চাটমোহরে গলায় ফাঁস নিয়ে একই দিনে দুই গৃহবধূর আত্মহত্যা
jugantor
চাটমোহরে গলায় ফাঁস নিয়ে একই দিনে দুই গৃহবধূর আত্মহত্যা

  চাটমোহর (পাবনা) প্রতিনিধি  

১৬ অক্টোবর ২০২০, ১৭:৫৯:২৫  |  অনলাইন সংস্করণ

আত্নহত্যা

পাবনার চাটমোহরে পারিবারিক কলহের জেরে একই দিনে পৃথক দুই গ্রামে গলায় ফাঁস নিয়ে ২ জন গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন। বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার কুমারগাড়া ও কৃষ্টপুর গ্রামে এসব ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে।

মৃত দুই গৃহবধূ হলেন- উপজেলার বিলচলন ইউনিয়নের কুমারগাড়া গ্রামের আলতাব হোসেনের মেয়ে ও আতাইকুলা উপজেলার রঘুনাথপুর গ্রামের সাইদুল ইসলামের স্ত্রী পারুল খাতুন (২৫) এবং ফৈলজানা ইউনিয়নের কৃষ্টপুর গ্রামের মামুন হোসেনের স্ত্রী মারিয়া খাতুন। পারিবারিক কলহের কারণেই এমন ঘটনা ঘটেছে বলে স্থানীয়দের ধারণা।

জানা গেছে, পারিবারিক বিষয় নিয়ে স্বামীর সঙ্গে মনমালিন্য হওয়ায় বেশ কিছুদিন ধরে পারুল খাতুন কুমারগাড়া গ্রামে বাবার বাড়িতে অবস্থান করছিলেন। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে বাড়ির সবার অগোচরে ঘরের আড়ার সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস নেয়। পরে সকালে তার কোনো সাড়াশব্দ না পেয়ে স্বজনরা দরজা ভেঙে পারুলকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখে পুলিশে খবর দেন।

অপরদিকে কৃষ্টপুর গ্রামে মারিয়া খাতুন নামের ওই গৃহবধূও গভীর রাতে একই কায়দায় শোবার ঘরে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেন। পারিবারিক অশান্তির কারণেই এ আত্মহত্যা বলে স্থানীয়দের ধারণা।

ঘটনার ব্যাপারে চাটমোহর থানার ওসি আমিনুল ইসলাম যুগান্তরকে জানান, মারিয়া খাতুনের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা মর্গে পাঠানো হয়েছে। আর পারুল খাতুনের পরিবারের অভিযোগ না থাকায় ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তবে এ ঘটনায় থানায় পৃথক দুটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানান ওসি।

চাটমোহরে গলায় ফাঁস নিয়ে একই দিনে দুই গৃহবধূর আত্মহত্যা

 চাটমোহর (পাবনা) প্রতিনিধি 
১৬ অক্টোবর ২০২০, ০৫:৫৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আত্নহত্যা
আত্নহত্যা

পাবনার চাটমোহরে পারিবারিক কলহের জেরে একই দিনে পৃথক দুই গ্রামে গলায় ফাঁস নিয়ে ২ জন গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন। বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার কুমারগাড়া ও কৃষ্টপুর গ্রামে এসব ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে।

মৃত দুই গৃহবধূ হলেন- উপজেলার বিলচলন ইউনিয়নের কুমারগাড়া গ্রামের আলতাব হোসেনের মেয়ে ও আতাইকুলা উপজেলার রঘুনাথপুর গ্রামের সাইদুল ইসলামের স্ত্রী পারুল খাতুন (২৫) এবং ফৈলজানা ইউনিয়নের কৃষ্টপুর গ্রামের মামুন হোসেনের স্ত্রী মারিয়া খাতুন। পারিবারিক কলহের কারণেই এমন ঘটনা ঘটেছে বলে স্থানীয়দের ধারণা।

জানা গেছে, পারিবারিক বিষয় নিয়ে স্বামীর সঙ্গে মনমালিন্য হওয়ায় বেশ কিছুদিন ধরে পারুল খাতুন কুমারগাড়া গ্রামে বাবার বাড়িতে অবস্থান করছিলেন। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে বাড়ির সবার অগোচরে ঘরের আড়ার সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস নেয়। পরে সকালে তার কোনো সাড়াশব্দ না পেয়ে স্বজনরা দরজা ভেঙে পারুলকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখে পুলিশে খবর দেন। 

অপরদিকে কৃষ্টপুর গ্রামে মারিয়া খাতুন নামের ওই গৃহবধূও গভীর রাতে একই কায়দায় শোবার ঘরে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেন। পারিবারিক অশান্তির কারণেই এ আত্মহত্যা বলে স্থানীয়দের ধারণা।

ঘটনার ব্যাপারে চাটমোহর থানার ওসি আমিনুল ইসলাম যুগান্তরকে জানান, মারিয়া খাতুনের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা মর্গে পাঠানো হয়েছে। আর পারুল খাতুনের পরিবারের অভিযোগ না থাকায় ময়নাতদন্ত ছাড়াই লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তবে এ ঘটনায় থানায় পৃথক দুটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানান ওসি।
 

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন