নিলামের সময় ঠিকাদারের ওপর ছাত্রলীগের হামলা
jugantor
নিলামের সময় ঠিকাদারের ওপর ছাত্রলীগের হামলা

  বরিশাল ব্যুরো  

২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ২২:০১:৪৪  |  অনলাইন সংস্করণ

বরিশাল সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে নিলাম প্রক্রিয়ায় ঠিকাদারদের ওপর হামলার অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগ কর্মী মো. ইব্রাহিমের বিরুদ্ধে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি শান্ত করে। মঙ্গলবার দুপুরের দিকে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণেই দুই ঠিকাদারের ওপর হামলার অভিযোগ পাওয়া যায়।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের তিনটি বিকল ও বিনষ্ট গাড়ির বর্জ্যাংশ এবং ভবন মেরামত পরবর্তী ব্যবহার অনুপযোগী মালামাল নিলাম প্রক্রিয়ার ঘোষণা দেয় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) প্রশান্ত কুমার দাসের সামনেই নিলাম প্রক্রিয়া চলার সময় ঠিকাদার মো. মনির ও বজলুর রহমান বাঘার ওপর হামলা চালায় ছাত্রলীগ কর্মী ইব্রাহিম ও ঠিকাদার রশিদ মুন্সী। এতে দুইজনই আহত হন।

আহত ঠিকাদাররা জানান, আমরা নিলামে অংশগ্রহণ করায় গুচ্ছ প্রক্রিয়া ভেঙে যাওয়াতে ভাণ্ডারি এন্টারপ্রাইজের পক্ষে অংশ নেয়া রশিদ মুন্সী ও ছাত্রলীগ কর্মী মো. ইব্রাহিম আমাদের ওপর হামলা চালায়। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকের সামনেই এ ঘটনা ঘটলেও তিনি এর কোনো প্রতিকার করেননি। কাউকে আটকের নির্দেশও দেননি। সরকারি কাজে বাধা দেয়ার পরেও তাদেরই নিলাম দেয়া হয়।

এ প্রসঙ্গে ছাত্রলীগ কর্মী ইব্রাহিম বা রশিদ মুন্সীর কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) প্রশান্ত কুমার দাস জানান, তাদের নিজেদের মধ্যেই উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছিল। পরে শান্ত করা হয় পরিস্থিতি। নিলাম প্রক্রিয়া সঠিকভাবেই সম্পন্ন হয়েছে এবং সরকারি মূল্যের থেকে অধিক মূল্যে নিলাম হয়েছে।

নিলামের সময় ঠিকাদারের ওপর ছাত্রলীগের হামলা

 বরিশাল ব্যুরো 
২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:০১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বরিশাল সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে নিলাম প্রক্রিয়ায় ঠিকাদারদের ওপর হামলার অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগ কর্মী মো. ইব্রাহিমের বিরুদ্ধে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি শান্ত করে। মঙ্গলবার দুপুরের দিকে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণেই দুই ঠিকাদারের ওপর হামলার অভিযোগ পাওয়া যায়।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের তিনটি বিকল ও বিনষ্ট গাড়ির বর্জ্যাংশ এবং ভবন মেরামত পরবর্তী ব্যবহার অনুপযোগী মালামাল নিলাম প্রক্রিয়ার ঘোষণা দেয় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) প্রশান্ত কুমার দাসের সামনেই নিলাম প্রক্রিয়া চলার সময় ঠিকাদার মো. মনির ও বজলুর রহমান বাঘার ওপর হামলা চালায় ছাত্রলীগ কর্মী ইব্রাহিম ও ঠিকাদার রশিদ মুন্সী। এতে দুইজনই আহত হন।

আহত ঠিকাদাররা জানান, আমরা নিলামে অংশগ্রহণ করায় গুচ্ছ প্রক্রিয়া ভেঙে যাওয়াতে ভাণ্ডারি এন্টারপ্রাইজের পক্ষে অংশ নেয়া রশিদ মুন্সী ও ছাত্রলীগ কর্মী মো. ইব্রাহিম আমাদের ওপর হামলা চালায়। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকের সামনেই এ ঘটনা ঘটলেও তিনি এর কোনো প্রতিকার করেননি। কাউকে আটকের নির্দেশও দেননি। সরকারি কাজে বাধা দেয়ার পরেও তাদেরই নিলাম দেয়া হয়।

এ প্রসঙ্গে ছাত্রলীগ কর্মী ইব্রাহিম বা রশিদ মুন্সীর কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) প্রশান্ত কুমার দাস জানান, তাদের নিজেদের মধ্যেই উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছিল। পরে শান্ত করা হয় পরিস্থিতি। নিলাম প্রক্রিয়া সঠিকভাবেই সম্পন্ন হয়েছে এবং সরকারি মূল্যের থেকে অধিক মূল্যে নিলাম হয়েছে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন