ধর্ষণে জন্ম নেয়া সন্তানের সব দায়িত্ব নেয়ার নির্দেশ
jugantor
ধর্ষণে জন্ম নেয়া সন্তানের সব দায়িত্ব নেয়ার নির্দেশ

  টাঙ্গাইল প্রতিনিধি  

১৪ অক্টোবর ২০২০, ২২:২৬:৩২  |  অনলাইন সংস্করণ

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তরুণীকে ধর্ষণ মামলায় নাজমুল নামে এক যুবককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন টাঙ্গাইলের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল। ধর্ষণের ফলে জন্ম নেয়া কন্যা সন্তান ওই যুবকের পিতৃ পরিচয়েই বড় হবে বলে রায়ে বলা হয়েছে। এছাড়াও জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে তার ভরণপোষণসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার আদেশ দেয়া হয়।

বুধবার দুপুরে টাঙ্গাইল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক খালেদা ইয়াসমীন এ রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডিত নাজমুল নাগরপুর উপজেলার ভাতুরা গ্রামের আজিম উদ্দিনের ছেলে। বর্তমানে সে পলাতক রয়েছে।

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে বিশেষ পিপি নাসিমুল আক্তার জানান, টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে ২০০৮ সনের ৬ ডিসেম্বর রাতে নাজমুল ভূঞাপুর উপজেলার নিকরাইল ইউনিয়নের ৪নং পুনর্বাসন আবাসস্থলে ওই নারীর বসত ঘরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ করে। পরে ওই নারী গর্ভবতী হয়ে পড়েন এবং তার গর্ভে একটি কন্যা সন্তান জন্ম নেয়। পরে ওই নারীকে বিয়ে করবে না বলে জানায় নাজমুল।

এ ঘটনায় ওই নারী টাঙ্গাইল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলা দায়ের করলে সাক্ষ্য প্রমাণ শেষে আদালত এ রায় ঘোষণা করেন।

ধর্ষণে জন্ম নেয়া সন্তানের সব দায়িত্ব নেয়ার নির্দেশ

 টাঙ্গাইল প্রতিনিধি 
১৪ অক্টোবর ২০২০, ১০:২৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তরুণীকে ধর্ষণ মামলায় নাজমুল নামে এক যুবককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন টাঙ্গাইলের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল। ধর্ষণের ফলে জন্ম নেয়া কন্যা সন্তান ওই যুবকের পিতৃ পরিচয়েই বড় হবে বলে রায়ে বলা হয়েছে। এছাড়াও জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে তার ভরণপোষণসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার আদেশ দেয়া হয়।

বুধবার দুপুরে টাঙ্গাইল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক খালেদা ইয়াসমীন এ রায় ঘোষণা করেন। 

দণ্ডিত নাজমুল নাগরপুর উপজেলার ভাতুরা গ্রামের আজিম উদ্দিনের ছেলে। বর্তমানে সে পলাতক রয়েছে।

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে বিশেষ পিপি নাসিমুল আক্তার জানান, টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে ২০০৮ সনের ৬ ডিসেম্বর রাতে নাজমুল ভূঞাপুর উপজেলার নিকরাইল ইউনিয়নের ৪নং পুনর্বাসন আবাসস্থলে ওই নারীর বসত ঘরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ করে। পরে ওই নারী গর্ভবতী হয়ে পড়েন এবং তার গর্ভে একটি কন্যা সন্তান জন্ম নেয়। পরে ওই নারীকে বিয়ে করবে না বলে জানায় নাজমুল।

এ ঘটনায় ওই নারী টাঙ্গাইল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলা দায়ের করলে সাক্ষ্য প্রমাণ শেষে আদালত এ রায় ঘোষণা করেন।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন