মহেশপুরে পারিবারিক দ্বন্দ্বের জেরে এক নারীর মৃত্যু
jugantor
মহেশপুরে পারিবারিক দ্বন্দ্বের জেরে এক নারীর মৃত্যু

  ঝিনাইদহ প্রতিনিধি  

১৭ অক্টোবর ২০২০, ১৯:১৯:২৫  |  অনলাইন সংস্করণ

ঝিনাইদহ

ঝিনাইদহের মহেশপুরে পারিবারিক দ্বন্দ্বের জের ধরে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। তিনি উপজেলার কমলাপুর গ্রামের আব্দুল লতিফের স্ত্রী নাছিমা খাতুন (৫৫)। শুক্রবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলেও সংশ্লিষ্ট মহেশপুর থানার ওসি মো. সাইফুল ইসলাম ফোন ধরেননি।

কোটচাঁদপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মোহাইমিনুল ইসলাম জানান, পারিবারিক সম্পত্তি নিয়ে ৪ ভাইয়ের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। এর জের ধরে শুক্রবার রাতে ভাইদের মধ্যে কথাকাটাকাটি শুরু হয়। এ সময় বড় ভাইয়ের স্ত্রী নাছিমা খাতুন গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাকে পার্শ্ববর্তী চৌগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। রাত ১১টার দিকে মৃত্যু হয় তার। তিনি আরও জানান, ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।

এ ঘটনায় থানায় ৩০৪ ধারা মতে একটি মামলা গ্রহণের প্রস্তুতি চলছে। ইতোমধ্যে জাকারিয়া নামের এক ভাইকে আটক করেছে পুলিশ।

মহেশপুর থানার ডিউটি অফিসার এসআই চায়না খাতুন জানান, আজ শনিবার সকালে নাছিমার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঝিনাইদহ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।এখনও মামলা হয়নি বলে জানান তিনি।

গ্রাম্য একাধিক সূত্র জানায়, ছোট ভাই আজাদ অবিবাহিত অবস্থায় সম্প্রতি মারা গেছেন কিন্তু তার দায়-দেনা রয়ে গেছে। এছাড়াও গ্রামের দ্বিতল বাড়ি নিয়ে রয়েছে ভাইদের মধ্যে বিরোধ। মাঝে মধ্যে অপর ভাই জাকারিয়া ঢাকা থেকে গ্রামে আসেন এবং বিষয়টি নিয়ে অন্য ভাইদের সঙ্গে বৈঠক করেন।

শুক্রবার সন্ধ্যায় অনুরূপ বৈঠক শুরু হয়। একপর্যায়ে বড় ভাই আব্দুল লতিফের সাথে কথাকাটাকাটি শুরু হয়। অভিযোগ করা হয়েছে, ঝগড়ার সময় নাছিমাকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়া হয় এবং এতে ঘরের দেয়ালের ওপর আছড়ে পড়েন তিনি। মাথায় গুরুতর আঘাত প্রাপ্ত হয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন নাছিমা। রাতেই পার্শ্ববর্তী চৌগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানেই মৃত্যু হয় তার।

মহেশপুরে পারিবারিক দ্বন্দ্বের জেরে এক নারীর মৃত্যু

 ঝিনাইদহ প্রতিনিধি 
১৭ অক্টোবর ২০২০, ০৭:১৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ঝিনাইদহ
ঝিনাইদহ

ঝিনাইদহের মহেশপুরে পারিবারিক দ্বন্দ্বের জের ধরে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। তিনি উপজেলার কমলাপুর গ্রামের আব্দুল লতিফের স্ত্রী নাছিমা খাতুন (৫৫)। শুক্রবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলেও সংশ্লিষ্ট মহেশপুর থানার ওসি মো. সাইফুল ইসলাম ফোন ধরেননি।

কোটচাঁদপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মোহাইমিনুল ইসলাম জানান, পারিবারিক সম্পত্তি নিয়ে ৪ ভাইয়ের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। এর জের ধরে শুক্রবার রাতে ভাইদের মধ্যে কথাকাটাকাটি শুরু হয়। এ সময় বড় ভাইয়ের স্ত্রী নাছিমা খাতুন গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাকে পার্শ্ববর্তী চৌগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। রাত ১১টার দিকে মৃত্যু হয় তার। তিনি আরও জানান, ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পাওয়ার পর মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।

এ ঘটনায় থানায় ৩০৪ ধারা মতে একটি মামলা গ্রহণের প্রস্তুতি চলছে। ইতোমধ্যে জাকারিয়া নামের এক ভাইকে আটক করেছে পুলিশ। 

মহেশপুর থানার ডিউটি অফিসার এসআই চায়না খাতুন জানান, আজ শনিবার সকালে নাছিমার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঝিনাইদহ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।এখনও মামলা হয়নি বলে জানান তিনি।

গ্রাম্য একাধিক সূত্র জানায়, ছোট ভাই আজাদ অবিবাহিত অবস্থায় সম্প্রতি মারা গেছেন কিন্তু তার দায়-দেনা রয়ে গেছে। এছাড়াও গ্রামের দ্বিতল বাড়ি নিয়ে রয়েছে ভাইদের মধ্যে বিরোধ। মাঝে মধ্যে অপর ভাই জাকারিয়া ঢাকা থেকে গ্রামে আসেন এবং বিষয়টি নিয়ে অন্য ভাইদের সঙ্গে বৈঠক করেন। 

শুক্রবার সন্ধ্যায় অনুরূপ বৈঠক শুরু হয়। একপর্যায়ে বড় ভাই আব্দুল লতিফের সাথে কথাকাটাকাটি শুরু হয়। অভিযোগ করা হয়েছে, ঝগড়ার সময় নাছিমাকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়া হয় এবং এতে ঘরের দেয়ালের ওপর আছড়ে পড়েন তিনি। মাথায় গুরুতর আঘাত প্রাপ্ত হয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন নাছিমা। রাতেই পার্শ্ববর্তী চৌগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানেই মৃত্যু হয় তার।
 

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন