মেহেরপুরে বাসের ধাক্কায় শ্যালক-দুলাভাই নিহত
jugantor
মেহেরপুরে বাসের ধাক্কায় শ্যালক-দুলাভাই নিহত

  মেহেরপুর প্রতিনিধি  

১৫ অক্টোবর ২০২০, ১০:৩৭:২৫  |  অনলাইন সংস্করণ

মেহেরপুরে সদর উপজেলায় বাসের ধাক্কায় ইটভাঙা গাড়িতে থাকা শ্যালক ও দুলাভাই নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন একজন।

বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে মেহেরপুর-চুয়াডাঙ্গা সড়কের উপজেলার দীনদত্ত ব্রিজের কাছে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- মেহেরপুর সদর উপজেলার আমঝুপি বিশ্বাসপাড়া এলাকার বদর আলীর ছেলে ওয়াসিম (৩০) ও তার দুলাভাই (বোনজামাই) একই গ্রামের শাহাদাত হোসেনের ছেলে জাফর আলী (৪২)। তারা দুজনে খোয়াভাঙা মেশিনের মালিক ও শ্রমিক হিসেবে কাজ করেন।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে মেহেরপুর সদর থানার ওসি শাহ দারাখান জানান, বরিশাল কুয়াকাটা থেকে মেহেরপুরের উদ্দেশে ছেড়ে আসা রয়েল এক্সপ্রেসের বাসটি সামনে থেকে আসা ইটভাঙা গাড়িটিকে ধাক্কা দিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই ইটভাঙা গাড়িতে থাকা শ্যালক ও দুলাভাইয়ের মৃত্যু হয়।

খবর পেয়ে মেহেরপুর ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে মরদেহ উদ্ধার করেছে। আহত ব্যক্তিকে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মেহেরপুরে বাসের ধাক্কায় শ্যালক-দুলাভাই নিহত

 মেহেরপুর প্রতিনিধি 
১৫ অক্টোবর ২০২০, ১০:৩৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মেহেরপুরে সদর উপজেলায় বাসের ধাক্কায় ইটভাঙা গাড়িতে থাকা শ্যালক ও দুলাভাই নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন একজন।

বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে মেহেরপুর-চুয়াডাঙ্গা সড়কের উপজেলার দীনদত্ত ব্রিজের কাছে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- মেহেরপুর সদর উপজেলার আমঝুপি বিশ্বাসপাড়া এলাকার বদর আলীর ছেলে ওয়াসিম (৩০) ও তার দুলাভাই (বোনজামাই) একই গ্রামের শাহাদাত হোসেনের ছেলে জাফর আলী (৪২)। তারা দুজনে খোয়াভাঙা মেশিনের মালিক ও শ্রমিক হিসেবে কাজ করেন।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে মেহেরপুর সদর থানার ওসি শাহ দারাখান জানান, বরিশাল কুয়াকাটা থেকে মেহেরপুরের উদ্দেশে ছেড়ে আসা রয়েল এক্সপ্রেসের বাসটি সামনে থেকে আসা ইটভাঙা গাড়িটিকে ধাক্কা দিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই ইটভাঙা গাড়িতে থাকা শ্যালক ও দুলাভাইয়ের মৃত্যু হয়।

খবর পেয়ে মেহেরপুর ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে মরদেহ উদ্ধার করেছে। আহত ব্যক্তিকে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন