টাঙ্গাইলে ১০ টাকা কেজির ২৯ বস্তা চাল উদ্ধার করে দিলেন স্থানীয়রা
jugantor
টাঙ্গাইলে ১০ টাকা কেজির ২৯ বস্তা চাল উদ্ধার করে দিলেন স্থানীয়রা

  মধুপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি  

২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২৩:২৯:৪০  |  অনলাইন সংস্করণ

টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে হতদরিদ্রদের খাদ্য সহায়তা হিসেবে ১০ টাকা কেজি দরের ৮৭০ কেজি (২৯ বস্তা চাল) চাল জনৈক আবদুর রহিমের বাড়ি থেকে উদ্ধার করে প্রশাসনে হস্তান্তর করেছেন স্থানীয়রা।

বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ধনবাড়ী উপজেলার বীরতারা ইউনিয়নের কদমতলী বাজারের কাছে (ফয়েজের মোড়) রহিমের বাড়ি থেকে জব্দ ওই চাল প্রশাসনের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

প্রশাসনের পক্ষে সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাইদা খানম ও ধনবাড়ী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সৈকত হাসান উদ্ধার হওয়া চাল জব্দ করেছেন। চাল জব্দের আগেই আ. রহিমসহ বাড়ির সবাই গা-ঢাকা দিয়েছেন।

স্থানীয়রা জানান, ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের ওএমএসের ডিলার ঢাকায় চাকরি করেন। ডিলারের চাচা মোস্তফা এ চাল উত্তোলন করেন। তাদের ধারণা- মোস্তফা ওই চাল বিক্রি করেছেন।

খাদ্য অধিদফতরের সিলমোহর থাকা ১০ টাকা কেজির ২৪ বস্তা ও ৫০ কেজির সাদা তিন বস্তা চাল উদ্ধারের কথা স্বীকার করেছেন ধনবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফা সিদ্দিকা। তিনি জানান, রাস্তা খারাপ থাকায় চাল স্থানীয় ইউপি সদস্য শরীফুল ইসলামের জিম্মায় রেখে আসা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দিনে বেলায় প্রশাসনের হেফাজতে এনে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে।

ইউপি সদস্য শরীফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন। তিনি জানান, সম্ভবত আ. রহিম চাল ঘরে মজুদ করার সময় স্থানীদের চোখে পড়ে। বিকালে স্থানীয়রা প্রশাসনে খবর দিলে সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাইদা খানম ও পরিদর্শক (তদন্ত) সৈকত হাসান অভিযান চালিয়ে চাল উদ্ধার করেন। অভিযানের সময় ওই বাড়িতে কাউকে পাওয়া যায়নি।

টাঙ্গাইলে ১০ টাকা কেজির ২৯ বস্তা চাল উদ্ধার করে দিলেন স্থানীয়রা

 মধুপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি 
২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১:২৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে হতদরিদ্রদের খাদ্য সহায়তা হিসেবে ১০ টাকা কেজি দরের ৮৭০ কেজি (২৯ বস্তা চাল) চাল জনৈক আবদুর রহিমের বাড়ি থেকে উদ্ধার করে প্রশাসনে হস্তান্তর করেছেন স্থানীয়রা।

বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ধনবাড়ী উপজেলার বীরতারা ইউনিয়নের কদমতলী বাজারের কাছে (ফয়েজের মোড়) রহিমের বাড়ি থেকে জব্দ ওই চাল প্রশাসনের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

প্রশাসনের পক্ষে সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাইদা খানম ও ধনবাড়ী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সৈকত হাসান উদ্ধার হওয়া চাল জব্দ করেছেন। চাল জব্দের আগেই আ. রহিমসহ বাড়ির সবাই গা-ঢাকা দিয়েছেন।

স্থানীয়রা জানান, ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের ওএমএসের ডিলার ঢাকায় চাকরি করেন। ডিলারের চাচা মোস্তফা এ চাল উত্তোলন করেন। তাদের ধারণা- মোস্তফা ওই চাল বিক্রি করেছেন।

খাদ্য অধিদফতরের সিলমোহর থাকা ১০ টাকা কেজির ২৪ বস্তা ও ৫০ কেজির সাদা তিন বস্তা চাল উদ্ধারের কথা স্বীকার করেছেন ধনবাড়ী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফা সিদ্দিকা। তিনি জানান, রাস্তা খারাপ থাকায় চাল স্থানীয় ইউপি সদস্য শরীফুল ইসলামের জিম্মায় রেখে আসা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দিনে বেলায় প্রশাসনের হেফাজতে এনে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে।

ইউপি সদস্য শরীফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন। তিনি জানান, সম্ভবত আ. রহিম চাল ঘরে মজুদ করার সময় স্থানীদের চোখে পড়ে। বিকালে স্থানীয়রা প্রশাসনে খবর দিলে সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাইদা খানম ও পরিদর্শক (তদন্ত) সৈকত হাসান অভিযান চালিয়ে চাল উদ্ধার করেন। অভিযানের সময় ওই বাড়িতে কাউকে পাওয়া যায়নি।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন