সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত
jugantor
সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত

  দামুড়হুদা (চুয়াডাঙ্গা) প্রতিনিধি  

১৮ অক্টোবর ২০২০, ১১:০৫:১৫  |  অনলাইন সংস্করণ

সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত

চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলার ঠাকুরপুর সীমান্তে ওমেদুল ইসলাম (২৬) নামে এক বাংলাদেশি যুবককে গুলি করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) বিরুদ্ধে।

রোববার ভোরে সীমান্তে গরু আনতে গেলে বিএসএফ সদস্যরা তাকে গুলি করে হত্যা করেন।

নিহত ওমেদুল ইসলাম ঠাকুরপুর গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে।

নিহতের পরিবার সূত্র ও স্থানীয়রা জানান, রোববার ভোরে ওমেদুলসহ ৪-৫ জন বাংলাদেশি সীমান্তে যান গরু আনতে। ভোর ৪টার দিকে তারা দামুড়হুদা উপজেলার ঠাকুরপুর সীমান্তের ৮৮/৮৯ মেইন পিলারের নিকট জিরো পয়েন্টের কাছাকাছি গেলে ভারতীয় নদীয়া জেলার রেঙ্গেরপোতা ক্যাম্পের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের একটি টহল দল তাদের ধাওয়া করে।

এ সময় অন্য সহযোগীরা পালিয়ে এলেও বিএসএফের গুলিতে মারা যান ওমেদুল ইসলাম। ঘটনাস্থল ভারতের অভ্যন্তরে হওয়ায় রোববার বেলা ১১টার দিকে নিহতের মরদেহ বিএসএফ নিয়ে যান।

চুয়াডাঙ্গা-৬ বিজিবির পরিচালক মোহাম্মদ খালেকুজ্জামান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, ওমেদুলকে গুলি করে হত্যা ঘটনার কড়া প্রতিবাদ ও নিহত বাংলাদেশি যুবকের মরদেহ ফেরত চেয়ে বিএসএফকে চিঠি দেয়ার প্রস্তুতি চলছে।

সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত

 দামুড়হুদা (চুয়াডাঙ্গা) প্রতিনিধি 
১৮ অক্টোবর ২০২০, ১১:০৫ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত
ছবি: যুগান্তর

চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলার ঠাকুরপুর সীমান্তে ওমেদুল ইসলাম (২৬) নামে এক বাংলাদেশি যুবককে গুলি করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) বিরুদ্ধে।

রোববার ভোরে সীমান্তে গরু আনতে গেলে বিএসএফ সদস্যরা তাকে গুলি করে হত্যা করেন।

নিহত ওমেদুল ইসলাম ঠাকুরপুর গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে।

নিহতের পরিবার সূত্র ও স্থানীয়রা জানান, রোববার ভোরে ওমেদুলসহ ৪-৫ জন বাংলাদেশি সীমান্তে যান গরু আনতে। ভোর ৪টার দিকে তারা দামুড়হুদা উপজেলার ঠাকুরপুর সীমান্তের ৮৮/৮৯ মেইন পিলারের নিকট জিরো পয়েন্টের কাছাকাছি গেলে ভারতীয় নদীয়া জেলার রেঙ্গেরপোতা ক্যাম্পের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের একটি টহল দল তাদের ধাওয়া করে।

এ সময় অন্য সহযোগীরা পালিয়ে এলেও বিএসএফের গুলিতে মারা যান ওমেদুল ইসলাম। ঘটনাস্থল ভারতের অভ্যন্তরে হওয়ায় রোববার বেলা ১১টার দিকে নিহতের মরদেহ বিএসএফ নিয়ে যান।

চুয়াডাঙ্গা-৬ বিজিবির পরিচালক মোহাম্মদ খালেকুজ্জামান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, ওমেদুলকে গুলি করে হত্যা ঘটনার কড়া প্রতিবাদ ও নিহত বাংলাদেশি যুবকের মরদেহ ফেরত চেয়ে বিএসএফকে চিঠি দেয়ার প্রস্তুতি চলছে।

 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন