্মা গান্ধী অভয় আশ্রম মহাশ্মশান পরিদর্শনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

রিভা গাঙ্গুলি বলেন, মহাত্মা গান্ধীর আদর্শকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। এজন্য বাংলাদেশে যতগুলো গান্ধী আশ্রম আছে সেগুলোতে সেমিনার করে গান্ধী সম্পর্কে জানার চেষ্টা করছি।

অনুষ্ঠানে দোহারের কৃতীসন্তান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, বঙ্গবন্ধুর সময় থেকে ভারত বাংলাদেশের সুসম্পর্ক তৈরি হয়। সেই পথ ধরে আমরা এগিয়ে চলেছি। আজকে ভারতের হাইকমিশনার শ্রীমতি রীভা গাঙ্গুলি দাসের সঙ্গে অফিসিয়াল সাক্ষাৎকার ছিল। সেই মিলনমেলাটা আজ দোহারেই শেষ হল।

ঢাকা জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহবুবুর রহমানের সঞ্চালনায় এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পুলিশের আইজি ড. বেনজীর আহমেদ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মোস্তফা কামাল, ঢাকা রেঞ্জ ডিআইজি হাবিবুর রহমান, ঢাকা জেলা প্রশাসক মো. শহীদুল ইসলাম, ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন সরদার, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ, দোহার উপজেলা চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন, দোহার সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার জহিরুল ইসলাম, নবাবগঞ্জের ওসি মো. সিরাজুল ইসলাম শেখ, দোহার থানার ওসি মোস্তফা কামাল, দোহার উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার রজ্জব আলী মোল্লা, আওয়ামী লীগ নেতা ফজলুল হক প্রমুখ।

ভারতীয় হাইকমিশনার গান্ধী অভয়াশ্রম পরির্দশন শেষে অতিথিদের নিয়ে বৃক্ষরোপণ করেন। ভবিষ্যতে এসব অভয়াশ্রম সংরক্ষণে রাখার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে বলে জানান তিনি।

আমাদের দুই দেশের বন্ধুত্ব ঐতিহাসিক: রীভা গাঙ্গুলি

 যুগান্তর রিপোর্টার, নবাবগঞ্জ 
২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:৪১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ভারতের হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাস বলেছেন, মহাত্মা গান্ধী এমন একজন ব্যক্তিত্ব যিনি ভারত ও বাংলাদেশ দুই দেশকেই বেঁধে রেখেছেন। আমাদের দুই দেশের বন্ধুত্ব ঐতিহাসিক। 

বুধবার দুপুর ২টায় ঢাকার দোহার উপজেলার মালিকান্দা গ্রামে অবস্থিত মহাত্মা গান্ধী অভয় আশ্রম মহাশ্মশান পরিদর্শনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

রিভা গাঙ্গুলি বলেন, মহাত্মা গান্ধীর আদর্শকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। এজন্য বাংলাদেশে যতগুলো গান্ধী আশ্রম আছে সেগুলোতে সেমিনার করে গান্ধী সম্পর্কে জানার চেষ্টা করছি।

অনুষ্ঠানে দোহারের কৃতীসন্তান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, বঙ্গবন্ধুর সময় থেকে ভারত বাংলাদেশের সুসম্পর্ক  তৈরি হয়। সেই পথ ধরে আমরা এগিয়ে চলেছি। আজকে ভারতের হাইকমিশনার শ্রীমতি রীভা গাঙ্গুলি দাসের সঙ্গে অফিসিয়াল সাক্ষাৎকার ছিল। সেই মিলনমেলাটা আজ দোহারেই শেষ হল।

ঢাকা জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহবুবুর রহমানের সঞ্চালনায় এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পুলিশের আইজি ড. বেনজীর আহমেদ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মোস্তফা কামাল, ঢাকা রেঞ্জ ডিআইজি হাবিবুর রহমান, ঢাকা জেলা প্রশাসক মো. শহীদুল ইসলাম, ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন সরদার, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ, দোহার উপজেলা চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন, দোহার সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার জহিরুল ইসলাম, নবাবগঞ্জের ওসি মো. সিরাজুল ইসলাম শেখ, দোহার থানার ওসি মোস্তফা কামাল, দোহার উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার রজ্জব আলী মোল্লা, আওয়ামী লীগ নেতা ফজলুল হক প্রমুখ। 

ভারতীয় হাইকমিশনার গান্ধী অভয়াশ্রম পরির্দশন শেষে অতিথিদের নিয়ে বৃক্ষরোপণ করেন। ভবিষ্যতে এসব অভয়াশ্রম সংরক্ষণে রাখার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে বলে জানান তিনি।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন