পরকীয়ার জেরে প্রকাশ্যে স্ত্রীর পায়ের রগ কেটে দিল স্বামী
jugantor
পরকীয়ার জেরে প্রকাশ্যে স্ত্রীর পায়ের রগ কেটে দিল স্বামী

  বানারীপাড়া (বরিশাল) প্রতিনিধি  

০৪ অক্টোবর ২০২০, ২০:৩৯:৩৫  |  অনলাইন সংস্করণ

বরিশালের বানারীপাড়ায় পরকীয়ার জের ধরে স্ত্রী হ্যাপী খানমের বাঁ পায়ের রগ কেটে দিয়েছে তার স্বামী রাসেল বালী। শনিবার সকাল ৯টায় পৌর শহরের সরকারি পাইলট ইউনিয়ন ইন্সটিটিউশন সংলগ্ন ৬নং ওয়ার্ডের বালীবাড়ির সামনের সড়কে প্রকাশ্যে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় গত দুই দিনেও থানায় কোনো অভিযোগ দায়ের করা হয়নি বলে জানিয়েছে পুলিশ। অপরদিকে ঘটনার পর থেকেই হ্যাপীর স্বামী রাসেল এলাকা ছেড়ে পালিয়েছে।

এ ব্যাপারে পারিবারিক ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার সৈয়দকাঠী ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের হাওরাবাড়ির ধান-চালের ব্যবসায়ী মো. রাসেল বালী (৩৫) প্রায় ১১ বছর পূর্বে পার্শ্ববর্তী এলাকার মো. রাজ্জাক হাওলাদারের মেয়ে হ্যাপী খানমকে (২৭) বিয়ে করেন। দাম্পত্য জীবনে তাদের সংসারে রাতুল (৯) ও রিমি নামে সাড়ে ৩ বছরের দুটি শিশুসন্তান রয়েছে। বিয়ের পর তাদের সংসার বেশ ভালোভাবেই চলে আসছিল।

সম্প্রতি তাদের সুখের সংসারে নেমে আসে একে-অপরের বিরুদ্ধে পরকীয়ার সন্দেহ। এ নিয়ে প্রায়ই তাদের দুজনের মধ্যে কথাকাটাকাটি ও ঝগড়া হয়ে আসছিল। এরই ধারাবাহিকতায় শনিবার সকাল ৯টায় হ্যাপী খানম শারীরিক অসুস্থতার কারণে বাড়ি থেকে বানারীপাড়া উপজেলা ৫০ শয্যা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডাক্তার দেখাতে যাচ্ছিলেন। পৌর শহরের সরকারি পাইলট ইউনিয়ন ইন্সটিটিউশন স্কুল সংলগ্ন ৬নং ওয়ার্ডের বালীবাড়ির সামনের সড়কে তার স্বামী রাসেল বালী রিকশার গতিরোধ করে তাকে টেনেহিঁচড়ে নামিয়ে মারধর করার পাশাপাশি ধারালো চাকু দিয়ে বাঁ পায়ের রগ কেটে দেয়।

এ সময় তার চিৎকারে পথচারীরা এগিয়ে এলে রাসেল সেখান থেকে মুহূর্তের মধ্যে অন্যত্র সটকে পড়ে। এ সময় স্থানীয় ও পথচারীরা হ্যাপীকে উপজেলা ৫০ শয্যা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে রেফার করেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. কবির হাসান যুগান্তরকে জানান, ধারালো অস্ত্রের আঘাতে হ্যাপী খানমের বাঁ পায়ের রগ কেটে গেছে। আমরা তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে রেফার করেছি।
অপরদিকে হ্যাপীর পরিবার যুগান্তরকে অভিযোগ করে, বিয়ের ১১ বছর পর হ্যাপীর স্বামী রাসেল তাদের কাছে নতুন করে ৩ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে আসছিল। এ নিয়ে গত কয়েক দিন ধরে তাদের স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়াঝাটি হয়ে আসছিল। যৌতুকের টাকা না পেয়ে হ্যাপীর পায়ের রগ কেটে দিয়েছে রাসেল। পরকীয়ার বিষয়টি অস্বীকার করে তারা।

তবে পরকীয়ার জের ধরে স্ত্রী হ্যাপী খানমের বাঁ পায়ের রগ কেটে দিয়েছে বলে ফোনে রাসেল স্থানীয় সংবাদকর্মীদের জানায়।

হ্যাপীর পায়ের রগ কেটে দেয়ার ওই ঘটনায় রোববার বিকাল পর্যন্ত থানায় কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি বলে ওসি হেলাল উদ্দিন ও পরিদর্শক (তদন্ত) মো. জাফর আহম্মেদ যুগান্তরকে জানান। তারা আরও জানান, এ ব্যাপারে অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

পরকীয়ার জেরে প্রকাশ্যে স্ত্রীর পায়ের রগ কেটে দিল স্বামী

 বানারীপাড়া (বরিশাল) প্রতিনিধি 
০৪ অক্টোবর ২০২০, ০৮:৩৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বরিশালের বানারীপাড়ায় পরকীয়ার জের ধরে স্ত্রী হ্যাপী খানমের বাঁ পায়ের রগ কেটে দিয়েছে তার স্বামী রাসেল বালী। শনিবার সকাল ৯টায় পৌর শহরের সরকারি পাইলট ইউনিয়ন ইন্সটিটিউশন সংলগ্ন ৬নং ওয়ার্ডের বালীবাড়ির সামনের সড়কে প্রকাশ্যে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় গত দুই দিনেও থানায় কোনো অভিযোগ দায়ের করা হয়নি বলে জানিয়েছে পুলিশ। অপরদিকে ঘটনার পর থেকেই হ্যাপীর স্বামী রাসেল এলাকা ছেড়ে পালিয়েছে।

এ ব্যাপারে পারিবারিক ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার সৈয়দকাঠী ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের হাওরাবাড়ির ধান-চালের ব্যবসায়ী মো. রাসেল বালী (৩৫) প্রায় ১১ বছর পূর্বে পার্শ্ববর্তী এলাকার মো. রাজ্জাক হাওলাদারের মেয়ে হ্যাপী খানমকে (২৭) বিয়ে করেন। দাম্পত্য জীবনে তাদের সংসারে রাতুল (৯) ও রিমি নামে সাড়ে ৩ বছরের দুটি শিশুসন্তান রয়েছে। বিয়ের পর তাদের সংসার বেশ ভালোভাবেই চলে আসছিল।

সম্প্রতি তাদের সুখের সংসারে নেমে আসে একে-অপরের বিরুদ্ধে পরকীয়ার সন্দেহ। এ নিয়ে প্রায়ই তাদের দুজনের মধ্যে কথাকাটাকাটি ও ঝগড়া হয়ে আসছিল। এরই ধারাবাহিকতায় শনিবার সকাল ৯টায় হ্যাপী খানম শারীরিক অসুস্থতার কারণে বাড়ি থেকে বানারীপাড়া উপজেলা ৫০ শয্যা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডাক্তার দেখাতে যাচ্ছিলেন। পৌর শহরের সরকারি পাইলট ইউনিয়ন ইন্সটিটিউশন স্কুল সংলগ্ন ৬নং ওয়ার্ডের বালীবাড়ির সামনের সড়কে তার স্বামী রাসেল বালী রিকশার গতিরোধ করে তাকে টেনেহিঁচড়ে নামিয়ে মারধর করার পাশাপাশি ধারালো চাকু দিয়ে বাঁ পায়ের রগ কেটে দেয়।

এ সময় তার চিৎকারে পথচারীরা এগিয়ে এলে রাসেল সেখান থেকে মুহূর্তের মধ্যে অন্যত্র সটকে পড়ে। এ সময় স্থানীয় ও পথচারীরা হ্যাপীকে উপজেলা ৫০ শয্যা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে রেফার করেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. কবির হাসান যুগান্তরকে জানান, ধারালো অস্ত্রের আঘাতে হ্যাপী খানমের বাঁ পায়ের রগ কেটে গেছে। আমরা তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে রেফার করেছি।
অপরদিকে হ্যাপীর পরিবার যুগান্তরকে অভিযোগ করে, বিয়ের ১১ বছর পর হ্যাপীর স্বামী রাসেল তাদের কাছে নতুন করে ৩ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে আসছিল। এ নিয়ে গত কয়েক দিন ধরে তাদের স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়াঝাটি হয়ে আসছিল। যৌতুকের টাকা না পেয়ে হ্যাপীর পায়ের রগ কেটে দিয়েছে রাসেল। পরকীয়ার বিষয়টি অস্বীকার করে তারা।

তবে পরকীয়ার জের ধরে স্ত্রী হ্যাপী খানমের বাঁ পায়ের রগ কেটে দিয়েছে বলে ফোনে রাসেল স্থানীয় সংবাদকর্মীদের জানায়।

হ্যাপীর পায়ের রগ কেটে দেয়ার ওই ঘটনায় রোববার বিকাল পর্যন্ত থানায় কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি বলে ওসি হেলাল উদ্দিন ও পরিদর্শক (তদন্ত) মো. জাফর আহম্মেদ যুগান্তরকে জানান। তারা আরও জানান, এ ব্যাপারে অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন