ভূঞাপুরে আ’লীগ নেতার মৃত্যু
jugantor
ভূঞাপুরে আ’লীগ নেতার মৃত্যু

  ভূঞাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি  

২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৫:২২:০৫  |  অনলাইন সংস্করণ

মো. নজরুল ইসলাম

স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে অন্যতম নেতা টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর আওয়ামী লীগের দুর্দিনের কাণ্ডারি ও বর্তমান উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মো. নজরুল ইসলাম ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না ইলাহি ... রাজিউন)।

শনিবার রাত ১০টার দিকে ঢাকা আনোয়ার খান মডার্ন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে লিভারজনিত কারণে তার মৃত্যু হয়।

তার স্ত্রী নাহিদা জানান, নজরুল বেশ কিছু দিন ধরে লিভার সমস্যায় ভুগছিলেন। কিন্তু টাকার অভাবে চিকিৎসকের দেয়া চিকিৎসাপত্র অনুযায়ী ওষুধ কিনে খেতে পারেননি।

তিনি অনেক ধারদেনা করে সংসার পরিচালনা করতেন এবং রাজনীতি নিয়ে বেশি সময় কাটাতেন।

টাকা না থাকায় এক ব্যক্তির কাছ থেকে এক লাখ টাকা স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর করে তার চিকিৎসার ব্যয়ভার বহন করতে ধার নেয়া হয়। কিন্তু ঋণের টাকায় তিনি নিয়মিত ওষুধ সেবন করতেন না। অবশেষে তার অবস্থার অবনতি হলে আমরা ঢাকায় নিয়ে যাই।

টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগ ও ভূঞাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের কোনো নেতা তার খোঁজখবর নেননি। এ ছাড়া আর্থিক কোনো সাহায্যের হাত বাড়িয়েও দেননি।

ভূঞাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো. আমিরুল ইসলাম তালুকদার বিদ্যুৎ জানান, রাজনৈতিক কারণে তার সঙ্গে দূরত্ব সৃষ্টি হলেও তার অসুস্থতার সংবাদ পেয়ে গত ২১ সেপ্টেম্বর ঢাকার আনোয়ার খান মডার্ন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করি।

সেখানে তার স্ত্রী নাহিদা, ভাতিজা রবিন ও আমি সার্বক্ষণিক তদারকি করেছি। নিয়মিত ওষুধ না খাওয়ায় তার লিভার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। তাই আপ্রাণ চেষ্টা করেও শেষ রক্ষা হয়নি।

স্থানীয় নেতাকর্মীরা জানান, তিনি জীবনে দলকে শুধু দিয়েই গেছেন কিন্তু শূন্যহাতে সবাইকে কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে চলে গেলেন।

স্থানীয় সংসদ সদস্য ছোট মনির করোনা আক্রান্ত হয়ে বর্তমানে চিকিৎসাধীন। তার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করছেন ও শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।

ভূঞাপুরে আ’লীগ নেতার মৃত্যু

 ভূঞাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি 
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩:২২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মো. নজরুল ইসলাম
মো. নজরুল ইসলাম। ছবি: যুগান্তর

স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে অন্যতম নেতা টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর আওয়ামী লীগের দুর্দিনের কাণ্ডারি ও বর্তমান উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মো. নজরুল ইসলাম ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না ইলাহি ... রাজিউন)।  

শনিবার রাত ১০টার দিকে ঢাকা আনোয়ার খান মডার্ন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে লিভারজনিত কারণে তার মৃত্যু হয়।

তার স্ত্রী নাহিদা জানান, নজরুল বেশ কিছু দিন ধরে লিভার সমস্যায় ভুগছিলেন। কিন্তু টাকার অভাবে চিকিৎসকের দেয়া চিকিৎসাপত্র অনুযায়ী ওষুধ কিনে খেতে পারেননি।

তিনি অনেক ধারদেনা করে সংসার পরিচালনা করতেন এবং রাজনীতি নিয়ে বেশি সময় কাটাতেন।

টাকা না থাকায় এক ব্যক্তির কাছ থেকে এক লাখ টাকা স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর করে তার চিকিৎসার ব্যয়ভার বহন করতে ধার নেয়া হয়। কিন্তু ঋণের টাকায় তিনি নিয়মিত ওষুধ সেবন করতেন না। অবশেষে তার অবস্থার অবনতি হলে আমরা ঢাকায় নিয়ে যাই।

টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগ ও ভূঞাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের কোনো নেতা তার খোঁজখবর নেননি। এ ছাড়া আর্থিক কোনো সাহায্যের হাত বাড়িয়েও দেননি।

ভূঞাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো. আমিরুল ইসলাম তালুকদার বিদ্যুৎ জানান, রাজনৈতিক কারণে তার সঙ্গে দূরত্ব সৃষ্টি হলেও তার অসুস্থতার সংবাদ পেয়ে গত ২১ সেপ্টেম্বর ঢাকার আনোয়ার খান মডার্ন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করি।

সেখানে তার স্ত্রী নাহিদা, ভাতিজা রবিন ও আমি সার্বক্ষণিক তদারকি করেছি। নিয়মিত ওষুধ না খাওয়ায় তার লিভার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। তাই আপ্রাণ চেষ্টা করেও শেষ রক্ষা হয়নি।

স্থানীয় নেতাকর্মীরা জানান, তিনি জীবনে দলকে শুধু দিয়েই গেছেন কিন্তু শূন্যহাতে সবাইকে কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে চলে গেলেন।

স্থানীয় সংসদ সদস্য ছোট মনির করোনা আক্রান্ত হয়ে বর্তমানে চিকিৎসাধীন। তার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করছেন ও শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন