বিয়ের ৫ মাসের মাথায় লাশ হল কিশোরী গৃহবধূ
jugantor
বিয়ের ৫ মাসের মাথায় লাশ হল কিশোরী গৃহবধূ

  দিনাজপুর প্রতিনিধি  

১৬ অক্টোবর ২০২০, ১৯:২০:০৭  |  অনলাইন সংস্করণ

আত্নহত্যা

দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে বিয়ের ৫ মাসের মাথায় লাশ হল কিশোরী গৃহবধূ ফারজানা আক্তার ওরফে ফুলমালা (১৬)। রহস্যজনক মৃত্যুর পর গোসল করিয়ে দাফন-কাফনের প্রস্তুতির প্রাক্কালে তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে ফুলবাড়ী থানা পুলিশ।

শুক্রবার দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার শিবনগর ইউনিয়নের মধ্যসুলতানপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ফারজানা আক্তার মধ্যসুলতানপুর গ্রামের নুরুন্নবীর স্ত্রী।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, গত এপ্রিল মাসে ফুলবাড়ী উপজেলার মধ্যসুলতানপুর গ্রামের নুরুজ্জামানের ছেলে নুরুন্নবীর সাথে বিয়ে হয় কুড়িগ্রামের ইসমাইল হোসেনের কিশোরী কন্যা ফারজানা আক্তারের।

স্বামীর পরিবারের লোকজনের দাবি, গৃহবধূ ফারজানা আক্তার শুক্রবার সকাল ৯টায় সবার অগোচরে ঘরের মধ্যে ঘরের আড়ার সঙ্গে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। এরপর লাশ নামিয়ে তারা গোসল করিয়ে দাফনের প্রস্তুতি নেয়। এরই মধ্যে পুলিশ খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।

ফারজানার শাশুড়ি আমেনা বেগম বলেন, সকালে পরিবারের লোকজন নাস্তা খেয়ে যে যার মতো কাজে চলে যায়। তিনিও গরুর ঘাস কাটতে জমিতে যান। বাড়িতে একাই ছিল তার ছেলের বউ। সকাল ৯টার দিকে ঘাস নিয়ে বাড়ি ফিরে দেখেন ঘরের দরজা-জানালা বন্ধ। ডাকাডাকি করেও ছেলের বউয়ের কোনো সাড়াশব্দ না পেয়ে প্রতিবেশীদের খবর দেন তিনি।

ফুলবাড়ী থানার ওসি ফখরুল ইসলাম জানান, ঘটনা যাই হোক ময়নাতদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত রহস্য জানা যাবে। এজন্য লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্টের ভিত্তিতেই আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি।

বিয়ের ৫ মাসের মাথায় লাশ হল কিশোরী গৃহবধূ

 দিনাজপুর প্রতিনিধি 
১৬ অক্টোবর ২০২০, ০৭:২০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আত্নহত্যা
আত্নহত্যা

দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে বিয়ের ৫ মাসের মাথায় লাশ হল কিশোরী গৃহবধূ ফারজানা আক্তার ওরফে ফুলমালা (১৬)। রহস্যজনক মৃত্যুর পর গোসল করিয়ে দাফন-কাফনের প্রস্তুতির প্রাক্কালে তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে ফুলবাড়ী থানা পুলিশ।

শুক্রবার দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার শিবনগর ইউনিয়নের মধ্যসুলতানপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ফারজানা আক্তার মধ্যসুলতানপুর গ্রামের নুরুন্নবীর স্ত্রী।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, গত এপ্রিল মাসে ফুলবাড়ী উপজেলার মধ্যসুলতানপুর গ্রামের নুরুজ্জামানের ছেলে নুরুন্নবীর সাথে বিয়ে হয় কুড়িগ্রামের ইসমাইল হোসেনের কিশোরী কন্যা ফারজানা আক্তারের। 

স্বামীর পরিবারের লোকজনের দাবি, গৃহবধূ ফারজানা আক্তার শুক্রবার সকাল ৯টায় সবার অগোচরে ঘরের মধ্যে ঘরের আড়ার সঙ্গে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। এরপর লাশ নামিয়ে তারা গোসল করিয়ে দাফনের প্রস্তুতি নেয়। এরই মধ্যে পুলিশ খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।

ফারজানার শাশুড়ি আমেনা বেগম বলেন, সকালে পরিবারের লোকজন নাস্তা খেয়ে যে যার মতো কাজে চলে যায়। তিনিও গরুর ঘাস কাটতে জমিতে যান। বাড়িতে একাই ছিল তার ছেলের বউ। সকাল ৯টার দিকে ঘাস নিয়ে বাড়ি ফিরে দেখেন ঘরের দরজা-জানালা বন্ধ। ডাকাডাকি করেও ছেলের বউয়ের কোনো সাড়াশব্দ না পেয়ে প্রতিবেশীদের খবর দেন তিনি। 

ফুলবাড়ী থানার ওসি ফখরুল ইসলাম জানান, ঘটনা যাই হোক ময়নাতদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত রহস্য জানা যাবে। এজন্য লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্টের ভিত্তিতেই আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি।
 

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন