কালকিনিতে বাড়িতে একা পেয়ে গৃহবধূকে পিটিয়ে জখম
jugantor
কালকিনিতে বাড়িতে একা পেয়ে গৃহবধূকে পিটিয়ে জখম

  কালকিনি (মাদারীপুর) প্রতিনিধি  

০৫ অক্টোবর ২০২০, ২২:২১:৪৪  |  অনলাইন সংস্করণ

মাদারীপুর

বিভিন্ন প্রজাতির চারাগাছ ভাঙ্গার প্রতিবাদ করায় মাদারীপুরের কালকিনিতে বাড়িতে একা পেয়ে হোসনেয়ারা বেগম (৪০) নামে এক গৃহবধূকে রড দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর জখম করেছে প্রতিপক্ষ।

আহত গৃহবধূকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ হামলার ঘটনায় আজ সোমবার সকালে ভুক্তভোগীর পরিবারের পক্ষ থেকে মাদারীপুর কোর্টে একটি মামলার প্রস্তুতি চলছে।

ভুক্তভোগী পরিবারের অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার সাহেবরামপুর এলাকার আন্ডারচর গ্রামের মিরাজুল হাওলাদারের স্ত্রী হোসনেয়ারা বেগম তার স্বামীর অনুপস্থিতিতে একা বাড়িতে থাকেন। জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে হোসনেয়ারার লাগানো বেশ কিছু গাছের চারা ভেঙ্গে ফেলেন একই এলাকার সিদ্দিকুর রহমান।

এ ঘটনার প্রতিবাদ করায় সিদ্দিকুর রহমানের নেতৃত্বে মনির ও মামুন হাওলাদারসহ বেশ কয়েকজন মিলে হোসনেয়ারা বেগমের ঘরে ঢুকে তাকে রড দিয়ে বেদম পিটিয়ে জখম করে ফেলে রাখে।

এ সময় ঘরের বিভিন্ন জিনিসপত্র লুট করে নিয়ে যায় সিদ্দিকুর ও তার লোকজন। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে কালকিনি হাসপাতালে ভর্তি করেন।

আহতের স্বামী মিরাজুল হাওলাদার বলেন, আমি ঢাকায় থাকি আর আমার স্ত্রী একা বাড়িতে থাকেন। সেই সুবাদে সিদ্দিকুর তার লোকজন নিয়ে আমার স্ত্রীকে পিটিয়ে জখম করেছে।

অভিযুক্ত সিদ্দিকুর রহমান বলেন, আমরা তার গাছ ভাঙিনি। সে মিথ্যা অভিযোগ করেছে।

এ ব্যাপারে কালকিনি থানার ওসি মো. নাছিরউদ্দিন মৃধা বলেন, বিষয়টি আমি জেনেছি। তবে উভয়পক্ষকে ইউপি চেয়ারম্যান আপস-মীমাংসা করে দেবেন বলে জেনেছি।

কালকিনিতে বাড়িতে একা পেয়ে গৃহবধূকে পিটিয়ে জখম

 কালকিনি (মাদারীপুর) প্রতিনিধি 
০৫ অক্টোবর ২০২০, ১০:২১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মাদারীপুর
মাদারীপুর

বিভিন্ন প্রজাতির চারাগাছ ভাঙ্গার প্রতিবাদ করায় মাদারীপুরের কালকিনিতে বাড়িতে একা পেয়ে হোসনেয়ারা বেগম (৪০) নামে এক গৃহবধূকে রড দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর জখম করেছে প্রতিপক্ষ। 

আহত গৃহবধূকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ হামলার ঘটনায় আজ সোমবার সকালে ভুক্তভোগীর পরিবারের পক্ষ থেকে মাদারীপুর কোর্টে একটি মামলার প্রস্তুতি চলছে।

ভুক্তভোগী পরিবারের অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার সাহেবরামপুর এলাকার আন্ডারচর গ্রামের মিরাজুল হাওলাদারের স্ত্রী হোসনেয়ারা বেগম তার স্বামীর অনুপস্থিতিতে একা বাড়িতে থাকেন। জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে হোসনেয়ারার লাগানো বেশ কিছু গাছের চারা ভেঙ্গে ফেলেন একই এলাকার সিদ্দিকুর রহমান।

এ ঘটনার প্রতিবাদ করায় সিদ্দিকুর রহমানের নেতৃত্বে মনির ও মামুন হাওলাদারসহ বেশ কয়েকজন মিলে হোসনেয়ারা বেগমের ঘরে ঢুকে তাকে রড দিয়ে বেদম পিটিয়ে জখম করে ফেলে রাখে।

এ সময় ঘরের বিভিন্ন জিনিসপত্র  লুট করে নিয়ে যায় সিদ্দিকুর ও তার লোকজন। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে কালকিনি হাসপাতালে ভর্তি করেন।

আহতের স্বামী মিরাজুল হাওলাদার বলেন, আমি ঢাকায় থাকি আর আমার স্ত্রী একা বাড়িতে থাকেন। সেই সুবাদে সিদ্দিকুর তার লোকজন নিয়ে আমার স্ত্রীকে পিটিয়ে জখম করেছে। 

অভিযুক্ত সিদ্দিকুর রহমান বলেন, আমরা তার গাছ ভাঙিনি। সে মিথ্যা অভিযোগ করেছে।

এ ব্যাপারে কালকিনি থানার ওসি মো. নাছিরউদ্দিন মৃধা বলেন, বিষয়টি আমি জেনেছি। তবে উভয়পক্ষকে ইউপি চেয়ারম্যান আপস-মীমাংসা  করে দেবেন বলে জেনেছি।
 

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন