গৌরীপুরে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা
jugantor
গৌরীপুরে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

  গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি  

১৮ অক্টোবর ২০২০, ০৮:৩৭:৪৫  |  অনলাইন সংস্করণ

মাসুদুর রহমান শুভ্র

ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মাসুদুর রহমান শুভ্রকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। এ সময় আরও দুজনকে কুপিয়ে জখম করা হয়।

শনিবার রাতে শহরের পানমহালে এ ঘটনা ঘটে। নিহত শুভ্র পৌরসভার কালীপুর এলাকার বাসিন্দা।

প্রত্যক্ষদর্শী ২নং গৌরীপুর ইউনিয়নের গজন্দর গ্রামের হামিদুর রহমানের ছেলে শামীম আহাম্মেদ (৩৭) জানান, উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক ও ১নং মইলাকান্দা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রিয়াদুজ্জামান রিয়াদের নেতৃত্বে এ হামলা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, পানমহালের আবদুর রহিমের চায়ের দোকানে মাসুদুর রহমান শুভ্রসহ ৪-৫ জন চা খাচ্ছিলেন। এ সময় দুটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা থেকে ৮-১০ জন নেমে হঠাৎ তাকে কোপ দেয়। তিনি সরে যাওয়ায় চায়ের দোকানের খুঁটির বাঁশ কেটে গেছে। পরে চিৎকার দিলে দুজন দৌড়ে পালিয়ে যায়।

অন্যরা মাসুদুর রহমান শুভ্রর ওপর আক্রমণ চালায়। শুভ্র বাঁচার জন্য দৌড়ে মসল্লামহালের সুমিত্রা মেডিকেল হলের সামনে যেতেই তাকে এলোপাতাড়িভাবে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে। শুভ্রর সঙ্গে থাকা আল আমিন ও জাহাঙ্গীরকেও কুপিয়ে গুরুতর জখম করা হয়।

গৌরীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. দীপঙ্কর চক্রবর্তী জানান, আহত তিনজনের অবস্থায় আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। শুভ্রর শরীরে অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন ছিল। শুনেছি ওই হাসপাতালে শুভ্রর মৃত্যু হয়েছে।

সুমিত্রা মেডিকেল হলের মালিক নৃপেন্দ্র চন্দ্র বিশ্বাস জানান, শুভ্রকে তাড়া করে দুদিক থেকে তিনজন আসে। শুভ্র দোকানে এসে পড়ে যায়।

গৌরীপুর থানার ওসি মো. বোরহান উদ্দিন জানান, ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থেকে মাসুদুর রহমান শুভ্র মৃত্যুবরণ করেন। অন্য দুজন সেখানেই চিকিৎসাধীন।

গৌরীপুরে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

 গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি 
১৮ অক্টোবর ২০২০, ০৮:৩৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মাসুদুর রহমান শুভ্র
মাসুদুর রহমান শুভ্র। ছবি: যুগান্তর

ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মাসুদুর রহমান শুভ্রকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। এ সময় আরও দুজনকে কুপিয়ে জখম করা হয়।

শনিবার রাতে শহরের পানমহালে এ ঘটনা ঘটে। নিহত শুভ্র পৌরসভার কালীপুর এলাকার বাসিন্দা।

প্রত্যক্ষদর্শী ২নং গৌরীপুর ইউনিয়নের গজন্দর গ্রামের হামিদুর রহমানের ছেলে শামীম আহাম্মেদ (৩৭) জানান, উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক ও ১নং মইলাকান্দা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রিয়াদুজ্জামান রিয়াদের নেতৃত্বে এ হামলা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, পানমহালের আবদুর রহিমের চায়ের দোকানে মাসুদুর রহমান শুভ্রসহ ৪-৫ জন চা খাচ্ছিলেন। এ সময় দুটি সিএনজিচালিত অটোরিকশা থেকে ৮-১০ জন নেমে হঠাৎ তাকে কোপ দেয়। তিনি সরে যাওয়ায় চায়ের দোকানের খুঁটির বাঁশ কেটে গেছে। পরে চিৎকার দিলে দুজন দৌড়ে পালিয়ে যায়।

অন্যরা মাসুদুর রহমান শুভ্রর ওপর আক্রমণ চালায়। শুভ্র বাঁচার জন্য দৌড়ে মসল্লামহালের সুমিত্রা মেডিকেল হলের সামনে যেতেই তাকে এলোপাতাড়িভাবে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে। শুভ্রর সঙ্গে থাকা আল আমিন ও জাহাঙ্গীরকেও কুপিয়ে গুরুতর জখম করা হয়।

গৌরীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. দীপঙ্কর চক্রবর্তী জানান, আহত তিনজনের অবস্থায় আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। শুভ্রর শরীরে অসংখ্য আঘাতের চিহ্ন ছিল। শুনেছি ওই হাসপাতালে শুভ্রর মৃত্যু হয়েছে।

সুমিত্রা মেডিকেল হলের মালিক নৃপেন্দ্র চন্দ্র বিশ্বাস জানান, শুভ্রকে তাড়া করে দুদিক থেকে তিনজন আসে। শুভ্র দোকানে এসে পড়ে যায়।

গৌরীপুর থানার ওসি মো. বোরহান উদ্দিন জানান, ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থেকে মাসুদুর রহমান শুভ্র মৃত্যুবরণ করেন। অন্য দুজন সেখানেই চিকিৎসাধীন।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন