মোবাইলে ডেকে নিয়ে স্কুলছাত্রকে হত্যার পর লাশ ফেলল নদীতে
jugantor
মোবাইলে ডেকে নিয়ে স্কুলছাত্রকে হত্যার পর লাশ ফেলল নদীতে

  ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি  

১১ অক্টোবর ২০২০, ১৫:১৩:৪১  |  অনলাইন সংস্করণ

মোবাইলে ডেকে নিয়ে স্কুলছাত্রকে হত্যার পর লাশ ফেলল নদীতে

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলায় মোবাইল ফোনে ডেকে নিয়ে স্কুলছাত্রকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

রোববার ভোরে উপজেলার মরিচারচর গ্রামে ব্রহ্মপুত্র নদীর থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ওই ছাত্রকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে মরদেহ নদীতে ফেলে রাখা হয়েছে বলে জানান স্থানীয়রা।

নিহতের নাম পারভেজ। সে মরিচারচর উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির ছাত্র। সে মরিচারচর উত্তরপাড়ার মঞ্জুরুল হকের ছেলে। মঞ্জুরুল হক তিন বছর ধরে মালয়েশিয়ায় চাকরি করেন।

নিহত পারভেজের মা রুজিনা বলেন, গত শুক্রবার রাত ৮টার দিকে মোবাইলে ফোন পেয়ে পারভেজ বাইরে যেতে চায়। এ সময় মা ছেলেকে যেতে নিষেধ করেন। পরে দোকানে যাওয়ার কথা বলে নিজের ও মায়ের মোবাইল নিয়ে ঘর থেকে বেরিয়ে যায়।
এর পর থেকে পরিবারের লোকজন পারভেজের কোনো সন্ধান পাচ্ছিল না।

এর পর রোববার ভোরে স্থানীয় এলাকাবাসী নিখোঁজ পারভেজের বাড়ি থেকে প্রায় দুই কিলোমিটার দূরে মরিচারচর গ্রামে ব্রহ্মপুত্র নদীতে একটি তালগাছে মরদেহ আটকা অবস্থায় দেখতে পায়।

পরে পরিবারের লোকজন মরদেহটি দেখে পারভেজ বলে শনাক্ত করেন।

পরে ৯৯৯-এ ফোন করে ঈশ্বরগঞ্জ থানায় খবর দেয়া হয়।

এ বিষয়ে ঈশ্বরগঞ্জ থানার ওসি মোখলেছুর রহমান আকন্দ জানান, নিহত পারভেজের গলায় ছুরিকাঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, তাকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে মরদেহ নদীতে ফেলে রাখা হয়।

মোবাইলে ডেকে নিয়ে স্কুলছাত্রকে হত্যার পর লাশ ফেলল নদীতে

 ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি 
১১ অক্টোবর ২০২০, ০৩:১৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মোবাইলে ডেকে নিয়ে স্কুলছাত্রকে হত্যার পর লাশ ফেলল নদীতে
ছবি: যুগান্তর

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলায় মোবাইল ফোনে ডেকে নিয়ে স্কুলছাত্রকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

রোববার ভোরে উপজেলার মরিচারচর গ্রামে ব্রহ্মপুত্র নদীর থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ওই ছাত্রকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে মরদেহ নদীতে ফেলে রাখা হয়েছে বলে জানান স্থানীয়রা।

নিহতের নাম পারভেজ। সে মরিচারচর উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির ছাত্র। সে মরিচারচর উত্তরপাড়ার মঞ্জুরুল হকের ছেলে। মঞ্জুরুল হক তিন বছর ধরে মালয়েশিয়ায় চাকরি করেন।

নিহত পারভেজের মা রুজিনা বলেন, গত শুক্রবার রাত ৮টার দিকে মোবাইলে ফোন পেয়ে পারভেজ বাইরে যেতে চায়। এ সময় মা ছেলেকে যেতে নিষেধ করেন। পরে দোকানে যাওয়ার কথা বলে নিজের ও মায়ের মোবাইল নিয়ে ঘর থেকে বেরিয়ে যায়।
এর পর থেকে পরিবারের লোকজন পারভেজের কোনো সন্ধান পাচ্ছিল না।

এর পর রোববার ভোরে স্থানীয় এলাকাবাসী নিখোঁজ পারভেজের বাড়ি থেকে প্রায় দুই কিলোমিটার দূরে মরিচারচর গ্রামে ব্রহ্মপুত্র নদীতে একটি তালগাছে মরদেহ আটকা অবস্থায় দেখতে পায়।

পরে পরিবারের লোকজন মরদেহটি দেখে পারভেজ বলে শনাক্ত করেন।

পরে ৯৯৯-এ ফোন করে ঈশ্বরগঞ্জ থানায় খবর দেয়া হয়।

এ বিষয়ে ঈশ্বরগঞ্জ থানার ওসি মোখলেছুর রহমান আকন্দ জানান, নিহত পারভেজের গলায় ছুরিকাঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, তাকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে মরদেহ নদীতে ফেলে রাখা হয়।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন