রাতে নিখোঁজ, সকালে যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার
jugantor
রাতে নিখোঁজ, সকালে যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

  আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি  

২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৪:৫৮:১৪  |  অনলাইন সংস্করণ

বরগুনায় নিখোঁজ যুবকের মরদেহ

বরগুনার আমতলী উপজেলায় নিখোঁজ যুবকের মরদেহ গাছের সঙ্গে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহতের নাম নূর জামাল মোল্লা (৪০)।

শুক্রবার সকালে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনা হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে বরগুনার আমতলী উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়নের উত্তর তক্তাবুনিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতের স্ত্রী লাইলি বেগমের দাবি তাকে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা গলায় ফাঁস দিয়ে গাছে ঝুলিয়ে রেখেছে। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

নূর জামাল মোল্লা উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়নের উত্তর তক্তাবুনিয়া গ্রামের আলতাফ হোসেন মোল্লার ছেলে। তিনি একটি বেসরকারি সংস্থায় দীর্ঘদিন ধরে চাকরি করতেন।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার দুপুরে নূর জামাল বাড়ি থেকে বের হয়ে যান। এর পর থেকে জামাল নিখোঁজ ছিলেন। স্বজনরা বিভিন্ন স্থানে খুঁজেও তাকে পাননি।

শুক্রবার সকালে তার বাড়ির পুকুরপাড়ে একটি গাছের সঙ্গে তোয়ালে প্যাঁচানো গলায় ফাঁস দেয়া অবস্থায় তার মরদেহ স্বজনরা দেখতে পায়। নূর জামালের শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন ও পরিধেয় কাপড়ে রক্তমাখা রয়েছে বলে জানান প্রত্যক্ষদর্শীরা।

নিহতের স্ত্রী লাইলি বেগম কান্নাজনিত কণ্ঠে বলেন, আমার স্বামী বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে বাসা থেকে বের হয়ে যায়। এর পর থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। বিভিন্ন স্থানে খুঁজেও তার কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। শুক্রবার সকালে আমি পুকুরে মুখ ধৌত করতে গেলে গাছের সঙ্গে গলায় ফাঁস দেয়া তার মরদেহ দেখতে পাই।

তিনি আরও বলেন, আমার স্বামীকে দুর্বৃত্তরা হত্যা করে গলায় ফাঁস দিয়ে রেখেছে। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।

আমতলী থানার ওসি মো. শাহ আলম হাওলাদার বলেন, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনা মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়। তদন্তসাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

রাতে নিখোঁজ, সকালে যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

 আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি 
২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০২:৫৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
বরগুনায় নিখোঁজ যুবকের মরদেহ
ফাইল ছবি

বরগুনার আমতলী উপজেলায় নিখোঁজ যুবকের মরদেহ গাছের সঙ্গে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহতের নাম নূর জামাল মোল্লা (৪০)।

শুক্রবার সকালে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনা হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে বরগুনার আমতলী উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়নের উত্তর তক্তাবুনিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতের স্ত্রী লাইলি বেগমের দাবি তাকে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা গলায় ফাঁস দিয়ে গাছে ঝুলিয়ে রেখেছে। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

নূর জামাল মোল্লা উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়নের উত্তর তক্তাবুনিয়া গ্রামের আলতাফ হোসেন মোল্লার ছেলে। তিনি একটি বেসরকারি সংস্থায় দীর্ঘদিন ধরে চাকরি করতেন।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার দুপুরে নূর জামাল বাড়ি থেকে বের হয়ে যান। এর পর থেকে জামাল নিখোঁজ ছিলেন। স্বজনরা বিভিন্ন স্থানে খুঁজেও তাকে পাননি।

শুক্রবার সকালে তার বাড়ির পুকুরপাড়ে একটি গাছের সঙ্গে তোয়ালে প্যাঁচানো গলায় ফাঁস দেয়া অবস্থায় তার মরদেহ স্বজনরা দেখতে পায়।  নূর জামালের শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন ও পরিধেয় কাপড়ে রক্তমাখা রয়েছে বলে জানান প্রত্যক্ষদর্শীরা।

নিহতের স্ত্রী লাইলি বেগম কান্নাজনিত কণ্ঠে বলেন, আমার স্বামী বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে বাসা থেকে বের হয়ে যায়। এর পর থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। বিভিন্ন স্থানে খুঁজেও তার কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। শুক্রবার সকালে আমি পুকুরে মুখ ধৌত করতে গেলে গাছের সঙ্গে গলায় ফাঁস দেয়া তার মরদেহ দেখতে পাই।

তিনি আরও বলেন, আমার স্বামীকে দুর্বৃত্তরা হত্যা করে গলায় ফাঁস দিয়ে রেখেছে। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।

আমতলী থানার ওসি মো. শাহ আলম হাওলাদার বলেন, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনা মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়। তদন্তসাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন