বন্ধুর সঙ্গে দেখা করতে এসে যুবকের মৃত্যু নিয়ে রহস্য
jugantor
বন্ধুর সঙ্গে দেখা করতে এসে যুবকের মৃত্যু নিয়ে রহস্য

  ফতুল্লা (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি  

১৪ অক্টোবর ২০২০, ২০:৩০:৪৪  |  অনলাইন সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় বন্ধুর সঙ্গে দেখা করতে এসে সাজেন নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। তার মৃত্যু নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে।

মঙ্গলবার রাত ১টায় ফতুল্লার ভুইগড় এলাকায় ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের পাশ থেকে সাজেনকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে পথচারীরা শহরের ভিক্টোরিয়া হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত সাজেন (২১) ঢাকার সবুজবাগ থানার ৩৯নং রাজারবাগের জাহাঙ্গীর হোসেনের ছেলে।

ঘটনাস্থলে যাওয়া ফতুল্লা থানার এসআই আরিফ তালুকদার জানান, নিহত সাজেন ঢাকার মোতালেব প্লাজায় তার ভাইয়ের সঙ্গে মোবাইলের দোকানে সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কাজ শেখার পাশাপাশি দোকানে বসত। ঢাকায় থাকার আগে তারা সপরিবারে ফতুল্লার ইসদাইর বুড়ির দোকান এলাকায় বসবাস করত। ইসদাইরে সাজেনের অনেক বন্ধু রয়েছে। প্রায়ই বন্ধুদের সঙ্গে দেখা করতে আসত সাজেন। মঙ্গলবারও বন্ধুদের সঙ্গে দেখা করে বাসায় ফিরছিল বলে জানতে পেরেছি। তবে তার বন্ধুদের নাম-পরিচয় এখনও পাইনি।

তিনি আরও জানান, সাজেনের নিথর দেহ লিংক রোডের ভুইগড় এসবি গার্মেন্টসের সামনে রাস্তায় পড়ে থাকতে দেখে দুইজন পথচারী তাকে উদ্ধার করে শহরের ভিক্টোরিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এসআই আরিফ জানান, খবর পেয়ে হাসপাতালে গিয়ে সুরতহাল তৈরি করেছি। এ সময় দেখেছি নিহতের মাথায় ও গলায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।

বন্ধুর সঙ্গে দেখা করতে এসে যুবকের মৃত্যু নিয়ে রহস্য

 ফতুল্লা (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি 
১৪ অক্টোবর ২০২০, ০৮:৩০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় বন্ধুর সঙ্গে দেখা করতে এসে সাজেন নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। তার মৃত্যু নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে।

মঙ্গলবার রাত ১টায় ফতুল্লার ভুইগড় এলাকায় ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের পাশ থেকে সাজেনকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে পথচারীরা শহরের ভিক্টোরিয়া হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত সাজেন (২১) ঢাকার সবুজবাগ থানার ৩৯নং রাজারবাগের জাহাঙ্গীর হোসেনের ছেলে।

ঘটনাস্থলে যাওয়া ফতুল্লা থানার এসআই আরিফ তালুকদার জানান, নিহত সাজেন ঢাকার মোতালেব প্লাজায় তার ভাইয়ের সঙ্গে মোবাইলের দোকানে সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কাজ শেখার পাশাপাশি দোকানে বসত। ঢাকায় থাকার আগে তারা সপরিবারে ফতুল্লার ইসদাইর বুড়ির দোকান এলাকায় বসবাস করত। ইসদাইরে সাজেনের অনেক বন্ধু রয়েছে। প্রায়ই বন্ধুদের সঙ্গে দেখা করতে আসত সাজেন। মঙ্গলবারও বন্ধুদের সঙ্গে দেখা করে বাসায় ফিরছিল বলে জানতে পেরেছি। তবে তার বন্ধুদের নাম-পরিচয় এখনও পাইনি।

তিনি আরও জানান, সাজেনের নিথর দেহ লিংক রোডের ভুইগড় এসবি গার্মেন্টসের সামনে রাস্তায় পড়ে থাকতে দেখে দুইজন পথচারী তাকে উদ্ধার করে শহরের ভিক্টোরিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এসআই আরিফ জানান, খবর পেয়ে হাসপাতালে গিয়ে সুরতহাল তৈরি করেছি। এ সময় দেখেছি নিহতের মাথায় ও গলায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন