খুনের হুমকি দিয়ে শ্রীপুরে পোশাক শ্রমিককে গণধর্ষণ, গ্রেফতার ১
jugantor
খুনের হুমকি দিয়ে শ্রীপুরে পোশাক শ্রমিককে গণধর্ষণ, গ্রেফতার ১

  শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি  

১২ অক্টোবর ২০২০, ১৮:৩৭:৫২  |  অনলাইন সংস্করণ

গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার মাওনা ইউনিয়নের চকপাড়া এলাকায় এক পোশাক শ্রমিক (২৫) গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন। এ ঘটনায় অভিযুক্ত আশরাফুল আলমকে (২২) পুলিশ গ্রেফতার করেছে। রোববার রাতে নিজ ঘরে ধর্ষণের শিকার হন ওই তরুণী।

আশরাফুল আলম ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা উপজেলার মল্লিকবাড়ী এলাকার তকুমুদ্দিনের ছেলে। অপর অভিযুক্ত জাহাঙ্গীর আলম (৩৩) দিনাজপুর জেলার খানসামা উপজেলার গোয়ালডিহি গ্রামের আবদুল খালেকের ছেলে। অভিযুক্তরা শ্রীপুরের চকপাড়া এলাকার হাজী আবদুস ছাত্তারের বাড়ির ভাড়াটিয়া।

জানা গেছে, ভিকটিম চকপাড়া এলাকার একটি পোশাক কারখানার সহকারী অপারেটর (হেলপার) পদে চাকরি করেন। অভিযুক্তরা ওই শ্রমিককে নানা সময় উত্ত্যক্ত করত। অভিযুক্ত আশরাফুল আলম ভিকটিমের পাশের কক্ষের ভাড়াটিয়া। রোববার রাত সাড়ে ১২টার দিকে ওয়াশ রুমের ওপর দিয়ে গ্রিল টপকিয়ে আশরাফুল ওই তরুণীর ঘরে ঢুকে। পরে দরজা খুলে দিলে অপর অভিযুক্ত জাহাঙ্গীর আলমও ঘরে ঢুকে।

তারা ঘুমন্ত তরুণীর মুখ চেপে ধরে। ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে খুন জখমের হুমকি দিয়ে উপর্যুপরি ধর্ষণ করে। পরে ঘটনা গোপন রাখার হুমকি দিয়ে রাত সাড়ে ৩টার দিকে অভিযুক্তরা বেরিয়ে যায়। ভোরেই বাড়ির অন্যান্য ভাড়াটিয়া ও স্থানীয়দের জানানো হলে তারা আশরাফুল আলমকে আটক করে। তবে জাহাঙ্গীর আলম পালিয়ে যায়।

শ্রীপুর থানার ওসি খোন্দকার ইমাম হোসেন জানান, অভিযুক্ত আশরাফুল আলমকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মামলার পর ওই তরুণীর স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

খুনের হুমকি দিয়ে শ্রীপুরে পোশাক শ্রমিককে গণধর্ষণ, গ্রেফতার ১

 শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি 
১২ অক্টোবর ২০২০, ০৬:৩৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার মাওনা ইউনিয়নের চকপাড়া এলাকায় এক পোশাক শ্রমিক (২৫) গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন। এ ঘটনায় অভিযুক্ত আশরাফুল আলমকে (২২) পুলিশ গ্রেফতার করেছে। রোববার রাতে নিজ ঘরে ধর্ষণের শিকার হন ওই তরুণী।

আশরাফুল আলম  ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা উপজেলার মল্লিকবাড়ী এলাকার তকুমুদ্দিনের ছেলে। অপর অভিযুক্ত জাহাঙ্গীর আলম (৩৩) দিনাজপুর জেলার খানসামা উপজেলার গোয়ালডিহি গ্রামের আবদুল খালেকের ছেলে। অভিযুক্তরা শ্রীপুরের চকপাড়া এলাকার হাজী আবদুস ছাত্তারের বাড়ির ভাড়াটিয়া।

জানা গেছে, ভিকটিম চকপাড়া এলাকার একটি পোশাক কারখানার সহকারী অপারেটর (হেলপার) পদে চাকরি করেন। অভিযুক্তরা ওই শ্রমিককে নানা সময় উত্ত্যক্ত করত। অভিযুক্ত আশরাফুল আলম ভিকটিমের পাশের কক্ষের ভাড়াটিয়া। রোববার রাত সাড়ে ১২টার দিকে ওয়াশ রুমের ওপর দিয়ে গ্রিল টপকিয়ে আশরাফুল ওই তরুণীর ঘরে ঢুকে। পরে দরজা খুলে দিলে অপর অভিযুক্ত জাহাঙ্গীর আলমও  ঘরে ঢুকে।

তারা ঘুমন্ত তরুণীর মুখ চেপে ধরে। ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে খুন জখমের হুমকি দিয়ে উপর্যুপরি ধর্ষণ করে। পরে ঘটনা গোপন রাখার হুমকি দিয়ে রাত সাড়ে ৩টার দিকে অভিযুক্তরা বেরিয়ে যায়। ভোরেই বাড়ির অন্যান্য ভাড়াটিয়া ও স্থানীয়দের জানানো হলে তারা আশরাফুল আলমকে আটক করে। তবে জাহাঙ্গীর আলম পালিয়ে যায়।

শ্রীপুর থানার ওসি খোন্দকার ইমাম হোসেন জানান, অভিযুক্ত আশরাফুল আলমকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মামলার পর ওই তরুণীর স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন