রাতের আঁধারে স্কুলে আগুন দিল দুর্বৃত্তরা
jugantor
রাতের আঁধারে স্কুলে আগুন দিল দুর্বৃত্তরা

  লৌহজং (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি  

২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৮:৪৪:২৪  |  অনলাইন সংস্করণ

লৌহজং

মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ে গভীর রাতে একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে আগুন দেয়ার ঘটনা ঘটেছে। উপজেলা বৌলতলী ইউনিয়নের নওপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে শনিবার রাত ১১টায় আগুন দেয় একদল দুর্বত্ত। এতে বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষকের রুমে থাকা ল্যাপটপসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র আগুনে পুড়ে যায়। এ বিষয়ে লৌহজং থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

নওপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. জহিরুল ইসলাম জানান, শনিবার রাত আনুমানিক ১১টায় তার রুমের পেছন দিকে থাকা জানালাটির কাচ ইট দিয়ে ভেঙে আগুন ছুড়ে মারে রুমের ভেতর। পরে কক্ষটির ভেতরে আগুনে পুড়ে যায়। বিদ্যালয়ে থাকা নাইটগার্ড আগুন দেখে সহকারী শিক্ষকসহ আশপাশের লোকজনকে ডাকলে, স্থানীয়দের সহযোগিতায় আগুন নেভাতে সক্ষম হয়।

বিদ্যালয়টির ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোসলেম খান মন্টু জানান, কে বা কারা আগুন দিয়েছে তা এখনও জানতে পারিনি। এ বিষয়ে লৌহজং থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে। লৌহজং থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

লৌহজং থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ আলমগীর হোসাইন ঘটনার সত্যতা শিকার করে জানান, এ বিষয়ে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়েছে। ঘটনার তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

রাতের আঁধারে স্কুলে আগুন দিল দুর্বৃত্তরা

 লৌহজং (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি 
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৬:৪৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
লৌহজং
স্কুলের পুড়ে যাওয়া কম্পিউটার

মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ে গভীর রাতে একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে আগুন দেয়ার ঘটনা ঘটেছে। উপজেলা বৌলতলী ইউনিয়নের নওপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে শনিবার রাত ১১টায় আগুন দেয় একদল দুর্বত্ত। এতে বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষকের রুমে থাকা ল্যাপটপসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র আগুনে পুড়ে যায়। এ বিষয়ে লৌহজং থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

নওপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. জহিরুল ইসলাম জানান, শনিবার রাত আনুমানিক ১১টায় তার রুমের পেছন দিকে থাকা জানালাটির কাচ ইট দিয়ে ভেঙে আগুন ছুড়ে মারে রুমের ভেতর। পরে কক্ষটির ভেতরে আগুনে পুড়ে যায়। বিদ্যালয়ে থাকা নাইটগার্ড আগুন দেখে সহকারী শিক্ষকসহ আশপাশের লোকজনকে ডাকলে, স্থানীয়দের সহযোগিতায় আগুন নেভাতে সক্ষম হয়।

বিদ্যালয়টির ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোসলেম খান মন্টু জানান, কে বা কারা আগুন দিয়েছে তা এখনও জানতে পারিনি। এ বিষয়ে লৌহজং থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে। লৌহজং থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

লৌহজং থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ আলমগীর হোসাইন ঘটনার সত্যতা শিকার করে জানান, এ বিষয়ে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়েছে। ঘটনার তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
 

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন