প্রথম স্ত্রীর মামলায় পিরোজপুর ছাত্রদলের সম্পাদক গ্রেফতার
jugantor
প্রথম স্ত্রীর মামলায় পিরোজপুর ছাত্রদলের সম্পাদক গ্রেফতার

  পিরোজপুর প্রতিনিধি  

২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৭:৫১:১১  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রথম স্ত্রীর করা যৌতুক ও নির্যাতন মামলায় পিরোজপুর জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক এমডি বদিউজ্জামান শেখ রুবেলকে (৩২) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার সকালে শহরের হুলারহাট লঞ্চঘাট থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয় বলে জানান সদর থানার ওসি মুহা. নুরুল ইসলাম বাদল।

গ্রেফতার এমডি বদিউজ্জামান শেখ রুবেল শহরের মধ্যরাস্তা এলাকার আসলাম শেখের পুত্র। তিনি জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক।

রুবেলের প্রথম স্ত্রী শেখ সাজিয়া আফরিন শাম্মী জানান, ২০১২ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি পারিবারিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমেই তার সঙ্গে বর্তমান জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক এমডি বদিউজ্জামান শেখ রুবেলের বিয়ে হয়। বর্তমানে তাদের সংসারে দেড় বছর বয়সের একটি পুত্র রয়েছে। বিয়ের পর থেকেই যৌতুক হিসেবে বিভিন্ন সময় নগদ টাকা, আসবাবপত্র ও মোটরসাইকেল স্বামীকে দেয়া হয়েছে তার পরিবারের মাধ্যমে। কিন্তু বেশ কিছুদিন যাবত ধরে তার স্বামী শেখ রুবেল ও তার মা জাকিয়া বেগম তার ওপর ২৫ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে নানান ধরনের চাপ দিতে থাকে।

তিনি জানান, যৌতুকের জন্য টাকা না দিতে পারায় স্ত্রীর ওপর রুবেল শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন শুরু করে। নির্যাতনের পর এক পর্যায় রুবেলের পরিবার থেকে যৌতুকের জন্য তাকে বাবার বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়। পরে এ বিষয়ে পারিবারিকভাবে সমঝোতার চেষ্টা করলেও স্বামী রুবেলের পরিবার না মেনে নেয়ায় এ বছরের ১৫ জুলাই স্ত্রী শাম্মী বাদী হয়ে খুলনা আদলতে স্বামী ও শাশুড়িকে আসামি করে যৌতুক ও নির্যাতন আইনে মামলা করেন।

শেখ সাজিয়া আফরিন শাম্মী আরও জানান, তিনি জানাতে পারেন স্বামী বদিউজ্জামান শেখ রুবেল প্রথম স্ত্রী থাকা অবস্থায় অধিক যৌতুকের লোভে এ বছরের শুরুর দিকে তার অনুমতি না নিয়ে যশোর এলাকার একটি মেয়েকে বিয়ে করেছেন। জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক হওয়ার প্রভাবে রুবেল তার শ্বশুর বাড়ির লোকজনকে নানাভাবে হুমকি দিত বলে অভিযোগ করেন তার স্ত্রী।

পিরোজপুর সদর থানার ওসি মুহা. নুরুল ইসলাম বাদল সাংবাদিকদের জানান, স্ত্রীর করা মামলায় পরোয়ানা থাকায় জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক এমডি বদিউজ্জামান শেখ রুবেলকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ বিষয়ে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

প্রথম স্ত্রীর মামলায় পিরোজপুর ছাত্রদলের সম্পাদক গ্রেফতার

 পিরোজপুর প্রতিনিধি 
২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৫:৫১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রথম স্ত্রীর করা যৌতুক ও নির্যাতন মামলায় পিরোজপুর জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক এমডি বদিউজ্জামান শেখ রুবেলকে (৩২) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার সকালে শহরের হুলারহাট লঞ্চঘাট থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয় বলে জানান সদর থানার ওসি মুহা. নুরুল ইসলাম বাদল।

গ্রেফতার এমডি বদিউজ্জামান শেখ রুবেল শহরের মধ্যরাস্তা এলাকার আসলাম শেখের পুত্র। তিনি জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক।

রুবেলের প্রথম স্ত্রী শেখ সাজিয়া আফরিন শাম্মী জানান, ২০১২ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি পারিবারিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমেই তার সঙ্গে বর্তমান জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক এমডি বদিউজ্জামান শেখ রুবেলের বিয়ে হয়। বর্তমানে তাদের সংসারে দেড় বছর বয়সের একটি পুত্র রয়েছে। বিয়ের পর থেকেই যৌতুক হিসেবে বিভিন্ন সময় নগদ টাকা, আসবাবপত্র ও মোটরসাইকেল স্বামীকে দেয়া হয়েছে তার পরিবারের মাধ্যমে। কিন্তু বেশ কিছুদিন যাবত ধরে তার স্বামী শেখ রুবেল ও তার মা জাকিয়া বেগম তার ওপর ২৫ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে নানান ধরনের চাপ দিতে থাকে।

তিনি জানান, যৌতুকের জন্য টাকা না দিতে পারায় স্ত্রীর ওপর রুবেল শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন শুরু করে। নির্যাতনের পর এক পর্যায় রুবেলের পরিবার থেকে যৌতুকের জন্য তাকে বাবার বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়। পরে এ বিষয়ে পারিবারিকভাবে সমঝোতার চেষ্টা করলেও স্বামী রুবেলের পরিবার না মেনে নেয়ায় এ বছরের ১৫ জুলাই স্ত্রী শাম্মী বাদী হয়ে খুলনা আদলতে স্বামী ও শাশুড়িকে আসামি করে যৌতুক ও নির্যাতন আইনে মামলা করেন।

শেখ সাজিয়া আফরিন শাম্মী আরও জানান, তিনি জানাতে পারেন স্বামী বদিউজ্জামান শেখ রুবেল প্রথম স্ত্রী থাকা অবস্থায় অধিক যৌতুকের লোভে এ বছরের শুরুর দিকে তার অনুমতি না নিয়ে যশোর এলাকার একটি মেয়েকে বিয়ে করেছেন। জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক হওয়ার প্রভাবে রুবেল তার শ্বশুর বাড়ির লোকজনকে নানাভাবে হুমকি দিত বলে অভিযোগ করেন তার স্ত্রী।

পিরোজপুর সদর থানার ওসি মুহা. নুরুল ইসলাম বাদল সাংবাদিকদের জানান, স্ত্রীর করা মামলায় পরোয়ানা থাকায় জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক এমডি বদিউজ্জামান শেখ রুবেলকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ বিষয়ে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন