ধর্ষককে ৭২ হাজার টাকা জরিমানা, ক্ষোভে কিশোরীর আত্মহত্যা
jugantor
ধর্ষককে ৭২ হাজার টাকা জরিমানা, ক্ষোভে কিশোরীর আত্মহত্যা

  চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি  

২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২২:৪৯:২৩  |  অনলাইন সংস্করণ

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষককে ৭২ হাজার টাকা জরিমানা করার ক্ষোভে আত্মহত্যা করেছে ধর্ষণের শিকার ১৩ বছরের এক কিশোরী। শুক্রবার বিষপানে আত্মহত্যা করে ওই কিশোরী।

স্থানীরা জানায়, গত সোমবার পৌর এলাকার দ্বারিয়াপুর মহাজনপাড়ার তৌহিদুল ইসলামের ছেলে বাসির ৫ম শ্রেণী পড়ুয়া চাচাতো বোনের ঘরে ঢুকে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। মেয়ের চিৎকারে মেয়ের মা ঘরের দরজা আটকে দেয়।

আটক থাকা অবস্থায় ধর্ষক বাসিরের বাবা তৌহিদুল ওই কিশোরীর সঙ্গে তার ছেলের বিয়ের প্রতিশ্রুতি দেন। পরে বুধবার চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মতিউর রহমান মটন মিয়া তার নিজ বাড়িতে উভয় পক্ষকে নিয়ে সালিসে বসেন। এ সময় ধর্ষক বাসিরের অনুপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত সালিসে ধর্ষক বাসিরকে ৭২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

বিষয়টি মেনে নিতে না পেরে শুক্রবার সকালে বিষপান করে ওই কিশোরী। পরিবারের লোকজন তাকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। বিকাল ৪টার দিকে চিকিৎসারত অবস্থায় হাসপাতালেই মারা যায় ওই কিশোরী।

নিহত পরিবারের অভিযোগ, ৭২ হাজার টাকায় ধর্ষণের সমাধান মানতে না পেরে সালিসেই তাদের সাফ জানিয়ে দেয় এ বিচার মানিনা। শুধু তাই নয়; ৭২ হাজার টাকায় সমাধান হলেও কাউন্সিলর মতিউর রহমান মটন মিয়া আমাদের পরিবারকে ৬০ হাজার টাকা দিয়ে বাকি ১২ হাজার টাকা নিজের কাছে রেখে দিয়েছে।

এ বিষয়ে কথা বলতে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড সদস্য মতিউর রহমান মটন মিয়াকে ফোন দেয়া হলে মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি মোজাফফর হোসেন জানায়, পরিবারের পক্ষ হতে নারী নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ বিষয়ে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ধর্ষককে ৭২ হাজার টাকা জরিমানা, ক্ষোভে কিশোরীর আত্মহত্যা

 চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি 
২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:৪৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষককে ৭২ হাজার টাকা জরিমানা করার ক্ষোভে আত্মহত্যা করেছে ধর্ষণের শিকার ১৩ বছরের এক কিশোরী। শুক্রবার বিষপানে আত্মহত্যা করে ওই কিশোরী।

স্থানীরা জানায়, গত সোমবার পৌর এলাকার দ্বারিয়াপুর মহাজনপাড়ার তৌহিদুল ইসলামের ছেলে বাসির ৫ম শ্রেণী পড়ুয়া চাচাতো বোনের ঘরে ঢুকে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। মেয়ের চিৎকারে মেয়ের মা ঘরের দরজা আটকে দেয়। 

আটক থাকা অবস্থায় ধর্ষক বাসিরের বাবা তৌহিদুল ওই কিশোরীর সঙ্গে তার ছেলের বিয়ের প্রতিশ্রুতি দেন। পরে বুধবার চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মতিউর রহমান মটন মিয়া তার নিজ বাড়িতে উভয় পক্ষকে নিয়ে সালিসে বসেন। এ সময় ধর্ষক বাসিরের অনুপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত সালিসে ধর্ষক বাসিরকে ৭২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। 

বিষয়টি মেনে নিতে না পেরে শুক্রবার সকালে বিষপান করে ওই কিশোরী। পরিবারের লোকজন তাকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। বিকাল ৪টার দিকে চিকিৎসারত অবস্থায় হাসপাতালেই মারা যায় ওই কিশোরী।

নিহত পরিবারের অভিযোগ, ৭২ হাজার টাকায় ধর্ষণের সমাধান মানতে না পেরে সালিসেই তাদের সাফ জানিয়ে দেয় এ বিচার মানিনা। শুধু তাই নয়; ৭২ হাজার টাকায় সমাধান হলেও কাউন্সিলর মতিউর রহমান মটন মিয়া আমাদের পরিবারকে ৬০ হাজার টাকা দিয়ে বাকি ১২ হাজার টাকা নিজের কাছে রেখে দিয়েছে।

এ বিষয়ে কথা বলতে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড সদস্য মতিউর রহমান মটন মিয়াকে ফোন দেয়া হলে মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

এ বিষয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি মোজাফফর হোসেন জানায়, পরিবারের পক্ষ হতে নারী নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ বিষয়ে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
 

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন