ডিশ লাইনের তার কাটায় পল্লী বিদ্যুতের দুই লাইনম্যানকে মারধর
jugantor
ডিশ লাইনের তার কাটায় পল্লী বিদ্যুতের দুই লাইনম্যানকে মারধর

  আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি  

০১ অক্টোবর ২০২০, ১৮:২৩:০৭  |  অনলাইন সংস্করণ

বরগুনা

বিদ্যুতের খুঁটিতে পেঁচানো ডিশ লাইনের তার কেটে দেয়ায় আমতলী পল্লী বিদ্যুতের লাইনম্যান মো. জাকির হোসেন ও রতনকে গাজীপুর বন্দরের ডিস ব্যবসায়ী মো. মনির উদ্দিন ফরহাদ মাদবর ও তার ভাই জহির মাদবর মারধর করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। পুলিশ ও পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের লোকজন তাদের উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দিয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে আঠারোগাছিয়া ইউনিয়নের বড়ইতলা নামক স্থানে।
জানা গেছে, আমতলী উপজেলার গাজীপুর বন্দরের মন্দিরে বুধবার সন্ধ্যায় পল্লী বিদ্যুতের লাইনম্যান মো. জাকির হোসেন ও রতন বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে যান। ওই মন্দিরে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়ার জন্য মুক্তিযোদ্ধা মতলেব মৃধার দোকানের সামনের খুঁটি থেকে সংযোগ দিচ্ছিলেন লাইনম্যান। ওই খুঁটিতে ডিশ লাইনের তার পেঁচানো ছিল। লাইনম্যান জাকিরের পায়ের জুতার লোহার গ্যাবে ওই ডিশ লাইনের তার কেটে যায়। ফলে ডিশ সংযোগ বন্ধ হয়ে যায়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ডিশ ব্যবসায়ী মনির উদ্দিন ফরহাদ মাদবর ও তার ভাই জহির মারধর করে।


খবর পেয়ে পুলিশ ও পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের লোকজন ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের উদ্ধার করেন। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ডিশ ব্যবসায়ী মনির ও তার সহযোগীরা পালিয়ে যায়। ওই রাতেই লাইনম্যান জাকির ও রতনকে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়।

ডিশ ব্যবসায়ী মনির উদ্দিন ফরহাদ মাদবরের বড় বোন মোসা. বিলকিস বেগম বলেন, অনুমতি ছাড়া বিদ্যুতের খুঁটি থেকে ডিশলাইন কেটে দেয় লাইনম্যান। এতে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে মনির লাইনম্যানকে থাপ্পড় মেরেছে। তিনি আরও বলেন, এ ঘটনায় বিদ্যুতের লোকজন এসে মনিরের ডিশলাইনের কন্টোল রুমের বিদ্যুৎ সংযোগসহ আমাদের চারটি লাইন কেটে দিয়েছে।

আমতলী পল্লী বিদ্যুতের সহকারী প্রকৌশলী মো. জিয়া উদ্দিন তরফদার বলেন, বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে গিয়ে লাইনম্যান জাকির ও রতন ডিশ ব্যবসায়ীর হামলার স্বীকার হয়েছে।
পটুয়াখালী পল্লী বিদ্যুতের ডিজিএম (কারিগরি) প্রকৌশলী এমএ সাইদ বলেন, সরকারি কাজ করতে গিয়ে হামলার শিকার হওয়া অত্যন্ত গর্হিত কাজ। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।
আমতলী থানার ওসি মো. শাহ আলম হাওলাদার বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে পল্লী বিদ্যুতের দুই লাইনম্যানকে উদ্ধার করেছি। এ বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছি। তদন্তসাপেক্ষে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডিশ লাইনের তার কাটায় পল্লী বিদ্যুতের দুই লাইনম্যানকে মারধর

 আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি 
০১ অক্টোবর ২০২০, ০৬:২৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
বরগুনা
বরগুনা

বিদ্যুতের খুঁটিতে পেঁচানো ডিশ লাইনের তার কেটে দেয়ায় আমতলী পল্লী বিদ্যুতের লাইনম্যান মো. জাকির হোসেন ও রতনকে গাজীপুর বন্দরের ডিস ব্যবসায়ী মো. মনির উদ্দিন ফরহাদ মাদবর ও তার ভাই জহির মাদবর মারধর করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। পুলিশ ও পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের লোকজন তাদের উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দিয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে আঠারোগাছিয়া ইউনিয়নের বড়ইতলা নামক স্থানে। 
জানা গেছে, আমতলী উপজেলার গাজীপুর বন্দরের মন্দিরে বুধবার সন্ধ্যায় পল্লী বিদ্যুতের লাইনম্যান মো. জাকির হোসেন ও রতন বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে যান। ওই মন্দিরে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়ার জন্য মুক্তিযোদ্ধা মতলেব মৃধার দোকানের সামনের খুঁটি থেকে সংযোগ দিচ্ছিলেন লাইনম্যান। ওই খুঁটিতে ডিশ লাইনের তার পেঁচানো ছিল। লাইনম্যান জাকিরের পায়ের জুতার লোহার গ্যাবে ওই ডিশ লাইনের তার কেটে যায়। ফলে ডিশ সংযোগ বন্ধ হয়ে যায়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ডিশ ব্যবসায়ী মনির উদ্দিন ফরহাদ মাদবর ও তার ভাই জহির মারধর করে। 


খবর পেয়ে পুলিশ ও পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের লোকজন ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের উদ্ধার করেন। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ডিশ ব্যবসায়ী মনির ও তার সহযোগীরা পালিয়ে যায়। ওই রাতেই লাইনম্যান জাকির ও রতনকে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়।

ডিশ ব্যবসায়ী মনির উদ্দিন ফরহাদ মাদবরের বড় বোন মোসা. বিলকিস বেগম বলেন, অনুমতি ছাড়া বিদ্যুতের খুঁটি থেকে ডিশলাইন কেটে দেয় লাইনম্যান। এতে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে মনির লাইনম্যানকে থাপ্পড় মেরেছে। তিনি আরও বলেন, এ ঘটনায় বিদ্যুতের লোকজন এসে মনিরের ডিশলাইনের কন্টোল রুমের বিদ্যুৎ সংযোগসহ আমাদের চারটি লাইন কেটে দিয়েছে।

আমতলী পল্লী বিদ্যুতের সহকারী প্রকৌশলী মো. জিয়া উদ্দিন তরফদার বলেন, বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে গিয়ে লাইনম্যান জাকির ও রতন ডিশ ব্যবসায়ীর হামলার স্বীকার হয়েছে।
পটুয়াখালী পল্লী বিদ্যুতের ডিজিএম (কারিগরি) প্রকৌশলী এমএ সাইদ বলেন, সরকারি কাজ করতে গিয়ে হামলার শিকার হওয়া অত্যন্ত গর্হিত কাজ। এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।
আমতলী থানার ওসি মো. শাহ আলম হাওলাদার বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে পল্লী বিদ্যুতের দুই লাইনম্যানকে উদ্ধার করেছি। এ বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছি। তদন্তসাপেক্ষে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
 

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন