তরুণীকে ৫ দিন আটকে রেখে ধর্ষণ, মাথার চুল কেটে নির্যাতন
jugantor
তরুণীকে ৫ দিন আটকে রেখে ধর্ষণ, মাথার চুল কেটে নির্যাতন

  বুড়িচং (কুমিল্লা) প্রতিনিধি  

১৮ অক্টোবর ২০২০, ২২:৫৪:০৪  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার শোভারামপুর গ্রামে এক তরুণীকে ধর্ষণ ও বর্বর নির্যাতন করেছে বাছির (১৯) নামে এক যুবক। এছাড়া ওই তরুণীকে মারধর করে মাথার চুল কেটে দিয়েছে তার মা শিল্পী বেগম, নানা লিয়াকত আলী ও বাছিরের লোকজন।

এ ঘটনায় ওই তরুণী চারজনের নামে বুড়িচং থানায় একটি মামলা করেছেন। আহত ওই তরুণী বর্তমানে বুড়িচং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছেন।

অভিযোগে জানা যায়, ১২ অক্টোবর সকালে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে বাড়ির সামনে থেকে ইচ্ছার বিরুদ্ধে ওই তরুণীকে অপহরণ করে নিয়ে যায় শোভারামপুর গ্রামের মো. মোখলেছুর রহমানের ছেলে বাছির। পরে একটি বাড়িতে পাঁচ দিন আটকে রেখে শনিবার ভোর পর্যন্ত ওই তরুণীকে একাধিকবার ধর্ষণ করে সে।

পরে বাছিরের গ্রামের বাড়িতে নিয়ে যায় ওই তরুণীকে। সেখানে বাছিরের মা এবং নানা তাকে মারধর ও নির্যাতনসহ ধারালো ব্লেড দিয়ে বাছিরের মা তার মাথার চুল কেটে ফেলে। এতে সহায়তা করে লিয়াকত আলী।

শনিবার সন্ধ্যায় ওই তরুণীর পরিবারের লোকজন খোঁজ পেয়ে স্থানীয় জনতার সহায়তায় উদ্ধার করে বুড়িচং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করেন।

বুড়িচং থানার ওসি মোজাম্মেল হোসেন বলেন, অভিযোগ পেয়ে আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। আসামিদের গ্রেফতার করা হয়েছে। স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে।

তরুণীকে ৫ দিন আটকে রেখে ধর্ষণ, মাথার চুল কেটে নির্যাতন

 বুড়িচং (কুমিল্লা) প্রতিনিধি 
১৮ অক্টোবর ২০২০, ১০:৫৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার শোভারামপুর গ্রামে এক তরুণীকে ধর্ষণ ও বর্বর নির্যাতন করেছে বাছির (১৯) নামে এক যুবক। এছাড়া ওই তরুণীকে মারধর করে মাথার চুল কেটে দিয়েছে তার মা শিল্পী বেগম, নানা লিয়াকত আলী ও বাছিরের লোকজন।

এ ঘটনায় ওই তরুণী চারজনের নামে বুড়িচং থানায় একটি মামলা করেছেন। আহত ওই তরুণী বর্তমানে বুড়িচং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছেন।

অভিযোগে জানা যায়, ১২ অক্টোবর সকালে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে বাড়ির সামনে থেকে ইচ্ছার বিরুদ্ধে ওই তরুণীকে অপহরণ করে নিয়ে যায় শোভারামপুর গ্রামের মো. মোখলেছুর রহমানের ছেলে বাছির। পরে একটি বাড়িতে পাঁচ দিন আটকে রেখে শনিবার ভোর পর্যন্ত ওই তরুণীকে একাধিকবার ধর্ষণ করে সে।

পরে বাছিরের গ্রামের বাড়িতে নিয়ে যায় ওই তরুণীকে। সেখানে বাছিরের মা এবং নানা তাকে মারধর ও নির্যাতনসহ ধারালো ব্লেড দিয়ে বাছিরের মা তার মাথার চুল কেটে ফেলে। এতে সহায়তা করে লিয়াকত আলী।

শনিবার সন্ধ্যায় ওই তরুণীর পরিবারের লোকজন খোঁজ পেয়ে স্থানীয় জনতার সহায়তায় উদ্ধার করে বুড়িচং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করেন।

বুড়িচং থানার ওসি মোজাম্মেল হোসেন বলেন, অভিযোগ পেয়ে আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। আসামিদের গ্রেফতার করা হয়েছে। স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে।

 
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন