এমসি কলেজে গণধর্ষণ: ছাত্রলীগ নেতা মাসুমও ৫ দিনের রিমান্ডে
jugantor
এমসি কলেজে গণধর্ষণ: ছাত্রলীগ নেতা মাসুমও ৫ দিনের রিমান্ডে

  সিলেট ব্যুরো  

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৩:২৪:৪৩  |  অনলাইন সংস্করণ

এমসি কলেজে গণধর্ষণ: ছাত্রলীগ নেতা মাসুমও ৫ দিনের রিমান্ডে

সিলেটের এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে নববধূ গণধর্ষণ মামলার এজাহার নামীয় ৬নং আসামি ছাত্রলীগ নেতা মাহফুজুর রহমান মাসুমের ৫ দিন রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

বুধবার দুপুর ১২টায় সিলেটের চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক আবুল কাশেম তাদের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে কড়া নিরাপত্তায় মাহফুজকে আদালতে হাজির করা হয়। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও শাহপরাণ থানার এসআই ইন্দ্রনীল ভট্টাচার্য আসামিদের ৭ দিন করে রিমান্ডের আবেদন করেন।

শুনানি শেষে আদালত আসামির ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এ সময় আসামিদের পক্ষে আদালতে কোনো আইনজীবী ছিলেন না।

যুগান্তরকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের এপিপি সৈয়দ শামীম আহমদ।

প্রসঙ্গত গত শুক্রবার এমসি কলেজে স্বামীর সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার হন ওই নববধূ। রাত সাড়ে ৮টার দিকে স্বামীর কাছ থেকে ওই গৃহবধূকে জোর করে তুলে নিয়ে ছাত্রাবাসে ধর্ষণ করেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এ সময় কলেজের সামনে তার স্বামীকে বেঁধে রাখা হয়।

এ ঘটনায় ভিকটিমের স্বামী বাদী হয়ে শাহপরাণ থানায় মামলা করেন। মামলায় ছাত্রলীগের ছয় নেতাকর্মীসহ অজ্ঞাত আরও তিনজনকে আসামি করা হয়।

এ পর্যন্ত মামলার ছয়জন এজাহারভুক্ত আসামিসহ ৮ জন গ্রেফতার হয়েছেন। এর মধ্যে সাতজনকেই পাঁচদিন করে রিমান্ডে নেয়া হয়েছে। মামলার দ্বিতীয় আসামি তারেককে বিকেলে আদালতে উঠানো হবে।

এমসি কলেজে গণধর্ষণ: ছাত্রলীগ নেতা মাসুমও ৫ দিনের রিমান্ডে

 সিলেট ব্যুরো 
৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০১:২৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
এমসি কলেজে গণধর্ষণ: ছাত্রলীগ নেতা মাসুমও ৫ দিনের রিমান্ডে
ছবি: যুগান্তর

সিলেটের এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে নববধূ গণধর্ষণ মামলার এজাহার নামীয় ৬নং আসামি ছাত্রলীগ নেতা মাহফুজুর রহমান মাসুমের ৫ দিন রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

বুধবার দুপুর ১২টায় সিলেটের চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক আবুল কাশেম তাদের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে কড়া নিরাপত্তায় মাহফুজকে আদালতে হাজির করা হয়। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও শাহপরাণ থানার এসআই ইন্দ্রনীল ভট্টাচার্য আসামিদের ৭ দিন করে রিমান্ডের আবেদন করেন।

শুনানি শেষে আদালত আসামির ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এ সময় আসামিদের পক্ষে আদালতে কোনো আইনজীবী ছিলেন না।

যুগান্তরকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের এপিপি সৈয়দ শামীম আহমদ।

প্রসঙ্গত গত শুক্রবার এমসি কলেজে স্বামীর সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার হন ওই নববধূ। রাত সাড়ে ৮টার দিকে স্বামীর কাছ থেকে ওই গৃহবধূকে জোর করে তুলে নিয়ে ছাত্রাবাসে ধর্ষণ করেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এ সময় কলেজের সামনে তার স্বামীকে বেঁধে রাখা হয়।

এ ঘটনায় ভিকটিমের স্বামী বাদী হয়ে শাহপরাণ থানায় মামলা করেন। মামলায় ছাত্রলীগের ছয় নেতাকর্মীসহ অজ্ঞাত আরও তিনজনকে আসামি করা হয়।

এ পর্যন্ত মামলার ছয়জন এজাহারভুক্ত আসামিসহ ৮ জন গ্রেফতার হয়েছেন। এর মধ্যে সাতজনকেই পাঁচদিন করে রিমান্ডে নেয়া হয়েছে। মামলার দ্বিতীয় আসামি তারেককে বিকেলে আদালতে উঠানো হবে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন